পাতা:জয়তু নেতাজী.djvu/২৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশিষ্ট දැඵH পরিত্রাত অবতার-কল্প ধৰ্ম্মগুরুরূপেই পুজা করিতেছে । দীর্ঘ দশ ৰৎসর তিনি যে কংগ্রেস-তরণীর পরিচালনা করিয়াছিলেন—ইহাই সেই নেতৃত্বের সৰ্ব্বোত্তম পুরস্কার । সমুদ্রতরণে তরণীর কর্ণধার হইয়া তিনি কিছুই করিতে পারিলেন না, শেষে সেই তরণী বানচাল হইয়া ডুবিয়া গেল । কিন্তু কর্ণধার ডুবিলেন না ; পরস্তু সেই জলতল হইতে একটি মহাৰ্ঘ যুক্ত কুড়াইয়া পাইলেন—ত্রিশ কোটি ভারতবাসীর সেই গুরুপদ । তখন সেই মুক্তাটি হইল তাচার বাজ-সম্পদ, তাহা দিয়া তিনি আর এক রাজ্যের বাজপদ অধিকার করিবার জষ্ঠ ব্যগ্র হইয়া উঠিলেন ; ভারতের স্বাধীনতা, ব্রিটিশের সহিত বন্ধুত্বের দাৰা-খেলা বা ভারতবাসীর আশু দুঃখ দুৰ্দ্দশামোচন—এসকল অপেক্ষ একটি মহত্তর সংকল্প তাহার চিত্ত অধিকার করিল, তিনি এক নূতন ধর্শ্ব প্রচার করিয়া জগৎগুরু হইবেন । সেইরূপ ধর্থ গুরু হইবাব পক্ষে ঐ ভারতবাসী জনগণই তাহার সহায় হইবে ; অহিংসা যে কতবড় ধর্গ এবং তাই মামুষের পক্ষে কিরূপ সহজসাধ্য—আত্মত্যাগের সেই মহাশক্তি ঐ ধৰ্ম্মে কিরূপ বিকাশ লাভ করে—তাছাই প্রমাণ করিবার জষ্ঠ তিনি তাহার সেই ভারতব্যাপী শিষ্যসমাজকে—সেই বিশাল গড্ডলিকাকে—দলে দলে আত্মপ্রাণ উৎসর্গ করিতে উদ্বুদ্ধ করিলেন । সুবিধাও হইল, ভাবতের আর এক বৃহৎ সম্প্রদায ঐ অহিংসার বিপরীত মস্ত্রে উদ্ধ,দ্ধ হইয়া দিকে দিকে বক্তস্রোত বহাইতে লাগিল—কাজেই অহিংসার নামে প্রাণদান করা সকলের পক্ষে দুঃসাধ্য হইল না। যাহারা বলির পশুর মত দলে দলে হত হইতে লাগিল, তাহার লিতাগুই স্থৰ্ব্বল ও অসহায় ; যাহার শক্তিমান ও নিতীক তাহারা ছিংসার পাপে লিপ্ত হুইবার ভয়ে সেই শত শত অসহায়, প্রাণভয়ে ভীত নর-নারীকে বাচাইতে চাছিল না, বরং মরিতে ভয় পাওয়ার জম্ভ তাহাদিগকে তীরু কাপুরুষ বলিয়া গালি