পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৮৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৮১৬ কলিকাতা সেকালের ও একালের ৷ ” কেশবচন্দ্র সেন্স লেন। স্বর্গগত কেশব সেনের নাম, পূৰ্ব্বযুগের লোকের নিকট খুব পরিচিত ছিল। র্যাহারা তাহার ধৰ্ম্মানন্দময় প্রসন্নমুখ দেখিয়াছিলেন, তাহারা উহাকে । ভূলিতে পরিবেন না। কেশব-বাবু, ব্রাহ্মধর্মের উন্নতির জন্য, জীবন সমর্পণ করিয়াছিলেন। তিনি প্রথমে আদিসমাজ ভূক্ত ছিলেন, তৎপরে সাধারণ-ব্রাহ্মসমাজ প্রতিষ্ঠা করেন । র্তাহার কন্যার সহিত, স্বগীয় কুচবেহীরাধিপের বিবাহের পর হইতে, তিনি সাধারণ-সমাজের সহিত সম্বন্ধ বিচ্ছিন্ন করিয়া, নববিধান-সমাজ স্থাপন করেন। কেশবসেনের স্থায় ধৰ্ম্ম-বিষয়ক ইংরাজী-বক্তা এ দেশে খুব কম জন্মিয়াছে। তিনি বিলাতে গিয়া, বহুবার ব্রাহ্মধৰ্ম্ম-সম্বন্ধে বক্তৃতা করিয়া তথাকার মনীষিবর্গকে শুভিত করিয়া দিয়াছিলেন। কেশববাবু, দেওয়ান রামকমল সেনের পৌত্র। রামকমল সেন মহাশয়, ২৪ পরগণার গরিফা হইতে, ১৮•• খ্ৰীঃ অন্ধের প্রথমে, কলিকাতায় আসিয়া বসবাস করেন। বর্তমান হিন্থ হোষ্ট্রেলের সন্নিধ্যে যে গলিটী আছে, তাহাই সেন-গোষ্ঠীর কলিকাতার আদি বাট । রামকমল সেন মহাশয়, সরকারী টাকশাল ও পরে খেদল ব্যাঙ্কের দেওয়ান নিযুক্ত হইয়াছিলেন । কেশৰ বাৰু হইতে, তাহার পিতৃপুরুষের গৌরব, দেশে বিদেশে ব্যক্ত হয়। ১৮৭০ খ্ৰীঃ অন্ধে কেশবচন্দ্র যখন বিলাতে ধৰ্ম্ম সম্বন্ধীয় বক্তৃতা দিবার জন্য গমন করেন, সেই সময়ে তিনি খ্ৰীষ্টিয়ান-সমাজের বিশেষ মনোযোগ আকর্ষণ করিয়াছিলেন । এই সময়ে, চির গৌরবাম্বিতা মহারাণী ভারতেশ্বরী ভিক্টোরিয়া ও রাজপরিবারবর্গের সহিত, তিনি বিশেষভাবে পরিচিত হন। ১৮৮৪ খ্ৰীঃ ৮ই জানুয়ারি তারিখে কেশবচন্দ্র সেন ইহলোক ত্যাগ করেন। কৃষ্ণদাস পালের লেন। & অনারেবল কৃষ্ণদাস পাল, বঙ্গদেশের একটা উজ্জ্বল রত্ন। হরিশচন্দ্র মুখোপাধ্যায় মহাশয়ের মৃত্যুর পর অনেকে ভাবিয়াছিল, তৎকালীন হিলু সমাজের একমাত্র মুখপত্র “হিন্দু-পেটিয়টের” আর পুনরভু্যদয় হইবে না। কিন্তু কৃষ্ণদাস ধাত্রীরূপে হিন্দু-প্রেটি ঘটকে অ্যজীবন রক্ষা করিয়া আসিয়াছেন। হিন্দু-প্রোট রটের নির্ভীকতা ও স্পষ্টবাদিত্ত, তাহার আমলে চিরদিনই সমানভাবে বর্তমান ছিল। কৃষ্ণদাস পাল মহাশয়ের সম্পাদিত হিন্দুপেটিক্সট, উচ্চপদস্থ রাজকর্মচারিগণ এবং বড়লাট ও ছোটলাটগণ, আগ্রহের