পাতা:ছবি - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
ছবি।
৪১

 পরের মর্ম্ম অবগত হইয়া কুমার বিদ্যুৎপ্রকাশ দীর্ঘনিশ্বাস ত্যাগ করিয়া বলিলেন, “যাহাই হউক, আপনারই জিত মহাশয়! আপনিই আজ আমায় বিপদ হইতে উদ্ধার করিলেন।”

 আ। আমার একটা অনুরোধ আছে।

 শশব্যস্তে বিদ্যুৎপ্রকাশ জিজ্ঞাসা করিলেন, “কি বলুন?”

 আমি হাসিয়া বলিলাম, “ঐ ছবিখানি।”

 বি। আপনার চাই?

 আ|। আজ্ঞা হাঁ।

 বি। কেন?

 আ। যে রমণী বুদ্ধিতে আমায় পরাজিত করিয়াছে, তাহার চিত্র আমার নিকট রাখিতে চাই।

 “বেশ কথা, এই নিন।” এই বলিয়া বিদ্যুৎপ্রকাশ উহা আমার হস্তে প্রদান করিলেন। পরে গাড়ী করিয়া আমায় বাসায় পৌঁছাইয়া দিয়া তিনি চলিয়া গেলেন।

 বাসায় আসিয়া বিশ্রামের চেষ্টা করিলাম, কিন্ত আমার মন তখন এত অস্থির ছিল যে, অনেক চেষ্টা করিয়াও ঘুম আসিল না। পরদিন প্রাতে ডাক্তারের বাড়ী গেলাম। ডাক্তার তখন গৃহাগত রোগীর ব্যবস্থা দিতে ছিলেন; আমাকে দেখিয়া হাসিয়া বসিতে বলিলেন। আমি তাঁহার নিকট একখানি চেয়ারে বসিলাম।

 রোগী দেখা শেষ হইলে ডাক্তার জিজ্ঞাসা করিলেন, “ছবিখানি আদায় হইয়াছে?”

 আমি বলিলাম, “তা না হইলে আর নিশ্চিন্তভাবে তোমার নিকট বসিয়া আছি।”

 এই বলিয়া ডাক্তারকে সমস্ত কথা বলিলাম। সকল কথা