পাতা:প্রবাসী (সপ্তদশ ভাগ, প্রথম খণ্ড).pdf/২১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রবাসী---শ্ৰাবণ, ১৩২৪ [ ১৭ ভাগ, ১ম খণ্ড (গ) এবং বা হইতে তত ভয় নাই । বন্যা হইতে রক্ষা পাইবার একম দেশে মধ্যে শঙ্কাভাবে আর একটি কারণ ঝড় ও উপায় বাধ দেওয়া বাধের দ্বারা বন্যারোধ প্ৰথা Cent বা বাদালাদেশে প্ৰায় আশ্বিন কাধিক মাস হইতে Provinces বা মধ্যপ্রদেশে সৰ্ব্বাপেক্ষা কাৰ্য্যকী হইয়াছে সৰ্ব্বত্ৰ হৈমস্তিক খাদ্য পাকিতে আরম্ভ হয় এবং অsহায় বাদ দেওয়ার ক্ষেত্রের উপনি নুতন সতেজ মাষ্ট খুইছ মাসে প্ৰায় সমস্ত ধান্ত কাটা ইয়া যায় নাইতে পাবে না, তদ্যাতীত বঁাদের দ্বারা আবদ্ধ জল অবশেষে কোন স্থানে প্ৰায় এই সময়ে ১ দেখা যায় এই জলাবনের বিশেষ সহায়তা করে । ইতিপূৰ্ব্বে আমরা যে সময়ের বড়, প্ৰবল তুষ্টি, ধায়ের সৰ্ব্বনাশ ঘটায়। পৰ্ক চলনিয়শন প্ৰণালীর কথা বলিয়ছি তাই হারাও কৰা স্বৰ্ণীত ধলি তখন গাছের উপরে অতি আত্মা ভাবে লাগি বস্তার স্কুল সাহিব বরিয়া দেওয়া বাইতে পারে ; কিন্তু স্বাগপ এর বা দ্বীপের থাকে নি সামান্য একটু আধা পাইগেই বাঙ্গলার, বিশেসত গুঢ়ত হয় ধান্ত মাতে পঢ়িলে সংগ্ৰহ কৰা অসম্ভব অধিকক্ষ ভূমি, সন্মাণ ৪ : এত কম উচ্চ যে তার উপর নিৰ্তি স্থায়ী প্ৰবল ঝড় বহিলেই অগাধ বড় বড় সৃষ্টির ফেঁটী বা পয়ঃপ্ৰণালী অধিক পরিমাণে জল নিঃসৰণ করিতে পাৱে শিলাঘাত লাগিলেই সমস্ত ধান্ত গাটতে পড়িয়া যায় বা কেৱ সৰ্ব্বনাশসাধন করে প্ৰাকৃতির এই বিযে প্ৰতি হংস লেশে । বার কোথা হাত হইতে শস্য রক্ষা করিবার কোন উপায় সংবাদ হাস্যৰ বৃদিবিভাগ ও পুত্রবিভাগের তীব্ৰভাৱ অনুপ ক্ষতি হুইবেই ; এখানে মানুষের চেষ্টা কৰ্ম্মচারীগণে মতানুসারে গবৰ্ণমেণ্ট সেই সকল স্থানে বা ধ, উদ্যম সকলই ব্যৰ্থ, বিজ্ঞান রাস্ত রোধ করিবার উপায় নিৰ্দ্ধা করিকেন এবং গবৰ্ণমেণ্ট স্ব দেবতার দয়ার উপর নিৰ্ভর তবে ন বিদগণ বলেন। সেই নিয়াতি উপায় কাৰ্য্যা পরিণত করিবেন যে, দেশে বনভূমির সংরক্ষণ করিতে পারিখে করে তীয়ত, | পূৰ্ব্বকণিত উপায় অনুসারে গবৰ্ণমেণ্ট স্বামী কতকটা প্ৰশমিত হয় দেখা গিছে নিদার বা পগণের নিকট হইতে ঠাহীদের বলাটা বৰ্ষাকালেই সাধারণতঃ ইয়া থাকে । তখন আদায় করিতে পারেন ধানগাছ সবেমাত্ৰ লোপন কৰা ইয়াছে, নত এক চা ঠাখি স উচ্চ হইয়াছে এমন সময়ে যদি ' ' বীট পতঙ্গাদি প্ৰতি বৎসর বাংলার শশু ক্ষে ধান-গাছের অগা পাটগাছের মাপা উপর ধিয়া ৰতি ৷ অনেক শায় নষ্ট এব