পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৪র্থ সংখ্যা ] ডু জাহাজ আর নিৰ্ম্মিত হয় না। অথচ পুরাকালে छाब्रउँौ८शब्रा अञ्चङय यथान नभूजभागौं बाँछि झिण । এখন তাহারা জাহাজ চালাইতে গেলে ইংরেজ জাহাজ কোম্পানীরা ভাড়ার প্রতিযোগিতা দ্বারা ভারতীয়দের উদ্যম ব্যর্থ ও নষ্ট করে । জাহাজ চালান ভারতীয়দের হাত হইতে চলিয়া ॐाखप्राष्ट्र বেকারের সংখ্যা বাড়িয়াছে, বৎসর বৎসর অনেক কোটি টাকা বিদেশীদের হস্তগত হইতেছে, এবং ভারতীয়স্টুদের বাণিজ্যের প্রবৃদ্ধি ও বিস্তৃতি হইতেছে না। এইঞ্জস্ত সুউপকূলের নিকটস্থ সমূত্রে মাল ও যাত্ৰী বহনের অধিকার কেবল ভারতীয়দের জাহাজের থাকিবে, এই মর্শ্বের একটি বিল ক্রযুক্ত সারাভাই হাজী ব্যবস্থাপক সভায় পেশ ক্টরিয়াছেন। উহা প্রথমে শ্ৰীযুক্ত ক্ষিতিশচন্দ্র নিয়োগী ঠুমুলাবিদা করেন। এই বিলটি পাস হইয়া যাহাতে আইনে সুপরিণত না হয়, তাহার জন্ত ইংরেজ বণিকরা সকল সুপ্রকার চেষ্টা করিতেছে। ইংরেজ ও ভারতীয়দের টুমধ্যে আপোষে কোন বন্দোবস্ত করিবার অছিলায় ঠুম্পতি একটা কনফারেন্সও হইয়াছিল। কিন্তু #छद्रक জাহাজ কোম্পানীগুলার অসঙ্গত প্রস্তাব ও র্যপহারে তাহা ব্যর্থ হইয়াছে । তাহারা চায়, যে, *ঃতীয় জাহাজ-কোম্পানীসমূহ তাহদের জাহাজগুল ফ্লমে ক্রমে কিনিয়া লউক এবং তাহাদিগকে ক্ষতিপূরণ মধ্রুপ অনেক টাকা দিউক । বেশী দাম দিয়া তাহাজের প্লুরাতন জাহাজ না লইয়া অপেক্ষাকৃত কম দামে ভাল গ্রন জাহাজ নানা দেশে কিনিতে পাওয়া যাইবে । ক্ষতিপূরণই বা কিসের ? তোমরা ছলে-বলে-কৌশলে *আমাদের একটা ব্যবসা নষ্ট করিয়াছ । অন্যান্ত দেশের মঙ্গীর অনুযায়ী স্থায্য উপায়ে আমরা সেই ব্যবসা আবার স্তগত করিতে চাই। তাহার জন্ত আবার ক্ষতিপূরণ : দিব ? ইংরেজ বণিকদের প্রতিনিধির বলিতেছে, *তিপূরণট। ভারতীয় জাহাজ-কোম্পানীসমূহকে দিতে ই ইবে না, ভারতবর্ধের সরকারী টাকা হইতে দেওয়া উক । কিন্তু সে টাকা ৪ ত আমরাই ট্যাক্সের আকারে লম্বাছি। বৃহস্পত্তি মেষ রাশিতে আসিলে এবং চন্ধুস্থধ্য মকর শিতে আসিলে প্রয়াগে কুম্ভমেলা বসে। বার বৎসর জর ইহা হইয় থাকে। ইহাতে প্রকৃত সাধু-সন্ন্যাসী তকগুলি আসিয়া থাকেন, ভেকধারী