পাতা:চতুরঙ্গ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শচীশ е а ভরা কলির তুর্গক্ষণ দেখিয়া হরিমোহন হতাশ হইয়া বাড়ি ফিরিলেন। সেদিন তিনি খুদে অক্ষরে তুর্গানাম লিখিয়া দিস্তাখানেক বালির কাগজ ভরিয়া ফেলিলেন । হরিমোহন চলিয়া গেলেন। পাড়ায় প্লেগ দেখা দিল। পাছে হাসপাতালে ধরিয়া লইয়া যায় এজন্ত লোকে ডাক্তার ডাকিতে চাহিল না । জগমোহন স্বয়ং প্লেগ-হাসপাতাল দেখিয়া আসিয়া ཤྭ་བན་ པ་ལ། བཙན་“ལ། འགའ། གའ། ཤ་སྟག །ལྷག་མ་ ཐ༥༥ | তিনি চেষ্টা করিয়া নিজের বাড়িতে প্রাইভেট হাসপাতাল । বসাইলেন। শচীশের সঙ্গে আমরা দুই-একজন ছিলাম শুশ্রীষাব্ৰতী ; আমাদের দলে একজন ডাক্তারও ছিলেন । আমাদের হাসপাতালে প্রথম রোগী জুটিল একজন মুসলমান, সে মরিল। দ্বিতীয় রোগী স্বয়ং জগমোহন, তিনিও বঁাচিলেন না। শচীশকে বলিলেন, “এতদিন যে ধর্ম মানিয়াছি আজ তার শেষ বকশিশ চুকাইয়া লইলাম— কোনো খেদ রহিল না।” শচীশ জীবনে তার জ্যাঠামশায়কে প্রণাম করে নাই, মৃত্যুর পর আজ প্রথম ও শেষ বারের মতো তার পায়ের ধুলা লইল । ইহার পর শচীশের সঙ্গে যখন হরিমোহনের দেখা হইল তিনি বলিলেন, “নাস্তিকের মরণ এমনি করিয়াই হয় ।” শচীশ সগর্বে বলিল, “হঁ।”