ইয়ার প্রতিকারের যায় এবং সেই অবস্থায় t বা ডেৰিক দিবস থাকে, কৃষির উন্নতির একটি উপায় বা মা মনে করা উচিত তাহা হইলে সমস্ত সারা হাজিয়া স্নায় কেবল অপেক্ষাকৃত ৩০ বৎসর হটতে বাঙ্গার ধাণে উদ্ধা বা আবা উচ্চ জমির গাঢ় পরিয়ান পায় বলিয়’ এক পকা বোথে অতি জানা গিয়াছে। কা ফসলের কোন ক্ষতি না করে তবে বস্তার প্রত্যক্ত পলিমাটি ং লৈ, চাব আক্ৰমণ অদিক বলিয়া অ সংসার এবং তৎপরবী এক বৎসর সেই নিতে তি হইতেছে ন খালি ও বিপুর জেলাতেই ইহার বিশ্লে উত্তম ফসল জন্মায় কারণ পলিমাটি অতি উন সার উপৰ লে একমাত্ৰ বেগমগঞ্জ ধান্ত থুৰ নীচু জমিতে জন্মায় বলিয়া বা হইতে ইহার বিশেষ দুই গা মণ বা নষ্ট হইয়াছে এই রোগে । তা বা হইতে ধান-গাছের মত শীঘ্ৰ গতি হয়, নীচু বঙ্গে ধাতে বিশেষ গতি হইতেছে এবং কাপ মির পাটের তত শী ক্ষতি হয় না, কারণ পটের গ্ৰা মনে করেন যে ক্ষতির পরিমাণ সাধারণের অনুমান আপে কঠিন, এবং বার জলের গভীরতার সহিত অনেক অধিক ইহার বৃদ্ধিশক্তি ও কতক পরিমাণে পাল্লা দিতে পারে। ডাঙ্গা কুমিয়ার বাবু অদ্বিকাচরণ রায় এ বিষয়ে সম্বর কি শ অথবা নদী হইতেশ্বৰে ো শতেক বা করেন। ১া সরকার বাহাদুরের দৃষ্টি অাকৰ্ষণ কৃষির অন্তরায় পুৱা Imperial Mlycologis experime এ বিষয়ে পরীক্ষা বিশেষ লাঞ্জ কতৃক লিখিত অভিমত -সম্বলিত একখানি ক্ষুদ্ৰ প্ৰাৰ্থনীয়। গবৰ্ণমেণ্ট প্ৰকাশ করেন তদবধি এ বিষয়ে বাটলার সাহেব, অমান করিয়াছেন যে চায়ে পদ্ধতির বৰ্ণমেণ্টের দৃষ্টি আকৃষ্ট থাকায় হলে উফ বা রোগের উপর এই রোগের আক্ৰমণ নিৰ্ভর করিতেছে। ছিটান গাম ইয়প পরিচয় পাওয়া গিয়াছে ধান্তে মত মন্দ অবস্থার অা কোন ধারে চাষ হন। এই রোগ এমন কি আগষ্ট ধাপেই থাকে আক্ৰমণ দিন যাবৎ এ-সকল গোত্ৰ গভীর জলে বিয়া থাকে। খাদ্য তি দেখা গিয়াছে। নীচু জমির এবং হিটান ধাৱে কাটা হুইবার পর গোড়াগুলি মাটির সহিত সংলগ্ন থাকে। অধিক রোগপ্ৰৰণাত লগ করা যা এই রোগের বা ধনু কাটা ওপৰী বপনের মধ্য সময়ে ক্ষেত্ৰ উপেক্ষিত তিনটি অবস্থা প্ৰথম অবস্থায় পড়িয়া থাকে; সেই সময়ে সামান্ত অগভীর লাঙ্গ দিমনের পূৰ্ব্বেই গাছে পাতাগুলি দাণচে বা কালচে দেওয়াতে গোড়াগুলি পচা অবস্থার মাটিতে চাপা পড়িয়া যায় ইয়া যায় । দ্বিতীয়, পোড় উw সামের পূৰ্ব্বে গাছে যে কারণেই উদ্ভাৱ উৎপত্তি হটক ইহা অপেক্ষা রোগকৃষি পরিভাগ ফুলিয়া উঠে । তৃতীয়, পাকা উক্ত,- এই অবস্থায় বিস্তারের অনুকুল অবস্থা আর কি হইতে পারে। বাটলা দিওঁ শী-নিৰ্গমন