পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/২৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२b• रै বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস [ સજી-જtહ ! ‘মুলোক’ বা ‘সৌসুক হওয়া কিছু বিচিত্র নহে। এই ‘সওলখ’ শব্দই মহাভবিষ্যপুরাণে ‘ব্ৰহ্মাবর্তের শুষ্ক হইয়া পড়িয়াছে। সাহাকুল-পরিচয়ে যে কমায়ুনের প্রসঙ্গ আছে, তাহাও এই সওলখের নিকট বটে।• এই ‘সওলখ’ হইতে মুরাষ্ট্রে গিয়া যাহারা গুঞ্জর আখ্যা লাভ করেন, ভাণ্ডারকর মহাশয় তাহদের পূৰ্ব্ব সমাজ হইতে বৃত্তি অনুসারে ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় ও বৈশ্ব এই তিন জাতিই বাহির করিয়াছেন। অতএব বঙ্গাগত বাণিজ্যজীবী সেলুকগণ ষে বৃত্তি অনুসারে পুৰ্ব্বকাল হইতেই বৈগু সমাজভুক্ত ছিলেন, তাহাতে আর সন্দেহ থাকিতেছে না । গয়া হইতে সপাদ লক্ষপতি অশোকচল্লের শিলালিপি আবিষ্কৃত হইয়াছে। অশোকচল্লের ‘চন্ন’ উপাধি বংশপরিচায়ক বলিয়াই মনে করি। উহা ‘চালুক্য’ শব্দেরই এক ভিন্ন রূপ। বুদ্ধ-নিৰ্ব্বাণের পর ১৮১৩ t বর্ষে উক্ত শিলালিপি খানি খোদিত হয়। এই শিলালিপির নিকট আরও কতকগুলি সমসাময়িক লিপি আবিষ্কৃত হইয়াছে, তাহা হইতে আমরা জানিতে পারি যে সপাদলক্ষ বা সেীলকপতি গয়ার মহাবোধির নিকট সিংহলীগত এক মহাস্থবিরকে প্রতিষ্ঠিত করিয়াছিলেন । এরূপ স্থলে উক্ত নিৰ্ব্বাণাব্দটকে সিংহলে প্রচলিত বুদ্ধ-নিৰ্ব্বাণাব্দ বগিয়া গ্রহণ করিতে পারি। ৫৪৩ খৃঃ পূৰ্ব্বাদে সিংহলের বুদ্ধ-নিৰ্ব্বাণাদের প্রারম্ভ কাল । এরূপ স্থলে ১৮১৩–৫৪৩ = ১২৭৯ খৃষ্টাব্দে অর্থাৎ মুসলমান বিজয়ের প্রায় ৮৮ বর্ষ পরেও আমরা এখানে সপাদলক্ষ বা বৌদ্ধ সৌলক রাজের প্রসঙ্গ পাইতেছি। সুতরাং নালন্দার বৌদ্ধবিহার মুসলমান হস্তে বিধ্বস্ত ও শ্রমণগণের যথেষ্ট নিগ্রহ ঘটিলেও গয়ায় তখনও কিছু কিছু বৌদ্ধ নিদর্শন ও দৌলক সমাগম ছিল। তখনও বঙ্গের সেীলকগণ আপনাদের পূর্ব নিবাসের কথা ভুলিয়াছিলেন বলিয়া মনে হয় না। এখনও অনেকে চালুক’ বা ‘চেলেকি সাহা’ বলি। পরিচয় দিতেছেন $ . . . ৬৪৮ খৃষ্টাব্দে বৈশুসম্রাটু হর্ষবৰ্দ্ধনের মৃত্যুর পর ব্রহ্মাবৰ্ত্ত ও পঞ্চাল প্রদেশে ঘোরতর অরাজকত উপস্থিত হয় । সেনাপতি অরুণাশ্ব বা অৰ্জ্জুন হর্ষের সিংহাসন গ্রহণ করিয়া হর্ষের দর্শন প্রার্থী চীনদুতের দারুণ অপমান করেন। এ সময় নেপাল পর্য্যস্ত তিববতরাজের গোলকগণের বজাগমন অধিকারভুক্ত ছিল। বৌদ্ধ চীনদুত গিয়া প্রগাঢ় বৌদ্ধধৰ্ম্মামুরাগী कांद्भ१ निर्णग्न তিব্বতপতির নিকট হর্ষরাজ্যাপহারক কর্তৃক বৌদ্ধধৰ্ম্মের অবমাননা প্রভৃতি অত্যাচারের সংবাদ জ্ঞাপন করিলে তাহার প্রধান সামস্ত নেপালপতি বহু ংখ্যক নেপালী সৈন্ত লইয়া অরুণাশ্বকে পরাজয় ও তাঁহাকে বন্দী অবস্থায় চীনপতির নিকট লইয়া যান। এ সময় উত্তর-ভারতের সিংহাসন প্রকৃতই শুষ্ঠ পড়িয়াছিল। সেই সময়ের অবস্থাই সাহা-কুলপরিচয়ে বিবৃত হইয়াছে— • Ind. Ant. X. P. 242-6. + Cunningham's Mahabodhi, p. 80. সাহিত্য পরিবৎ পত্রিক, ১৭শ ভাগ, "বুদ্ধগয়ার তিনখানি শিলালিপি” প্রবন্ধ দ্রষ্টব্য । * , पत्रोश् ?रथनभिठि भू*िनां२ान श्रठ यकानिठ 'वश्चउखम*१', २२ शृ*।