পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৪৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কৃষ্ণচন্দ্রীয় যুগ—রামপ্রসাদ সেন—১৭১৮-১৭৭৪ খৃঃ। S886. শিখর অচল এ দেখি সচল সপঙ্ক কমল সকলে বলে ॥ কেহ কেহ হাসি মনে হেন বাসি সৌদামিনী-রাশি এমনি হবে। আর জন কহে বে কহ সে নহে সৌদামিনী রহে স্থিরতা কবে। কি রূপ-লাবণ্য এ পুরুষ ধন্ত বিধি কার জন্ত গঠিল বটে। কহে এক সতী সেই ভাগ্যবতী সুন্দর এ পতি যারে লো ঘটে। হৃদয়-মাবারে রাখিয়ে ইহারে নয়ন-ক্কুয়ারে কুলুপ দিয়া। রূপ নহে কালো নিরখিতে আলো দেখ সখি আলো আখি মুদিয়া ॥ রাজসভায় চোরবেশে সুন্দর। পাঠ করে পুরাণ পাঠক নিত্য নিত্য। যন্ত্রিগণ যন্ত্রে গান করে হরে চিত্ত ॥ দুদিকে সোয়ার খাড়া বুকে ধরে ঢাল। কারো নাই মৃত্যু-ভয় যুদ্ধে যেন কাল ॥ সেলাম করয়ে হাতী সম্মুখে মাহুত । পদাতিক দুরন্ত সাক্ষাৎ যমদূত । চোপদার নকিব হুজুরে খাড়া আছে। বাঘাই কোটাল চোরে নিয়ে গেল কাছে ॥ গরিব নেওয়াজ বলি অদবে সেলাম । নজর দৌলত এই চোর লেয়া হাম ॥ ভূপতিকে প্ৰণিপাত করিলেন কবি। সতত নির্ভয় দীপ্যমান যেন রবি ৷ অপাঙ্গ লোচনে নিরখিয়া রূপ ভূপ। পরম পুরুষ চিত্তে জানিলে স্বরূপ। ধষ্ঠা কন্যা অন্বেষণে মিলাইল পতি। বররুপে কোন দেব ভ্রমে বসুমতী ।