পাতা:পণ্ডিত শিবনাথ শাস্ত্রীর জীবনচরিত.pdf/২৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ROR শিবনাথ-জীবনী । এই স্থানে শিবনাথ নবীনচন্দ্রের কন্যা হেমন্তকুমারীকে যে পত্ৰ লিখিয়াছিলেন তাহা না উদ্ধৃত করিয়া পারিলাম না। কলিকাতা, ১৩ কর্ণওয়ালিস্ট্রীট to 0 (4 Rós, Sww0 “আমার স্নেহের হেমন্ত, আমার মা লক্ষ্মিা ! আমার পত্ৰ পাইলে তোমার বড় সুখ হয়। আমি এমনি পাষণ্ড যে সে সুখটা তোমাকে সদা সৰ্ব্বদা দিতে পারি না। তোমার পত্র পেলে যে আমার সুখ হয় তাকি বলতে হবে ? গ্ৰীষ্মের মধ্যে মানুষ যদি এক পসিলা জল পায় তার যেমন আনন্দ হয়, তোমার পত্র পেলে আমার তেমনি আনন্দ হয়। আমার প্রাণটা কত ঠাণ্ড হয়! আমার প্রাণটা বড় কঠিন, সেই প্ৰাণটাকে এমন করে বড় কেউ বাধতে পারে না। তুমি বড় দুষ্ট মেয়ে, তাই আমাকে বেঁধেছ, কে বলে এ মেয়েটা নবীনবাবুর, এটা আমার!” হেমন্তকুমারীর প্রথম কন্যাটীর মৃত্যু সংবাদ শুনে তাকে নিম্নলিখিত পত্ৰখানি লিখিয়াছিলেন। এই পত্ৰখানি পড়িলে সকল শোক সন্তপ্ত জনক জননীর প্রাণ শান্ত হয়। তাই পত্ৰখানি এখানে উদ্ধৃত করিলাম। 8?ा छि6मश्झ, »v”७ T কলিকাতা “মা হেমন্ত, তােমার পত্র আমার হস্তগত হইয়াছে। তুমি পত্রে चांगांगिक 6 श्द्र नवांग शिह उांशष्ट चांगा সকলেই অত্যন্ত দুঃখিত হইয়াছি। তোমার পত্ৰ পাইয়া