পাতা:চেনা দায় - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

চেনা দায়।


সহিত গিল্‌টি করা যে, উহা দেখিয়া সহজে কেহই অনুমান করিতে পারেন না যে, উহা সুবর্ণের অলঙ্কার নহে, পিত্তলের। সুবর্ণ-ব্যবসায়ীগণও সময় সময় উহা সহজে চিনিয়া উঠিতে পারেন। কষ্টিপাথরে কষিয়া দেখিয়াও সময় সময় তাহারাও মহাভ্রমে পতিত হন। সেই সকল অলঙ্কারের মধ্যে কোন কোনটী এরূপ কৌশলের সহিত গিল্‌টি করা যে, সেই সকল গহনা একবার পুড়াইয়া লইলেও পিত্তল বলিয়া সহজে অনুমান করা যায় না।

 কামিনী অল্পে অল্পে এইরূপ কতকগুলি গিল্‌টির গহনা ক্রয় করিয়া আপনার নিকট রাখিয়া দিল। কোন মহিলা কোন সুবর্ণঅলঙ্কার বন্ধক দিবার নিমিত্ত তাহাকে প্রদান করিলে, তাহার পরিবর্ত্তে সেইরূপের একখানি গিল্‌টির গহনা অপরের নিকট সুবর্ণ অলঙ্কার পরিচয়ে বন্ধক দিয়া প্রয়োজনমত টাকার সংস্থান করিত; কিন্তু সুবর্ণ অলঙ্কারখানি বিক্রয় করিয়া আপন কার্য্যে ব্যয় করিয়া ফেলিত। যাঁহার অলঙ্কার, তিনি সুদসমেত টাকা প্রদান করিলে, তাহার পরিবর্ত্তে কামিনী সেই পিত্তলের গহনাখানি আনিয়া তাহাকে অর্পণ করিত। সেই অলঙ্কারের অধিকারিণী যদি টাকার সংগ্রহ করিয়া দিতে না পারিতেন, তাহা হইলে সেই পিত্তলের গহনা যাহার নিকট বন্ধক রাখিত, তাহারই নিকট থাকিয়া যাইত। কামিনীর উপর সকলেরই সবিশেষ বিশ্বাস ছিল বলিয়া, তাঁহারা যে তাহা কর্ত্তৃক প্রতারিত হইতেছেন, একথা তাঁহারা স্বপ্নেও মনে করিতেন না।

 এইরূপে কামিনী যে কত ভদ্রমহিলার সর্ব্বনাশ করিয়াছিল, তাহার ইয়ত্তা নাই। এইরূপে এই অসদুপায় অবলম্বন করিয়া কিছুদিবস পর্য্যন্ত তাহার ব্যবসা চলিল সত্য; কিন্তু শীঘ্রই তাহা