পাতা:ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের জীবনচরিত ও কবিত্ব.djvu/৩৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রণয়। दशनिन यांद्र लांशिों, হয়ে প্রেম-অনুরাগী, আশপথে অাশা ছিল একা । সদয় হইয়া বিধি, দিয়াছেন সেই নিধি, গোপনে পেয়েছি তার দেখা ॥ নটবর নবরঙ্গী, মনোহর ভাবভঙ্গি, সঙ্গে তার সঙ্গী নাই কেহ । স্বভাবে স্বভাববশে, যশযুক্ত নিজ যশে, স্নেহরসে পরিপূর্ণ দেহ ॥ ভাবের করিয়া স্বষ্টি, প্রতিবাক্যে প্রীতি বৃষ্টি, দৃষ্টিমেঘে দামিনী নলকে। কিছু তার নহে বাক, লজ্জার বসন ঢাকা, নয়নের পলকে পলকে ॥ বিস্বাধরে সুধা ক্ষরে, প্রেমিকের ক্ষুধা হরে, বাক্য শুনি ভ্রাত্ত হয়ে মনে । পিকবর মধুকর, শুনে স্বর জর জ্বর, নিরন্তর ভ্রমে বনে বনে ॥ মনে মনে এই চাই, কোন খানে নাহি যাই, ক্ষণমাত্র তার সঙ্গ ছেড়ে ।