পাতা:কল্পদ্রুম তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


pris،n : কল্পদ্রুম প্রভৃতি তদানীন্তন কবিদিগের ভাষার সঙ্গে বৈদিক ভাষার তুলনা করিলে ততোধিক বৈসাদৃশ্য লক্ষিত হইয়া থাকে। মুকুন্দরাম-প্রণীত চওঁীকাব্য পাঠ করুন, তাহাতে এক প্রকার শাবিন্যাস ও একপ্রকার ছন্দ,আবার অন্নদামঙ্গ লের ভাষা দেখুন, কত বিভিন্ন বোধ হইবে। সংস্কৃত ভাষাতেও ঠিক সেইরূপ বিভিন্নতা দেখা যায়। ঋগ্বেদের ভাষা ওঁ ব্যাকরণ সকলই স্বতন্ত্র । তাহার অর্থবোধ হওয়া অতি কঠিন। সংস্কৃত ভাষায় সবিশেষ ব্যুৎপন্ন হইলেও ভাষ্য কিম্বা টাকা না দেখিলে তাহার এক বর্ণও বুঝিতে পারা যার না। বৈদিক গ্রন্থে কিছুমাত্র ভাবলালিতা, শামাধুর্য্য,কিম্বা অলঙ্কার-সৌন্দৰ্য নাই। ফলতঃ তৎকালে বাগদেবীর অঙ্গসৌষ্ঠব ও শোভা সম্পাদন করিতে কিছুমাত্র যত্ন করা হয় নাই। তপোবনে গাছের বাকলে আর কুসুমহারে কতদূর স্ত্রসাধন হইতে পারে ?—কেবল ভাষার স্বাভাবিক সুকুমার প্রকৃতিতে যা কিছু হইয়াছে!—তান্তে বেশভূষা নাই। সংস্কৃতভাষা স্বভাবতঃ মধুৰ,—তাই বৈদিক গান শ্রবণ কুহরে মধু বর্ষণ করে। , এখন আমরা অরণ্যবাসী ঋষিদিগের আশ্রমে উপস্থিত হইলাম। এ আর এক যুগের আর এক প্ৰাণ। সাহিত্যক্ষেত্র ७क नूठन भवख्ञ श्रेब्र গিয়াছে। ঋষিগণ যোগী সমাসীন হইয়া কেহ বা ৰন্ধনিরূপণ করি তেছেন, কেহ বা বাশ্বিতগুরি অস্তিত্বের নাস্তিত্ব এবং নাস্তিত্বের অস্তিত্ব প্রতিপাদন করিতেছেন। এখন ভাষার অনেক টুকু মুখ ফুটাছে—তাহার কথা কিছু কিছু বুঝিতে পারাধায় ; কিন্তু অঙ্গের ভাবন হয় নাই,—এখনও তিনি পৃহবিহীন বকুলগুক্মিণী। ঋষিদিগের এ সময়ের ভাষা রচনা অনেক সরল ও রোধমুগম হইয়াছে ; কিন্তু তাহাতে অলঙ্কার সংযোগ কিম্বা রসভাবের আবেশ দৃষ্ট হয় না। এইবার এখানে নৈষিারণ্য-আবার ও দিকে দেখ বাল্মীকির তপোবম, बााप्नम्न झक्षदश्त्रीय ७शाश्कैौर्डन-श्राब्रौब्र ८कोभूौ-आज्रात्र अत्रबान्न झण झण করির প্রতিফলিত হইতেছে। এখানে পুরাতন মহর্ষি পঞ্জৰিত তরুতলে কুশাসনে উপবেশন করিয়া হার গাথিবীর জন্য মণিভেদক বজান্ত্রে রত্নমধ্যে हिजु रुब्रिटडटश्न,-कांबा भनिन्ब्रज शर्णभ *थः भूङ कब्रिग्रां प्ङिटाइम । নিকটে আবার কে বসিয়া আছেন? দেখিলে সহসা চিনিতে পারা যায় না— এখনও ফুলের গর, বাকল পরা, মাঝে মাঝে এক একটি মণির প্রতিবিম্ব— যেন প্রতীতে নীহারসিক্ত শতদলের ন্যায় শোভা পাইতেছে। পাঠক !