পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উদ্যোগপৰ্ব্ব । ] কৃষ্ণাশ্ববাহনং কান্তং কুমাররূপধারিণং। Gł >0 রজ হয়ে রাজ্য রাখে বংশে কেহ নাই । ,n হতু ক্ৰন্দন করি শুন যাহা কই ॥ গরুড় কহিল শোক না কর অন্তরে । আমি জন্মাইব পুত্র তোমার উদরে ॥ এত শুনি কহে কন্যা করি যোড়কর। রুপ। যদি কৈলে তবে শুন খগেশ্বর ॥ শওপুত্র দান দেহ তোমার ঔরসে । মহাবলবন্ত যেন হয়ত বিশেষে ॥ কন্যার বচনে খগ অঙ্গীকার কৈল । দ্বাদশ বছর ক্রীড়া আনন্দে করিল ॥ কতদিনে ঋতুযোগে হৈল গর্ভবতী । এককালে শত ডিম্ব প্রসবিল সতী ॥ সুশীল নামেতে তার আছিল সতিনী । সেবা করি পরিতুষ্ট করে খগমণি ॥ স্বধৰ্ম্ম বুঝিয়া তারে করিল রমণ । ঋতুযোগে গর্ভবতী হৈল সেইক্ষণ ॥ দুটি ডিম্ব এককালে কন্যা প্রসবিল । কতদিন পরে ডিম্ব সকলি ফুটিল । ইশলার গর্ভে হৈল যুগল নন্দন । একজন অন্ধ হৈল, দৈব নিৰ্ব্বন্ধন ॥ অন্ধক বলিয় নাম রাখিল তাহার । মহাবলবন্ত হৈল দ্বিতীয় কুমার ॥ মসুয্যের প্রায় যেন পক্ষীর আকৃতি । জটায়ু তাহার নাম রাখে খগপতি ॥ আর সব পুত্র হইল মহাবলধর । । তেজ: পুঞ্জ নুগঠন পরম স্বন্দর ॥ প্রধান পুত্রের নাম রাখিল কুবল । তীরে রাজা করিল গরুড় মহাবল ॥ ইত্ৰ দণ্ড দিয়া তারে স্থাপিল রাজ্যেতে । ক দিনে গেল রাজা স্থমেরু পৰ্ব্বতে ॥ পবনের সহ তথা বিবাদ হইল । সি কাল খগেশ্বর তথায় রহিল ॥ (ইথী সব নাগগণ পেয়ে অবসর । *ধ্যসূক পৰ্ব্বতেতে আসিল সত্ত্বর ॥ ইনল পক্ষার রাজা গরুড় কুমার । , তার সঙ্গে যুদ্ধ কৈল শতেক বছর ॥ শত ভাই সহ তারে করিল সংহার । দেখিয়া অন্ধক পক্ষী করিল বিচার ॥ ভ্রাতুসহ নিল নাগগণের শরণ। অভয় তাহারে দিল যত নাগগণ ॥ অন্ধকেরে রাজা করি স্থাপিয়া রাজ্যেতে । স্বদলে চলিয়া নাগ গেল পাতালেতে ॥ কতদিনে খগেশ্বর আসিল তথায় । পুত্ৰগণ মৃত্যু শুনি ক্রোধে কম্পকীয় ॥ সেই দোষে মারে বীর বহু নাগগণে । ব্ৰহ্মা আসি শান্ত কৈল বিনতা-নন্দনে ॥ জটায়ু ধৰ্ম্মিক হৈয়ে, তপস্বী অপার । তাহার ঔরসে হৈল যুগল কুমার ॥ শুক সারা নাম রাখে পক্ষীর প্রধান । পরম সুন্দর হৈল মহাবলবান ॥ অন্ধক-ঔরসে হৈল সহস্ৰ কুমার । মহাবলবন্ত হৈল পক্ষীর আকার ॥ প্রথম পুত্রের নাম বাতাপি রাখিল । শুভক্ষণ দেখি তারে রাজ্যপদ দিল ॥ মহাবলবন্ত হৈল পক্ষীর প্রধান । গরুড় বংশের কথা অদ্ভুত আখ্যান ॥ কোটি কোটি পক্ষী জন্মে তাহার ঔরসে । সব জ্ঞাতিগণে পালে ধৰ্ম্ম উপদেশে চিন্তিয়া বাতাপি পক্ষী বলে মহাবলী । সব নাগগণ সঙ্গে কবিয়া মিতালি ॥ তাহার আশ্বাসে মুগ্ধ নাগরাজ বংশে । নিরন্তর বলে ছলে নাগগণে হিংসে ॥ শুক সারা দুই ভাই ছিল বুদ্ধিমন্ত । জানিল বাতাপি পক্ষী জ্ঞাতিগণ অন্ত ॥ এতেক চিন্তিয়া দোহে সত্বর চলিল । হিমাদ্রির তটে থ{ তপ আরম্ভিল ॥ করিয়া কঠোর তপে পূজি পঞ্চাননে । মনোনীত বর পেয়ে ভাই দুই জনে ॥ আসিয়া সকল শক্র করিল বিনাশ । কছিলাম তোমারে এ পক্ষী ইতিহাস । সেইরূপ ধৃতরাষ্ট্র করে আচরণ । মুহূৰ্ত্তেকে সবংশেতে হইবে নিধন ।