পাতা:ঐতিহাসিক চিত্র - পঞ্চম পর্য্যায়.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বুদ্ধস্থির পরিণাম কি হইবে ? S OS সৰ্ব্বাস্তঃকরণে প্ৰতিবাদ করিতেছি । বৌদ্ধতীর্থ সমস্তই এই ভারতবর্ষেই বৰ্ত্তমান। তাহার কতকগুলি প্ৰকাশিত হইয়াছে ও কতকগুলি এখনও লুপ্ত রহিয়াছে । ভারতবাসীর ভাগ্যক্রমে যদি আজ আর একটি তীর্থস্থান -যেখানে ভগবানের দেহাবশেষ সুরক্ষিত ছিল-সেই স্থান যদি আবিস্কৃত হইয়াছে, তবে গভর্ণমেণ্ট কেন তাহার পবিত্রতা লোপ করেন ? কেন তাহার পরামরত্ব অপহরণ করিয়া বিদেশে বিলাইয়া দেন ? যে রত্ন কক্ষে ধারণ করিয়া এই স্ত,পটি দুই হাজার বৎসরকাল কালের সকল ঝঞ্জাবাত সহ্য করিয়াও রক্ষা করিয়া আসিয়াছে, আজ গভৰ্ণমেণ্ট কেবল খুড়িয়া বাহির করিয়াছেন বলিয়া তাহা বিলাইয়া দিবেন !-ইহার কোন যুক্তি আমরা দেখিতে পাই না । হইতে পারে, ভারতে বৌদ্ধধৰ্ম্মের সে প্ৰাবল্য নাই, বৌদ্ধতীর্থরক্ষার ক্ষমতা ভারতীয় বেীদ্ধের এখন নাই, কিন্তু ভারত হইতে বৌদ্ধধৰ্ম্ম যখন লোপ হয় নাই, এখনও যখন চীন, জাপান, তিব্বত, ব্ৰহ্ম, শুম, সিংহল হইতে বুদ্ধগয়া, সারনাথ, কপিলবাস্তু,বৈশালী, কুশীনগর প্রভৃতি বৌদ্ধতীৰ্থ দর্শনে বহু তীর্থযাত্রী ভারতে আসিয়া থাকেন, তখন গভর্ণমেণ্ট কোন যুক্তিতে বুদ্ধদেহাবশেষ পাইলেই, অমনি ভারতের বাহিরে বিলাইয়া দিবার ব্যবস্থা করিতেছেন ? চট্টগ্রামে এখন বহু বৌদ্ধ আছেন, ভুটানে, সিকিমে, নেপালে বৌদ্ধের সংখ্যা বড় অল্প নয়। এই কলিকাতা নগরেই বৌদ্ধ বাস কি কম ? এখানেও ‘’বৌদ্ধধৰ্ম্মাঙ্কুর” নামে একটি বিহার আছে। সেখানে রীতিমত শাস্ত্রানুসারে ভিক্ষুরা বাস করেন। এই ভিক্ষুগণের *fa5f7a3 criaç"ír. Si at Bengal Buddhist Association -নামে ৰঙ্গীয় বৌদ্ধগণের মুখপাত্ৰস্বরূপ একসভা ১৮৯২ খৃষ্টাব্দে স্থাপিত হইয়া এদেশে বৌদ্ধধৰ্ম্ম ও বৌদ্ধতীর্থগুলি সংরক্ষণকল্পে খুব পরিশ্রম করিয়া আসিতেছেন। এই সভার সম্পাদক মহাশয় টেলিগ্ৰাম যোগে গভর্ণমেন্টর BDB BBDDD BBBDBDD DDSDD DBDDB SBDDB BD LBDS তীর্থে রাখা হউক। যদি গভর্ণমেণ্ট একান্ত রাখিতে না পারেন এবং ভাগ