পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৭৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88 গঙ্গাস্তোবিলসঙ্গটং দশভুজং বন্দে মহেশং পরম্ । [ মহাভারত। মহতের নিন্দ শুনি হাসে যেইজন। তপ্ত তৈল তার কর্ণে করয়ে সেচন ॥ মন্ত্র বেচি খায় যেবা ভোগে বদ্ধ হৈয়া । তার পাপ কহি রাজা শুন মন দিয়া ॥ সহস্ৰ সহস্ৰ কল্প কোটি শত শত । লিখিতে না পারি বিষ্ঠা ভোগ করে যত ॥ দশ সহস্র পুরুষ সহ সম্বলিত । কুম্ভীপকে ভুঞ্জে পাপ জন্ম শত শত ॥ অনন্তরে পায় গিয়া স্থাবর জনম । কৃমি জন্ম হয় তার না ঘুচে সন্ত্রম ॥ তবে যুগ সহস্ৰ জন্ময়ে স্লেচ্ছজাতি । অনন্তরে পশু হৈয়া ভুঞ্জয়ে দুৰ্গতি ॥ অনন্তরে বিপ্রজন্ম পায় আকিঞ্চন । প্রতিগ্রহ হেতু হয় দরিদ্র লক্ষণ ॥ শতবংশ সহ সেই নরকে পড়য় । তদন্তরে গিয়া পুনঃ রৌরবে ভ্রময় ॥ তদন্তরে সপ্ত জন্ম হয়ত গর্দভ। তদন্তরে সপ্ত জন্ম কুকুর সম্ভব ॥ তদন্তরে শত শত শূকর জনম । বিষ্ঠ মধ্যে কৃমি হয় না ঘুচে সন্ত্রম ॥ তদন্তরে লক্ষ লক্ষ মুম্বা জন্ম হয় । তদন্তরে সপ্ত জন্ম চণ্ডালত্ব পায় ॥ তদন্তরে সপ্ত জন্ম হয় হীনজাতি । এইরূপে ভ্ৰমে সেই শুনহ নৃপতি ॥ এইরূপে পুনঃ পুনঃ জন্ময়ে ভূতলে । অশেষ যাতনা ভোগ করে কালে কালে ॥ বল করি অনাথের ধন যেবা হরে । অন্তকালে পড়ে সেই নরক ভিতরে ॥ পরেতে সহস্ৰ জন্ম হয় পশুজাতি । অশেষ যাতন ভোগ করে নীতি নীতি ॥ দেবতা উদ্দেশে দ্রব্য আনি যেই জন । কিছুমাত্র নিবেদিয়া করয়ে ভক্ষণ ॥ অসিপত্র বনে তার হয়ত গমন । অনন্তর হয় তার রাক্ষস-জনম । বিপ্রে দান দিতে বিল্প করে যেইজন। তার পাপভোগ কছি শুন দিয়া মন ॥ অন্তকালে যমদূত লৈয়া সেই জনে । অধোমুখ করি ফেলে নরক দক্ষিণে ॥ অনন্তরে কালানল মহাভয়ঙ্কর । হাতে পায়ে বান্ধি ফেলে তাহার ভিতর ॥ অনন্তর অগ্নি হৈতে তুলিয়া যতনে । শপ্ত ক্ষার তার অঙ্গে করয়ে সেচনে ॥ তদন্তরে ফেলে কৃমি হ্রদের ভিতর । মাথার উপর মারে লোহার মুদগর ॥ পরনারী হরে যেবা বল ছল করি । তার পাপ কহি শুন ধৰ্ম্ম অধিকারী ॥ লৌহময় দিব্য নারী করিয়া রচন । র্তপ্ত করি তার সঙ্গে করায় রমণ ॥ স্বামী ছাড়ি যেই নারী ভজে অন্য পতি , যতেক তাহার শাস্তি শুন মহামতি ॥ লোঁহের পুরুষ এক করিয়া রচন। তপ্ত করি তার সঙ্গে করায় রমণ ॥ কটাক্ষ মাত্রেতে তারে রতি করাইয়ু । কুন্তীপাকে ফেলে তারে বন্ধন করিয়া ॥ দেবতা প্রমাণে শত সহস্ৰ বৎসর । তাবৎ থাকয়ে কুম্ভপাকের ভিতর ! তদন্তরে মর্ত্যলোকে হয় পশুযোনি । পুনঃ পুনঃ পাপভোগ করয়ে পাপিনী ॥ পিতৃশ্ৰাদ্ধ দিনে যে ব্রাহ্মণে কটু ভাষে ; তাহার পাপের কথা শুনহ বিশেষে ॥ মৃত্যুকালে ধরি তারে যমের কিঙ্কর । বন্ধন করিয়া তোলে পৰ্ব্বত উপর ॥ অধোমুখে আছাড়িয়া ফেলে ভূমিতলে ; হস্ত পদ চুর্ণ হয়ে কান্দে সৰ্ব্বকাল ॥ অনন্তর স্কৃতে অঙ্গ করিয়া মৰ্দ্দন । অগ্নি দিয়া সর্বব অঙ্গ করয়ে দাহন ॥ পরাণে না মারি তারে বহু কষ্ট দিয়া । অসিপত্র বনে তারে ফেলায় বান্ধিয়া ॥ তদন্তরে মর্ত্যপুরে হয় পশুযোনি । শৃগাল কুক্কুর আদি নকুল শকুনি ॥ তদন্তরে জন্ম হয় চণ্ডালের কুলে । পুনঃ পুনঃ পাপভোগ করয়ে বহুলে ॥