পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৯২ চয়নিক মোরে হেরি' প্রিয়া ধীরে ধীরে দীপখানি দ্বারে নামাইয়া আইল সম্মুখে,—মোর হস্তে হস্ত রাখি’ নীরবে শুধাল শুধু সকরুণ আঁখি, “হে বন্ধু, আছ তো ভালো ?”—মুখে তা’র চাহি কথা বলিবারে গেঠু,—কথা আর নাহি । সে-ভাষা ভুলিয়া গেছি,—নাম দোহাকার দুজনে ভাবিস্তু কত,—মনে নাহি আর । দুজনে ভাবিহু কত চাহি’, দোহা-পানে, অঝোরে ঝরিল অশ্র নিম্পন্দ নয়ানে । দুজনে ভাবিকু কত দ্বারতরুতলে । নাহি জানি কখন কী ছলে স্বকোমল হাতখানি লুকাইল আসি আমার দক্ষিণকরে,---কুলায়-প্রত্যাশী সন্ধ্যার পাখির মতো ; মুখখানি তার নতবুস্ত পদ্মসম এ বক্ষে আমার নমিয়া পড়িল ধীরে ;–ব্যাকুল উদাস নিঃশব্দে মিলিল আসি’ নিশ্বাসে নিশ্বাস । রজনীর অন্ধকার উজ্জয়িনী করি দিল লুপ্ত একাকার । দীপ দ্বারপাশে কখন নিভিয়া গেল দুরন্ত বাতাসে । শিপ্রানদী-তীরে আরতি থামিয়া গেল শিবের মন্দিরে । ( ১৩০৪ ) —কল্পন।