পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জলে >8も রায়েই এসে, নীচের ঘরে দর্ঘেণ্টা একলা বসে থাকতে প্রস্তুত ছিল। তাতে আমি আপত্তি করায়, আজ সকালে সাঁড়ে সাতটা হতে না হতেই এখানে ছুটে আসবে বলেছিল। সাড়ে ম’টা বাজে—এখনও পৰ্যন্ত তার দেখা নেই –তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য আর কাকে বলে, বাবা ?” হরিনাথবাবু বলিলেন, “তা না হতেও পারে। এই সংস্লবেই—হঠাৎ তার কোনও কাজ পড়ে গিয়ে থাকতে পারে—তাই নিয়ে সে ব্যস্ত আছে।” লীলা বলিল, “আচ্ছা বাবা, যেদিন আমার ডাক্তারি পাশ হওয়ার খবর জানা গেল,— আমি যদি ছটে এসে সে খবর তোমায় না দিতাম, তুমি যদি পরদিন খবরের কাগজে তা পড়তে, তা হলে তোমার কেমন লাগতো ?” o “ওঃ, সে নিজে এসে তোকে এ খবরটা দেয়নি বলে তুই অভিমান করছিস ?—তা, সে নিজেই এখনও জানতে পেরেছে কি না তার ঠিক কি ? সে হয়ত স্টেটসম্যান দেখেনি।” “গড মণিং—গড় মণিং—এই যে আপনারা দুজনেই রয়েছেন।” কে ? ঘোষাল ? এস—এস—খবর কি ?” ঘোষাল বলিল, “বসবার সময় নেই মিটার সানাল। কাল সন্ধ্যার পর, সরোজ হঠাৎ ভারি পীড়িত হয়ে পড়েছে। আপনাবা দুজনে একবার আসন আমার সঙ্গে।” হরিবাব তীরের মত দাঁড়াইযা উঠিয়া বলিলেন—“অ্যাঁ ? সরোজেব অসুখ হযেছে ? কি অসুখ ? কি অসুখ ? কেমন আছে সে ?” ঘোষাল বলিল, বসন বসন । মিস সান্যাল—আপনি দয়া করে, পাঁচ মিনিটেব মধ্যে জাতো বদলে আসন। এই যে, স্টেটসম্যান বযেছে—আপনারাও খবরটা তা হলে পড়েছেন নিশ্চয়। কাল রাত আটটার সময সরোজ বেড়িয়ে বাসায় ফিরে এসে, বোম্বাই থেকে এই বিষয়ের টেলিগ্রাম পায়। পেয়েই তার ফিট হয়—আমরা তখনি ডাক্তার আনি, মাথায বরফ দিই—সারারাত অজ্ঞান ছিল—এখন সকালে একটা জ্ঞান হয়েছে। ’ হরিবাব বসিয়া বলিলেন, “কি সব্বনাশ !—তারপর—তারপর ডাক্তার কি বললে ? জীবনেব কোনও—”

  • না, জীবনের কোনও আশঙ্কা নেই এ কথা ডাক্তার আজ সকালে বলে গেলেন। ডাক্তার চলে যাওয়ার পর, সরোজ আমায় বললে আপনাদিকে তার অসখের খবব দিতে। তাই আমি আপনাদের নিতে এসেছি। মিস সান্যাল—দযা করে-পাঁচ মিনিটের মধ্যে।”

লীলা ছটিয়া উপরে চলিয়া গেল। পিতা পত্রী উভয়ে যখন গিয়া সরোজেব বাসায পেপছিলেন, তখন সরোজ আবাব ঘমাইয়া পড়িয়াছে। ডাক্তারকে ইসারায় ডাকিয়া হবিনাথ জিজ্ঞাসা করিলেন, কেমন বঝেছেন ?” ডাক্তার হাসিয়া বলিলেন, “আর কোনও ভয় নেই। ২৯ দিন সম্পণে বিশ্রাম, আব কিছই দরকার হবে না। কাল না হোক—পরশ নিশ্চয়ই উনি আবার তাজা হয়ে উঠবেন ।” লীলা সারাদিন সরোজের পাশে বসিয়া কাটাইল। সরোজ মাঝে মাঝে জাগে, বেশ কথাবাত্ত কহে, আবার ঘমোইরা পডে। জাগিলে, লীলা তাহাকে একটা একটা গবম দুধ খাওয়ার । এদিন এইভাবে কাটিল। পরদিন, বেশ উন্নতি দেখা গেল। আজ, নিদ্রাকাল অলপ —জাগরণ-সময় অধিক। ७क मभन्न, व्यिौला झाक्ला सिक्क आङ्ग कङ् नादै हर्नाथब्रा मान्नाल्ने छिस्नाना कर्णाङ्गठन, “बाबाहक সে কথা বলেছিলে লীলা ?” “বলেছিলাম।”