পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।



পিতা মাতা দুই গেল ইন্দুর এবার।
 হায় সেই বিবাহিত নবীন জীবন, সুখময় স্বপ্নময় পূর্ণ মাদকতা, স্বামীর সোহাগ সেই আদর যতন, প্রীতির উচ্ছাস পূর্ণ হৃদয় স্পন্দন! কথায় কথায় উৎস ফুটিত সুখের, খেলিত আনন্দ কত নয়নে নয়নে, ত্ৰিদিবের সুখরাশি ভাসিত সতত, সে সুখ কোথায় গেল হায়রে এক্ষণে?
 হায় সেই শ্বশ্রা-গৃহ বাগান সুন্দর, সযত্নে রোপিত কত ফল পুষ্প গাছ! সহকার বৃক্ষ সেই গৃহের প্রাঙ্গণে, নিদাঘে যখন ফল পাকিত তাহার, আসিত বিহগী কত সুন্দর বরণ, খাইত বসিয়া ফল, কারিত কাকুলী!
পয়স্বিনী গাভী সেই “করুণা” তাহার, ডাকিলে আসিত ছুটে বৎসতরি সাথে, উৰ্দ্ধমুখে উদ্ধ পুচ্ছে গাত্ৰ কুণ্ডয়াণেকোথায় তাহারা এবে কোথায় বা তিনি?
  সেই ক্ষুদ্র জলাশয়, বাধা ঘাট তার, নিদাষ মধ্যাহ্নে যথা বৃক্ষের ছায়ায়,
বসিয়া পতির সনে কহিতেন কথা,