পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৫৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কৃষ্ণচন্দ্রীয় যুগ—জয়নারায়ণ সেন–জন্ম ১৮শ শতাব্দীর পূর্বাৰ্দ্ধ। ১৪৮৩ রতনে জড়াও কবজ জড়িয়াছে তাথে । শুীমবৰ্ণ চমকিছে জোহরের সাথে ॥ ভাবি ধনপতি তখন বলিল চোরেতে। দঢ় (১) বল কিবা পণ লইবা ইহাতে ॥ লক্ষ যে কহিছ পণ ইথে হারে হরি। অৰ্দ্ধ পণে যদি ছাড় তবে আমি পারি ॥ চোর বলে পর-দ্রব্য সে বলিছে যাহা । আমি কি করিয়া ঘটাইতে পারি তাহা ॥(২) না দিও দলালি বরং লক্ষ বিনে আর । তথাপি তোমার সঙ্গে করিব ব্যভার (৩) ॥ বাদাবাদে পচাত্তর হাজারে চুকিল। হরিষ অপারে শীঘ্র পণ বুঝাইল । ওজনেতে পণেতে হারেতে বিশ বিশ । এ সকলে বিশ সদাগরে হৈল বিষ ॥ (৪) হাতে করি লৈয়া হার চোর বিদায় দিল। গাড়ী ভাড়া করি চোর টাকা নিয়া গেল ॥ পরদিন মহাহর্ষে শ্বশুর জামাই। ঘরেতে ঘটিল লাভ মুখে সীমা নাই। বালাখানায় মছলন্দে বসি সদাগর। গলে দিয়া সেই রাজ-যোগ্য হারবর। বারদণ্ড বেলা বাজাইছে ঘড়্যালেতে (৫)। হেন কালে উল্কা রায়ের চর হাওলিতে ॥ গলি হতে দেখে তারা উপরে চাহিয়া । বসিছে দুজন মহাহরিষ হইয়া ॥ (১) নিশ্চয় করিয়া। (২) দ্রব্য আমার নহে, আমি দালাল মাত্র। সে যাহা বলিয়াছে, তাহাই বলিয়াছি। তুমি যাহা বল, তাহা কিরূপে ঘটাইব ? (৩) ব্যভার = ব্যবহার = কারবার। (৪) এই বিশ (বিংশতি ) সংখ্যা সদাগরের পক্ষে বিষ-তুল্য হইল। (৫) ঘড়্যাল=ঘড়িয়াল =যে ব্যক্তি ঘটিকা বাজায়।