ঘটে কিয় কে সের মধ্যে শস্ত দেণিতে সাহেব উপদেশ দেন রোগাক্ৰান্ত তুমিতে চাষের সময়, নিকট এই ধায় অবস্থাতেই গাছের উপরিভাগে লাগশান্ত জেলার চাধের এক বিক্ৰমে সমগ্ৰ পদ্ধতি অনুকরণ প্রাটের কাছাকাছি স্থান বৰ্ণও বিকৃতি টে টি মাঠ করা উচিত তোত ফসলের মধাবী সময়ে ক্ষেতি সম্পূৰ্ণভাবে এককনে আক্ৰান্ত হই না হইতে দূর করার কি ফল তা আক্ৰমণ ঘটিয়া রোগ - চতুকি ছাইয়া পাি দেখা কৰ্ত্তবা। আপাততঃ মনে হয় উত্ৰা আক্ৰমণ নির যে নাঠে এক বৎসর অক্ৰমণ হইল পরবৎসর সে করিবার জন্য ধারে গোড়াগুলি দুর করা, খুব ভাল করিয়া আক্ৰমণ না ও হইতে পারে । ১৯১১ সালে নে: পোড়াইয়া ফেলা উচিত শীতকালে পতিতাবস্থায় জমিতে কোন কোন থানা জুন মাসেই আশ্ৰমণ দেখা কয়েকবার উপযুপরি লাঙ্গল দেওয়া উচিত যাহা হউক, উঘার বিশেষ পরিচয় দেওয়া ও শিক্ষিত অৰ্থবান ব্যক্তির চাষী িদগকে এ বিষয়ে উপদেশ তাৰ বৰ্ণনা করা আমাদের প্রবন্ধের উদ্দেশ্য নহে। পাঠকের দেওয়া উচিত । বিয়ে কৌতুহল হইলে তিনি ১৩২০ সালের প্রবাসীর ১৮শ গবৰ্ণমোটের চেষ্টায় কুমিল্লারে নিকটস্থ লালমাই পাহাড়ের স্বাণ, ২য় খণ্ড, ৪৮৯ পূতায় শ্ৰীমুক্ত বা দেবে নাথ মিত্তের নিকটে উঠা সংক্ৰাপ্ত পরীক্ষাক্ষেত্রে ঐ রোগ প্ৰতিকায়ে প্ৰবন্ধ ও বাঙ্গা গৰমণ্টের কৃষিবিভাগে fৰ উপায় নিস্ত্ৰগণাৰ্থ গত বৎসর পরীক্ষা কাৰ্য্য চলিতেছিল, lice of rice" নামক ১৯১২ সালের দুই নগর বৃটেন কি ১৯৯৪ সালে পৰীক্ষা-ক্ষেত্ৰে জলাভাক-হেতু অজা letin) ৪ ১৯০৯ সালের বৰ্ণমেণ্ট কতৃক প্ৰকাশিত হওয়াতে পরীগণ বিফল হইয়াছে ? বৰ্তমান বৎসরে পুনরায় Leae পত্ৰিকা পাঠে এ বিষয়ে বিংশ জান অৰ্গন পরীক্ষা চলিতেছে নোয়াখালি, ীেমাহানি ও দিতে পরিবেন । বানানে এই পান্ত বলা যাতে পারে গোড়া মাইয়া দিয়া এবং শস্ত সাহের পর পুনরায় বনের বোটলােৱ অনুমান করেন যে কোন কাট বা খ্ৰীবাণু হাৱা পূৰ্ব্বে উপযু পৰি লাঙ্গল দিয়া পরীক্ষা করা হইয়াছিল কি এই রোগের আক্ৰমণ অনুষ্ঠিত হয় না । তিনি নিৰ্ণয় উয়ার আক্ৰমণ অতি খামখেয়ালি কদের । বিক্রমপুরে রিয়াছেন এক প্ৰকার le : troºrm বা বাইন জাতীয় পরীক্ষাক্ষেত্ৰে দ্বিতীয় বৎসব আর কোন আক্ৰমণ হয় নাই, স্বা ক্ষণিক পোকার আক্ৰমণই এই বোগের উৎপত্তির কি চৌমহানিতে একই গোত্ৰ কীটনষ্ট হইয়াছিল। ইয়া । তিনি আরও বলেন যে এ বিষয়ে স্থির করিয়া হইতে উক্ত উপায়ের ধাৰাতি সহদ্ধে কোন সিদ্ধান্তে কি ৰা) বা ন এবং সঞ্চারণ-নিয়াৰ গাৱ৷ উপস্থিত হওয়া যায় না। আশা কৰা