পাতা:প্রবাসী (ঊনত্রিংশ ভাগ, দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ፃPe cछांविनिब्रट्नब्र गक्ष्ठि गांधण छां८छ्न ॐांक्षांब्र शनि बांनिरङ পারেন, যে, এ-বিষয়ে গ্রেটব্রিটেনও তাহাদিগকে সাহাধ্য করিতে প্রস্তুত, তাহা হইলে তাহারা এই একমতজনিত আস্থা হইতে শেষ লক্ষ্য সম্বন্ধে নিঃসন্দেহ হইয়া সেই লক্ষো কি করিয়া পৌছান যায় সেই সমস্তার সমাধানে মনোনিবেশ করিতে পরিবেন ।” বড়লাটের বক্তৃত হইতে স্পষ্টই বোঝা যাইতেছে, ডোমিনিয়নত্ব আমাদের সম্মুখের দীর্থপথের শেষ মাত্র । * অনেক হ’ল দেরী, আজো তৰু দীর্থপথের অন্ত নাহি হেরি !” কিন্তু বিলম্বিত হইতে হইতে আমাদেরও ধৈর্ধ্যের বাধন টুটিয়া আসিতেছে। লেবর গভর্ণমেণ্ট কোন বিষয়ে আজ পর্য্যন্ত আমাদিগকে কথা দেন নাই, দিতে পরিবেন কিনা সন্দেহ, হয়ত দিবেনও না । ভাষার পারিপাট্যের কথা ছাড়িয়া দিলে বড়লাটের বক্তৃত ও আল রাসেলের বক্তৃতার মধ্যে বক্তব্য বিষয়ে মূলগত কোনও পার্থক্য নাই। তবে কি আল রাসেলের কুকুরটি ভারতবর্ষ স্পষ্ট ভাষা কিভাবে গ্রহণ করে তাহ পরীক্ষা করিয়া দেখিবার স্বযোগ দিবার জন্যই সময় বুঝিয়া অস্থস্থ হইয়া পড়িয়া ছিল ? কিন্তু আমাদের ব্যক্তিগত অভিমত স্বাছাই হউক, লেবর গভর্ণমেণ্ট আমাদের জন্ত যাহা করিয়াছেন, তাহ স্বীকার করিতে আমরা প্রস্তুত। তাহারা প্রথমতঃ সাইমন কমিশনকে মুখ্য হইতে গৌণ বিষয়ে পরিণত করিয়াছেন, এবং - বিলাতী পলিটিকৃসের ধারা হইতে যতদূর মনে হয়,—এখনও ভারতবর্ষ সম্বন্ধে কি করিবেন সে বিষয়ে স্থির কোনও সিদ্ধান্তে উপনীত হইতে পারেন নাই। লেবর গভর্ণমেণ্ট উচ্চ আশা লইয়া রাজনীতিক্ষেত্রে প্রবেশ করিয়াছেন। যুদ্ধের পর ইংলও যে-সকল অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, ও পররাষ্ট্ৰীক সমস্তায় ব্যতিব্যস্ত হইয়া উঠিয়াছে, তাহদের একটা সমাধান করিয়া ইংলণ্ডের জন্ত চিরকালের মত একটা কাজ করিয়া যাইবেন এ উচ্চাকাঙ্ক্ষা তাহারা রাখেন । ভারতসমস্যা ব্রিটিশসাম্রাজ্যের একটা গুরুতর সমস্তা। এই সমস্তার মীমাংসা नश्च नञ्च । cगचछ दबङ ॐांशंब्रां ऊँटडजनाब्र ऋ१ €३ সী r-कांग्लन, IVLෂ [ २sच छोण, २ख्न थछ তাড়াতাড়ি একটা কিছু না করিয়া একদিকে ভারতবর্ষের লোককে বুঝাইয়া-মুকাইয়া ঠাণ্ডা করিয়া, অপর দিকে ইংলণ্ডের লোককে প্রবোধ দিয়া, আন্দোলন থামিবার অবসর দিয়া ১৯৩১ সনে নিজেদের সামর্থ্য ও ভারতবর্ষের শক্তির ওজন করিয়া যাহা করিবার করিবেন। এই अछ्भांनई शनि जउJ झञ्च डट्ब cजबब्र नंख्4¢मझे ८*८ष যাহা স্থির করিবেন তাহা আমাদের দান গ্রহণ করিবার আগ্রহের উপর নির্ভর করিবে না—আমাদের ন্যাধ্য ●यंांश्रृं) बांभांtग्नब श्रृंख्न्ब्रि ऐंठviब्र निर्डब्र कब्रि¢द । দুইটি পথ লর্ড আরউইন তাহার লক্ষ্ণৌ-এর বক্তৃভায় (৭ই ফেব্রুয়ারী, ১৯৩০) আমাদিগকে ছুইটি পথ দেখাইয় তাহার মধ্যে একটি বাছিয়া লইতে বলিয়াছেন। তাহার বক্তৃতার এই অংশটি তাহার ভাষায়ই উদ্ধৃত করিব—

  • On the one side is free membership in the British Commonwealth, where the diverse gifts of each constitucnt part may he linked for the common betterment of the whole society and of the human race, and on the other lies independence, for which India is invited to destroy that influence for unity which springs from a common loyalty to the person of the Crown in order that, when the flames of anarchy have exhausted their destructive force, she may perhaps at last achieve a state of precarious and powerless isolation.”

ইংরেজ লেখক ও রাজনীতিবিদগণ যে ডোমিনিয়নত্ব ও “ব্রিটিশ কমনওয়েলথ অফ নেশনস” সম্বন্ধে খুব উচ্চ थांबनी cशाय4 क८ब्रन ७ष९ डांशंद्र बछ cगौब्रव चश्छद क८ब्रन, cनकथां चांमब्रl खांनि । ऊँiहां८ब्र ७हे थांब्र* যে একেবারে অযৌক্তিক তাহ আমরা বলিতে श्रांब्रि ना । क्रूि उबूe चांभब्रा बज्रजांtछैब्र अहिउ uहे পরস্পরবিরোধী চিত্ৰ ছুইটির সভ্যতা মানিয়া লইতে পারিলাম না। লর্ড আরউইন সঙ্গীহীন স্বাধীনতার বিপদ ও ডোমিনিয়নত্ব ও পূর্ণ-স্বরাজ এই দুইটির মধ্যে কোনটি