পাতা:বঙ্গভাষার ইতিহাস.djvu/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


', 'o বঙ্গ ভাষার ইতিহাস । কবিবর গোবিন্দ দাসের পরে , বোধ হয়, ১৫২৯ খৃঃঅব্দে প্রবল প্রতাপান্বিত মোগলরাজ্য সংস্থাপনকৰ্ত্ত বাবর শাহের সময়ে জীব গোস্বামী নামা এক ব্যক্তি করচণই গ্রন্থ গ্রন্থন করেন । এই পুস্তকের বয়স প্রায় ৩৪০ ৎসর। অনেকে কহিতেন “ ত্রিপুরার রাজা - বলি" নামক গ্রন্থ অতিপ্রাচীন, কিন্তু সেই পুস্তক এসিয়াটিক সোসাইট” নামী সভার দ্বারা পরীক্ষিত হওয়াতে সে ভ্রম দূর হইয়াছে। জীব গোস্বামীর পর, নরহরিদাস, বৃন্দাবন দাস, শেখর রায়, সনাতন, বৈষ্ণব দাস প্রভৃতি অনেকগুলি ব্যক্তির প্রাদুর্ভাব হইয়াছিল। র্তাহারা প্রায় সকলেই চৈতনেfাপাসক ছিলেন। উক্ত ধৰ্ম্ম-সম্বন্ধীয় অনেক সংকীৰ্ত্তনাদি রচনা করত আপন আপন কীৰ্ত্তি সংস্থাপিত করিয়াছেন। তাহারা সকলেই চৈতন্যের পরবর্তীর্ণ লোক । এই সকল মহোদয়দিগের মধ্যে বৃন্দাবন দাস কৃত চৈতন্যভাগৰত নামক একখানি গ্রন্থ আমাদিগের নয়ন-মুকুরে প্রতিবিম্বিত হয়।