পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৪১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভাপর্ব । ] . দিগম্বরং দ্বিভূজাঞ্চ নানালঙ্কারভূষিতং । ২৫৫ স্থির করিয়া যে দিলেন রাজগণে । রীগণে বহু ক্রোধ করিলেন মনে ॥ র্বে ইন্দ্রসেন ছিল এই দ্বারে দ্বারী। এই দোষে তাহারে দিলেন দূর করি i খিলেন দ্বারে মোরে অনেক কহিয়া । মাঙ্গা বিনা ইন্দ্র এলে না দিবে ছাড়িয় ॥ ই হেতু জগন্নাথ ভয় লাগে মনে । মাছ বিনা কিমতে ছাড়িব বিভীষণে ॥ Iাগি হেথা আন রাজ অনুমতি হরি । জানাইতে রাজারে নাহিক শক্তি ধরি ॥ নকুল আইসে কিম্বা অনুজ তাহার । বাৰ্ত্ত জানাইতে এ দোহার অধিকার ॥ বুiবায়ু আপনি কর যে হয় বিচার । ক্ষণেক থাকহ নহে যাও অন্ত্য দ্বার } এত শুনি কৃষ্ণ তারে নিন্দিয়া অপার । ক্ৰোধ করি চলিলেন উত্তর দুয়ার ॥ বিভীষণে লইয়া গেলেন গদাধর । কতদূরে দেখিলেন ভীম অনুচর ॥ চারি গোটা নৃপতিরে করিয়া বন্ধন । কেশে ধরি লইয়। যাইছে চারিজন ॥ জিজ্ঞাসেন মাধব তোমরা কোন জন । এ চারি জনারে কেন করিলে বন্ধন ॥ স্থতগণ বলে মোরা ভীমের কিঙ্কর । ইষ্টকৰ্ম্ম কৈল এই চারি নরবর ॥ ১ধত তার লোহিতমণ্ডল নরপতি । অবধানে জগন্নাথ কর অবগতি ॥ এ দোহার দেশ প্রভু সমুদ্রের তীরে । পার্থ জিনি কর সহ আনিল দোহারে ॥ এখন না বলিয়া যাইতেছিল দেশে। অৰ্দ্ধ পথ হৈতে ধরিয়া আনিমু কেশে ॥ হের দেখ জগন্নাথ এই দুই জনে । উপহাস করিল দুই দরিদ্র ব্রাহ্মণে ॥ এই হেতু চারিজনে আনিলু বাধিয়া । আজ্ঞা করিলেন ভীম শূলে দেহ নিয়া ॥ এত শুনি কৃষ্ণ ফিরাইয়া চারিজনে । ইকেদির কোথা জিজ্ঞাসেন দূতগণে ॥ অগ্রে অগ্রে যায় দূত পিছে গদাধর । কতদূরে দেখেন আইসে বৃকোদর ॥ এক লক্ষ রথী সহ ভ্ৰমে সৰ্ব্বস্থল । চরগণে খুজিছে যে কোথাকার বল ॥ ভীমের নিকটে উত্তরিল নারায়ণ । কহিলেন মুক্ত করি দেহ চারিজন ॥ কৰ্ম্ম হেতু এ সবারে কৈলা আবাহন । অনাদর এখন করহ কি কারণ ॥ - কৰ্ম্ম যদি করিবে হুইয়া মহাতেজ । ক্ষুদ্র লোকে নিমন্ত্রিলে করিবেক পূজা । দুষ্ট শিষ্ট অনেক এসেছে কৰ্ম্মস্থলে । কৰ্ম্মে বহু বিঘ্ন হয় ক্ষমা না করিলে ॥ বৃকোদর বলে শুন দৈবকী-নন্দন । দোষমত শাস্তি ঘদি না পায় দুৰ্জ্জন ॥ আর সব ক্রমে ক্রমে সেই পথ লয় । কহ ইথে কৰ্ম্ম পূর্ণ কোনমতে হয় ॥ দুষ্টে ক্ষমা করিতে ন পারি কদাচন। দুষ্টাচারী না ছাড়ে আপন দুষ্টপণ ॥ দুষ্টজনে নিজ তেজ যদি না-দেখায় । উপহাস করে আর কৰ্ম্ম ধ্বংস পায় ॥ ইহায় আমায় পূৰ্ব্বে পরিচয় কোথা । তেজ হৈতে যত দেখ আসিয়াছে হেথ ॥ পুনশ্চ কছেন কৃষ্ণ কমললোচন । শুন শুন ভীমসেন আমার বচন ॥ তোমার শান্তির শব্দে ত্ৰৈলোক্য পূরিল । র্তেই দেখি তিনলোক একত্র মিলিল ॥ | ۶- حمی - o ন্তি আচরিতে তুমি (4) কৰ্ম্ম করিলে | কহ ভীম ক্তেপর্ণ হইবে কি ভালে ॥ অন্য কৰ্ম্ম নহে এই রাজসূয় পয় । এক লক্ষ রাজা আসি হ’য়েছে একত্র ॥ নাহি জান ইতিমধ্যে আছে ভাল মন্দ । একচক্র হয়ে যদি সবে করে দ্বন্দ্ব ॥ কহ মোরে তখন উপায় কি করিবে । প্রমাদ ঘটিবে আর যজ্ঞ নষ্ট হবে ॥ পৃথিবীর লোক সব করিলে বিরোধ । কত কত জনে তুমি করিবে প্রবোধ ॥