পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/১২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


     ইতি শ্রীপদ্মপুরাণে লক্ষ্মী স্তোস্ত্রং সমাপ্তং।
 পুনঃ পুণঃ তার পর মারেন আবার।
 ঈষীকা ঈষীকা জুড়ি হৈল দীর্ঘাকার।।
 ঈষীকার গোড়া তবে দ্রোণ ধরি করে।
 আকাশে তুলেন ভাঁটা মাথার উপরে।।
 দেখিয়া দুষ্কর কার্য্য বালকের গণ।
 পরিচয় জিজ্ঞাসিল দ্রোণেরে তখন।।
 দ্রোণ বলে শুন সবে আমার উত্তর।
 কবে মম সমাচার ভীষ্মের গোচর।।
 এত শুনি শীঘ্রগতি যতেক কুমার।
 পিতামহ আগে কহে সব সমাচার।।
 এত শুনি গঙ্গাপুত্র ভাবিয়া তখন।
 বুঝিলেন দ্রোণাচার্য্য হয় এই জন।।
 কুরুবংশ যোগ্য গুরু মেলে এতদিনে।
 দ্রোণের আনিল ভীষ্ম আপন ভবনে।।
 পৌত্রগণে সমর্পি তোমার বিদ্যমান।
 কৃপাকরি সবাকারে দেহ দিব্যজ্ঞান।।
 এত বলি ভীষ্ম তবে পূজি বহুতর।
 থাকিবারে দিলেন সুররত্নময় ঘর।।
       -------
 দ্রোণাচার্য্যের নিকট রাজকুমারদিগের অস্ত্রশিক্ষা।
   দ্রোণাচার্য্য সব রাজকুমারে লইয়া।
 কহিবারে লাগিলেন একান্তে বসিয়া।।
 অস্ত্রবিদ্যা সবারে করাব অধ্যয়ন।
 শিক্ষা করি মম বাক্য করিবা পালন।।
 আমার যে বাঞ্ছা আছে শুন সব শিষ্য।
 সত্য কর তোমরা তা করিবে অবশ্য।।
 দ্রোণের বচন শুনি সব শিষ্যগণ।
 নিঃশব্দ হইল সবে না কহে বচন।।
 অর্জ্জুন বলেন সত্য করি অঙ্গীকার।
 করিব পালন হয় যে আজ্ঞা তোমার।।
 অর্জ্জুন বচনে দ্রোণ হরিষ-অন্তর।
 আলিঙ্গন চুম্ব দিল মস্তক উপর।।
 একান্তে বলেন দ্রোণ করি অঙ্গীকার।
 শিষ্য না করিব কারে সদৃশ তোমার।।
 তবে দ্রোণাচার্য্য সবে লৈয়া শিষ্যগণ।
 সর্ব্বদা করান সদা অস্ত্র অধ্যয়ন।।
 অস্ত্রশিক্ষা করে কুরু পাণ্ডুর কুমার।
 রাজ্যে রাজ্যে গেল গুরু দ্রোণ সমাচার।।
 যত রাজপুত্রগণ শিক্ষার কারণ।
 হস্তিনানগরে সবে করিল গমন।।
 ঋষিবংশ যদুবংশ অনু ভোজ আদি।
 আর যত রাজগণ সাগর অবধি।।
 কর্ণ মহাবীর অধিরথের নন্দন।
 সদা দুর্যোধনের সে অনুগত জন।।
 সেও অস্ত্র দ্রোণস্থানে করে অধ্যয়ন।
 হেনমতে বহু শিষ্য হইল ঘটন।।
 শিক্ষা হেতু শিষ্যগণ থাকে নিরন্তর।
 নিজ পুত্রে পড়াইতে নাহি অবসর।।
 সবারে কহেন দ্রোণ কপট করিয়া।
 গঙ্গাজল আন কমণ্ডলুতে ভরিয়া।।
 কমণ্ডলু ল'য়ে যত রাজপুত্রগণ।
 জল আনিবারে সবে করিল গমন।।
 গোপনে পুত্রেরে দ্রোণ অস্ত্রশিক্ষা দেন।
 এ সব কারণ মাত্র জানেন অর্জ্জুন।।
 বরুণ নামেতে অস্ত্র ধনুকে যুড়িয়া।
 কমণ্ডলু দিল লৈয়া জলেতে পূরিয়া।।
 জল আনিবারে যায় যত শিষ্যগণ।
 অশ্বত্থামা অর্জ্জুনে করেন অধ্যয়ন।।
 অহর্নিশি পার্থের নাহিক অবসর।
 নাহি নিদ্রা শ্রম সদা হাতে ধনুঃশর।।
 নিরবধি গুরুপদ করেন সেবন।
 কৃতাঞ্জলি সদা স্তুতি বিনয় বচন।।
 পার্থের বিনয় দেখি দ্রোন বড় প্রীত।
 বহু বিদ্যা অর্জ্জুনে দিলেন অপ্রমিত।।
 তবে একদিন তথা দ্রোন গুরুস্থানে।
 আইল নিষাদ এক শিক্ষার কারণে।।
 হিরণ্যধনুর পুত্র একলব্য নাম।
 দ্রোণের চরণে আসি করিল প্রণাম।।
 যোড়হাত করি বলে বিনয় বচন।
 শিক্ষা হেতু আইলাম তোমার সদন।।
 দ্রোণ বলিলেন তুই হ'স্ নীচজাতি।
 তোরে শিক্ষা করাইলে হইবে অখ্যাতি।।