পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৮৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-૧8 মাহেশ্বরী বৃষরূঢ়া শঙ্করস্ত সদা প্রিয় ॥ [ भशडॉब्रड । তথায় দেখিয়া যদুকুলের সংহার। ভূমে গড়াগড়ি যায় অঙ্গ সবাকার ॥ হাহা রবে কান্দিলেন ইন্দ্রের নন্দন । - | করেন বিলাপ বহু মহাশোক মন ॥ রামের শরীর দেখি প্রভাসের তীরে । বিলাপ করেন পার্থ লুষ্ঠিত শরীরে ॥ হায় যদুকুলপতি বীর হলধর । i মুঘল লাঙ্গল কেন ভূমির উপর ॥ | সকল ত্যজিয়া প্ৰভু যোগে দিলা মন । ! দুষ্ট দৈত্য বিনাশ করিবে কোন জন ॥ ভারাবতরণ হেতু আসি ক্ষিতিতলে । পৃথিবীর ভার হরি যোগ আচরিলে ॥ বারেক উত্তর দেহ রেবতীরমণ । কান্দিয়া আকুল তব বন্ধু পরিজন ॥ তবে ধনঞ্জয় যায় বৃক্ষের তলায় । প্রাণনাথ কৃষ্ণদেহ দেখিয়া তথায় ॥ কৃষ্ণদেহ কোলে করি কান্দিছেন বীর । পৃথিবী তিতিল তার নয়নের নীর ॥ মহাভারতের কথা অমৃত অর্ণবে। পাঁচালী প্রবন্ধে কহে কাশীরাম দেবে ॥ i _ দৈত্যগণ কর্তৃক যদুপত্নীগণ হরণ ও পাষাণ হইবার বিবরণ । কৃষ্ণের শরীর পার্থ কোলেতে করিয়া । বিলাপ করেন বহু কান্দিয়া কান্দিয় ॥ । কৃষ্ণ প্রাণ কৃষ্ণ নাথ কৃষ্ণ ধন জন । i কৃষ্ণ বিনা পাণ্ডবের আছে কোন জন ॥ এতদিনে পাণ্ডবেরে বঞ্চিলেন বিধি । কোন দোষে হারাইনু কৃষ্ণ গুণনিধি ॥ এই দ্বারাবতী আমি পূর্বে আসিতাম। আমারে পাইলে কত পাইতে বিশ্রাম ॥ সখা সখী বলি মোরে করি সস্বোধন । ভুজ প্রসারিয়া আসি দিতে আলিঙ্গন ॥ পূৰ্ব্বেতে কহিলে তুমি সভার ভিতর । কৃষ্ণাৰ্জ্জুন এক তনু নহে ভিন্ন পর ॥ | পাণ্ডুপুত্ৰগণ মম প্রাণের সমান । -. পাণ্ডবের কাৰ্য্যেতে বিক্রীত মম. প্রাণ ॥ সলিল রক্ষিত যেন মৎস্ত আদি জন । । সেইরূপ পাণ্ডব রক্ষিত নারায়ণ ॥ সারথিত্ব করিয়া সঙ্কটে কৈলে পার । , দুৰ্য্যোধন ভয় হৈতে করিলে উদ্ধার ॥ আমি তব সখা প্রাণসখী যাজ্ঞসেনী । পরম বান্ধবরূপে রাখিলে আপনি ॥ পাখা যেন রক্ষা করে পাখীর জীবন । সলিল রক্ষিত যেন জলচরগণ । ওহে প্রভু যদুনাথ নাহি শুন কেনে । কোন দোষে দোষী হুৈনু তব ও চরণে ॥ তব প্রিয়সখ। আমি সেই ধনঞ্জয় । সখারে বিমুখ কেন হৈলে মহাশয় ॥ একবার চাও প্রভু মেলিয়া নয়ন । সখী বলি বারেক করহ সম্বোধন ॥ বারেক দেখাও চাদমুখের স্বহাস । বারেক বদনচাদে কহ স্বধাভাষ ॥ রত্ব সিংহাসন ত্যজি ভূমিতে শয়ন । চাদমুখে লাগিয়াছে রবির কিরণ ॥ কোন মুখে যাব আমি হস্তিনানগরে । কি বলিব গিয়া আমি রাজা যুধিষ্ঠিরে ॥ ভাইগণে কি বলিব দ্রৌপদীর তরে । কেমনে ধরিবে প্রাণ ধৰ্ম্ম নৃপবরে ॥ হায় বিধি ! এতদিনে করিলে নিরাশ । কোন দোষে হারাইনু মিত্র শ্ৰীনিবাস ॥ বিস্মরিলা সব কথা স্বীকার করিয়া । সঙ্গে নিলে নিজ জনে পণ্ডিবে ত্যজিয়া ॥ ভাগ্যবন্ত যদুকুল পুণ্য নাহি সীমা । ইহলোকে পরলোচক পাইলেক তোমা ৷ আম সম হতভাগ্য পাপিষ্ঠ দুৰ্ম্মতি । কোন গুণে পাব সেই কৃষ্ণপদে মতি ॥ হা কৃষ্ণ কমলাকান্ত করুণা নিদান । ! তোমা বিনা দহে মম হৃদয় পরাণ ॥ কি বুদ্ধি করিব আমি কোথায় বা যাব । আর কোথা সে চাদবদন দেখা পাব ৷