পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৪৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8१२ ছে বীর কমলচক্ষে চাহ একবার । অজ্ঞানের অপরাধ ক্ষমিবা আমার ॥ যে যে কৰ্ম্ম তুমি করিয়াছ মহামতি । তোমা বিনা করে হেন কাহার শকতি ॥ বড় ভাগ্য আমার পিতার কৰ্ম্মফলে : শরণ লইনু আমি তব পদতলে । কৃষ্ণের আশ্রিত যেন তোম। পঞ্চজন । র্তেই আমি তব পদে নিলাম শরণ ॥ ঘদি অনুগ্রহ তুমি করিলে আমায়। দাস হ’য়ে সদ আমি সেবিব তোমায় ॥ অৰ্জুন বলেন প্রীত হলাম তোমারে । ধনু অস্ত্র ল’য়ে তুমি আইস সত্বরে ॥ কুরুগণ জিনিয়া গোধন তব দিব । মহা আর্ত আজি কুরু-সৈন্তেরে করিব ॥ কুরুসৈন্য সিন্ধুমাঝে শত্ৰগণ ভুজে ;. সকল দহিব আজি অস্ত্র-অগ্নিতেজে { পাছে তুমি ভয় কর সংগ্রামের স্থলে । আমার রক্ষণে তব ভয় নাহি তিলে । উত্তর বলিল মম আর ভয় কারে । ধনঞ্জয় মহাবীর রাখিবে যাহারে ॥ তব পরাক্রম অামি ভালমতে জানি । নাহি মম ভয় যদি আসে শূলপাণি ॥ এ বড় অদ্ভুত কথা আসে মম মনে । এরূপে কাল কাটা ও কিসের কারণ ॥ নিরস্তর এই কথা মম মনে ছিল । এ হেন শরীরে কেল ক্লীবত্ব পাইল । অৰ্জ্জুন বলেন শুন বিরাট-নন্দন । অরণ্যেতে যখন ছিলাম পঞ্চজন । যুধিষ্ঠির অজ্ঞায় গেলাম হেমগিৰি । করিলাম শিবেরে সন্তাষ তপ করে । তুষ্ট হ’য়ে মম বরকতা ত্রিলেfচন । উার অনুগ্রহে হৈল তুষ্ট দেবগণ ॥ অমুরের স্বর্গে বহু উপদ্রব করে । তার ভয়ে ইন্দ্র স্বগে নিলেন আমারে ॥ মারিলাম দৈত্যগণ কালকেয় আদি । নিবণতকবচ যত দেবগণ বাদ ॥ R f মম প্রীতি হেতু পিতা দেবু পুরন্দর। স্মেরসিং বরদং কপালমভয়ং শূলং দধানং করৈঃ । [ মহাভারত, لیےبہت بہ۔-- নৃত্য গীত করাইল অপর অপর ॥ উৰ্ব্বশী নামেতে তাহে ছিল বিদ্যাধরী। সে সবার শ্রেষ্ঠ হয় পরম স্বন্দরী ॥ যত যত বিদ্যাধরী কৈল নৃত্য গীত । চক্ষু মেলি নাহি চাহিলাম কদাচিত । দেখিলাম উৰ্ব্বশীর নৰ্ত্তন নিমিষে । সেই কারণে রীত্রিতে আসে মম পাশে । অনেক কহিয়৷ শেষে মাগিল রমণ । প্রত্যাখ্যান করিলে সে কহিল তখন । সকল অপসর ত্যজি মোরে নিরখিলে ; সে কারণে আইলাম এত নিশাকালে । না করিলে মন তোম পুরুষের কাজ । ক্লীবত্ব পাইয় থাক রমণীর মাবt ॥ শুনিয়া বিমৰ্ষভাবে কহিলাম তায় । না দেখিলু কামভাবে আমি যে তোমায । পূর্ব পিতামহ যে পুরুষ পুরাতন । জন্মাইল তোমার গর্তেতে পুত্ৰগণ । পূৰ্ব্ব হৈতে অনেক পুরুষ হৈয়া গেল । তোমার যুবতী দশ স্নান ন হইল । এই হেতু পুনঃ পুনঃ দেখেছি তোমারে । কুলের জননা রুপা করিবে আমারে । কুন্তী মাদ্রী আমার যেমন শচীন্দ্রাণী । ততোধিক তোম। আমি গরিষ্ঠত গণি ৷ আপনার বংশ বলি জানহ আমারে । লজ্জ পেয়ে উৰ্ব্বশী কহিল আরবারে । যজ্ঞব্রত-ফলে তব যত পিতৃগণে । ইন্দ্রের ভুবনে আসি থাকে স্বস্টমনে ॥ সবে মম সহ করে রতি ব্যবহার । কেহ নাহি করে হেন তোমার বিচার : কহিল আমার শাপ নহিবে লঙ্ঘন । বৎসরেক ক্লাব হবে বিরাট-ভবন ৷ বৎসরেক রহিবে করিমু নিরূপণ ! শুনহ ক্লাবের হেতু বিরাট-নন্দন ॥ বৎসরেক ক্লীব হুইলাম সেই দায় । সদাকাল ক্লীব আমি পরের দ্বারায় ৷