সন্ন্যাসীর সংখ্যা হুি অপেক্ষ অনেক বেশী হয়। তীর্থযাত্রী গৃহস্থ 1াকদের সংখ্যা সকলের চেয়ে বেশী হয় ৷ এবারকার বিবিধ প্রসঙ্গ- বিমান চালনে বাঙালী Ꮻ%Ᏹ☾ কুম্ভের প্রধান দিন চারিটি—(১} ৩ শে পৌষ মকর সংক্রাস্তি, ২) ১৫ই মাঘ অমাবস্যা, ৩। ২০শে মাঘ বসস্তুপঞ্চমী বা ঐপঞ্চমী, এবং (৪) ১লা ফাত্তন মাঘীপূর্ণিমা । তাছার মধ্যে সকলের চেয়ে বেশী লোক স্বান করিবে অমাবস্তার দিন। আজুমিত হইয়াছে, যে, সে দিন পচিশ লক্ষ লোক স্নান করিবে । বার বৎসর আগে যে কুম্ভমেলা হুইয়াছিল তাহাতে স্নানকারীর সংখ্যা সরকারী অনুমান অনুসারে মকরসংক্রাম্ভিতে হইয়াছিল ১• লক্ষ, অমাবস্তায় ২৫ লক্ষ এবং বসন্থপঞ্চমীতে ৪ লক্ষ । পুলিশের দ্বারা শাস্তি, সম্পত্তি ও প্রাণরক্ষার এবং স্বাস্থ্য কৰ্ম্মচারীদের দ্বার স্বাস্থ্যরক্ষার সমুচিত বন্দোবস্ত হইয়াছে। রেল কোম্পানীরাও অঙ্গ বারের চেয়ে এবার বেশী স্ববিধা করিয়া দিয়াছে। ভাড়া কমান উচিত ছিল ; কিন্তু তাঁহা তাহার কমায় নাই । বিস্তৃত মেল-ভূমি এধার তাড়িত আলোক দ্বারা আলোকিত হইবে।” ইহা এবারকার নূতনত্ব। স্বাধীনতা-লক্ষ্য ঘোষণা ও দমননীতি কংগ্রেস স্বাধীনতাকে রাষ্ট্ৰীয় লক্ষ্য ঘোষণা করায় বিলাতে ও ভারতে দমননীতি প্রয়োগের কথা উঠিয়াছে। তাহার প্রয়োগ অসম্ভব নহে । কিন্তু আদমী লোকের সংখ্য ভারতবর্সে বাণ্ডিয়া চলিতেছে । তাছাদের মধ্যে এরূপ লোকও আছেন, যাহার মৃত্যুর নিমেষ পর্যন্ত দমিবেন ন। মামুষের চেয়ে মাতুষের আশা, আকাঙ্ক ও আদর্শ আরও অদম্য । দমননীতির দ্বার। ত:হ। বিনঃ कब्र याघ्र न । भभननौiङ व८नक नमश्न अt७८न चेि ঢালার কাজ করে। গবন্মেন্টের অন্য কোন অস্ত্র অাছে কিনা, তাহা রাজপুরুষেরা ভাবিয়া দেখিতে পারেন। "স্বাধীনতার সংগ্রাম একবার আরম্ভ হষ্টলে, রক্তাক্ত পিতা হইতে পুত্রের হস্তে নীত হইয়া, অনেকবার ব্যর্থ হষ্টলেণ্ড, সকল স্থলেই জয়যুক্ত হয়", ইহা একটি ইংরেজী কবিতায় কথিত হইয়াছে। তাহার পংক্তিগুলি লাহোর কংগ্রেসমগুপে উজ্জল অক্ষরে লিখিত ছিল। বিমান চালনে বাঙালী কলিকাতায় বিমান চালনার প্রতিযোগিতায় যুক্ত বিনয়কুমার দাস পনর জন ইউরোপীয়কে পরাস্ত করিয়া প্রতিযোগিতার "কাপ" পুরস্কার পাইয়াছেন।