পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/১১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


    প্রণাম মন্ত্রঃ --বিশ্বরুপস্য ভার্য্যাসি পদ্মে পদ্মালয়ে শুভে।।
 ব্যাসের বচন ইথে নাহিক সংশয়।
 পাঁচালি প্রবন্ধে কাশীরাম দাস কয়।।
         -----
   পাণ্ডুরাজার মৃত্যু।
   সুখেতে থাকেন রাজা পুত্রের সহিত।
 ঋতুরাজ বসন্ত হইল উপনীত।।
 বসন্তকালেতে বন হইল শোভিত।
 নানা বৃক্ষগণ সব হইল পূষ্পিত।।
 পলাশ চম্পক আম্র আশোক কেশর।
 পারিভদ্র কেতকী করবী পুষ্পবর।।
 হৃদয়ে আনন্দ পাণ্ডু দেখিয়া কানন।
 গহন নিকুঞ্জবনে করেন ভ্রমণ।।
 কুন্তীসহ পুত্রগণ রাখিয়া মন্দিরে।
 মাদ্রীসহ যান রাজা অরণ্য ভিতরে।।
 রাজার সহিত মাদ্রী কুন্তী নাহি জানে।
 গহন কানন মধ্যে ভ্রমে দুইজনে।।
 মদনের শরে হইল অবশ রাজন।
 সঘনে মাদ্রীর রূপ করে নিরীক্ষণ।।
 বদনকমল পদ্ম শশধর জিনি।
 শ্রবণ গৃধিনী চারু পঙ্কজনয়নী।।
 যুগল দাড়িম্ব সম দুই পয়োধর।
 বিপুল নিতম্বভারে গমন মন্থর।।
 সতত মধুর ভাষে বরিষয়ে সুধা।
 নিরখিয়া পাণ্ডুর জন্মিল রতিক্ষুধা।।
 মদনে আচ্ছন্ন রাজা অতি অচেতন।
 হইল বিস্মৃত সেই মুনির বচন।।
 নিবৃর্ত্ত নিবৃর্ত্ত ডাকে মদ্রের নন্দিনী।
 অতি উচ্চৈঃস্বরে ডাকে হাহাকার ধ্বনি।।
 হস্ত পদ আষ্ফালনে ছট ফট করে।
 কুৎসিত আচারে মাদ্রী ভর্ৎসিল তাহারে।।
 মৃগ-ঋষি-শাপ প্রভু ভুলিলা এখন।
 ক্ষণেকে প্রমাদ হবে না জান কারণ।।
 তথাপি মদনশরে হইয়া বিহ্বল।
 কিছু নাহি শুনেন মাদ্রীর যত বোল।।
 কালেতে যে করে তাহা কে খণ্ডিতে পারে।
 পরম পণ্ডিত বুদ্ধি কালেতে সংহারে।।
 সঙ্গম করিতে রাজা মাদ্রীর সহিত।
 ঋষিশাপে মৃত্যু আসি হইল উপনীত।।
 শরীর ত্যাজেন পাণ্ডু দেখিয়া সুন্দরী।
 ক্রন্দন করেন মাদ্রী হাহাকার করি।।
 এ স্থানে ভোজের কন্যা উচাটিত মন।
 মাদ্রীর সহিত নাহি দেখয়ে রাজন।।
 হইল অনেক বেলা যায় কোথাকারে।
 পুত্রসহ গেল কুন্তী খুঁজিতে রাজারে।।
 শব্দ অনুসারে যায় অতি শীঘ্রগতি।
 দেখিল কান্দিছে মাদ্রী কোলে নরপতি।।
 বজ্রাঘাত মুণ্ডে যেন হ'ল আচম্বিতে।
 মূর্চ্ছিত হইয়া কুন্তী পড়িল ভূমিতে।।
 সঘনে নিশ্বাস ছাড়ে উচাটন মন।
 কান্দিয়া মাদ্রীর প্রতি বলেন বচন।।
 কি কর্ম্ম করিলে মদ্রকন্যা স্বামী বধি।
 এই হেতু তোমারে ভোগাব নিরবধি।।
 কেন একা এলে তুমি রাজার সংহতি।
 কি হেতু নিবৃত্ত না করিলে নরপতি।।
 যদি বা আইলে সঙ্গে আনিতে নন্দন।
 তবে কেন নৃপতির হইবে নিধন।।
 মৃগৃঋষিশাপ তোর না ছিল স্মরণে।
 সকল ত্যাজিয়া বনে বঞ্চ এ কারণে।।
 অনিমেষে থাকি আমি রাজার রক্ষণে।
 সঙ্গে আসিয়াছ তুমি জানিব কেমনে।।
 আপনা খাইয়া মম হৈল হেন গতি।
 হারাইব কেন স্বামী থাকিলে সংহতি।।
 মাদ্রী বলে কুন্তী মোরে নিন্দ অকারণ।
 আমি করিলাম বহুবিধ নিবারণ।।
 দৈবে যাহা করে খণ্ডে হেন কোনজন।
 না রাখি আমার বাক্য ঘটিল নিধন।।
 কুন্তী বলে ভাবি কর্ম্ম না যায় খণ্ডন।
 সম্প্রতি শুনহ তুমি আমার বচন।।
 পঞ্চপুত্রে পালন করহ ভালমতে।
 অনুমৃতা যাই আমি রাজার সহিতে।।