পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○ bー● খৰ্ব্ব নালবিশালপিঙ্গল জটাজুটেক নাগৈধুতা সপ্তম দিনের যুদ্ধারম্ভ । প্রভাতেতে দুই দল সাজিল সকলে । প্রলয়ের কালে যেন সমুদ্র উথলে ৷ সিংহনাদ শঙ্খনাদ গজের গর্জন । ধনুক টঙ্কার ঘোর রথের নিঃস্বন ॥ রথীকে ধাইল রর্থী গজ ধায় গজে । আসোয়ারে আসোয়ার পদাতিক যুঝে ॥ মুষল মুদগর শেল পরশু তোমর। ভুষণ্ডী পটিশ গদা বর্ষে নিরন্তর ॥ দুই দলে বাধে যুদ্ধ মহা কোলাহল । যেমন প্রলয়কালে সমুদ্র কল্লোল ॥ ভীষ্ম অৰ্জুনেতে যুদ্ধ নাহিক তুলনা । বাণবৃষ্টি নিরন্তর কে করে বর্ণন ॥ মুষল ধারায় যেন বরিষয়ে ঘনে । তাদৃশ আয়ুধ বৃষ্টি করে দুই জনে ॥ ভীমসেন মহাবীর প্রবেশি সমরে । সহস্ৰ সহস্র রথী দিল যমঘরে ॥ গদা হাতে ভীমসেন যেই দিকে ধায় । বড় বড় যোদ্ধাগণ আতঙ্কে পলায় ॥ দেখিয়া রুষিল বীর দ্রোণের নন্দন । ভীমের উপরে করে বাণ বরিষণ ॥ অশ্বথাম দেখি বীর চড়ে নিজ রথে । গদা এড়ি ধনুঃশর তুলি নিল হাতে ॥ সন্ধান করিয়া এড়ে চোখ চোখ বাণ । দ্রোণীর যতেক অস্ত্র করে খান খান । কাটিয়া সকল অস্ত্র বৃকোদর বীর। সন্ধান পূরিয়া বিন্ধে তাহার শরীর ॥ দেখি অশ্বথামা ক্রোধে এড়ে পঞ্চবাণ । ভীমের যতেক অস্ত্র করে খান খান । র্দোহে দোহ অস্ত্র কাটে দোহে মহাবল । সমরে রুষিল বীর হইয় প্রবর ॥ ধনুকে টঙ্কার দিয়া এড়ে পঞ্চ বাণ । দ্রোণীর ধনুক কাটি করে খান খান ॥ আর দুই বাণ এড়ে কি কহিব কথা । রথ অশ্ব কাটে আর সারথির মাথা । [ মহাভারত সারথি পড়িল, রথ হইল আচল । | চোখ চোখ বাণ মারে ভীম মহাবল ॥ বাণাঘাতে অচেতন দ্রোণের কুমার। দেখি সব কুরুগণ করে হাহাকার ॥ আর রথে করি অশ্বথামারে লইল । মহাবল ভীম সৈন্য বিনাশ করিল ॥ কোটি কোটি রর্থী মারি দিল যমালয় । ভীমের সম্মুখে আর কেহ নাহি রয় ॥ দেখি দুৰ্য্যোধন রাজা মহাদুঃখ মতি । রাজগণে আদেশ করিল শীঘ্ৰগতি ॥ শুনিয়া কলিঙ্গ শত সহোদর আগে । ভীমেরে মারিতে যায় ধনু ধরি বেগে ॥ | চতুর্দিকে বেড়ি সবে বরিষয়ে শর। বাণে বাণ নিবারয়ে বীর বৃকোদর ॥ চোখ চোখ বাণে বিন্ধে সবার শরীর । রণে ভঙ্গ দিল সবে হইয়া অস্থির ॥ এড়িলেন কোপে রাজা এক শত বাণ । অৰ্দ্ধপথে ভীম তাহ করে খান খান ॥ পুনঃ সপ্তবাণ বীর মারে বৃকোদরে । খণ্ড খণ্ড করি তাহ পাড়ে ভীম শরে ॥ শর নিবারিয়া করে আস্ত্রের প্রহর । সারথি সহিত অশ্ব করিল সংহার ॥ বিরর্থী হইয়া বীর ভাবে মনে মন । আর রথে চড়ি করে অস্ত্র বরিষণ ॥ বাণ নিবারিয়া বীর করে শরজাল । ঢাকিল রবির তেজ তিমির বিশাল ॥ নিবারিতে না পারিল কলিঙ্গ রাজন । রথের উপরে পড়ে হয়ে অচেতন ॥ রাজার সঙ্কট দেখি সহোদরগণ । করিলেন ভীমোপরি অস্ত্র বরিষণ ॥ তাহা দেখি বৃকোদর গদা হাতে লয় । নিমিষেকে সবাকারে দিল যমালয় ॥ সৈন্যগণ বিনাশয়ে পবন-কুমার। লক্ষ লক্ষ্য সেনাগণে দিল ষমদ্বার ॥ চেতন পাইয় উঠে কলিঙ্গ রাজন । ভাই সব মৃত্যু দেখি মহাশোক মন ॥