পাতা:কাব্যগ্রন্থ (নবম খণ্ড).pdf/১৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অচলায়তন কেউ এসে সেই আমদের ছায়া নাড়িয়ে দিয়ে যাবে । সর্ববনাশ ! সেই ছায় । আচার্য্য । সরবনশই ত ! উপাচার্স্য । তা হ’লে হবে কি ! এতদিন যার স্তব্ধ হ’য়ে আছে তাদের কি সাবার উঠতে হবে ? আচার্য । আমি ত তাই সামনে দেখ চি । সে কি আমার স্বপ্ন ? অথচ আমার ত মনে হচ্চে এই সমস্তই স্বপ্ন, এই পাথরের প্রচার, এই বন্ধ দরজা, এই সব ননা রেখার গণ্ডা, এই স্থ পাকার পুথি, এই অহোরাত্র মন্ত্রপাঠের গুঞ্জনধ্বনি--সমস্তই স্বপ্ন! উপাচাস । ঐ যে পঞ্চক আসচে । পাথরের মধ্যে কি ঘাস বে বয় ? এমন ছেলে আমাদের আয়তনে কি করে’ সস্তুপ হ’ল : শ শুক{ল থেকেই ওর ভিতর এমন একটা প্রপল অনিয়ম আছে, তা’কে কিছুতেই দমন করা গেল না । ঐ বালককে আমার ভয় হয় । ও-ই আমাদের তৃ লক্ষণ । এক আয়তনের মধ্যে ও কেবল তোমাকেই মানে । তুমি ওকে একটু ভৎসন করে দিয়ে । আচাৰ্য্য । আচ্ছা তুমি যাও । আমি ওর সঙ্গে একটু নিভৃতে কথা ক’য়ে দেখি । ( উপাচার্য্যের প্রস্থান) ➢ዓ¢