পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৫৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কৃষ্ণচন্দ্রীয় যুগ—জয়নারায়ণ সেন–জন্ম ১৮শ শতাব্দীর পূর্বাৰ্দ্ধ। ১৫০১ যেখানে প্রসাদ পাও ত্বরিতে তুলিয়া খাও তবে যাবে সব দুঃখ দূরে ॥ স্বপ্নে দেখি শিহরিয়া হৃদয়ে আনন্দ হৈয়া উঠি ধায় আপন-মন্দিরে। পতিত প্রসাদ পাইয়া মহাভক্তি করি লইয়া তুলি দিলা মুখ-সুধাকরে ॥ আনন্দে চলিয়া যায় মঙ্গল দেখিতে পায় শুভ লক্ষণ । বামে ধায় হরিণী হেরিয়া । মৃগ গো দক্ষিণে যায় পুলকে শরীর তায় জয়-রব ভুবন ভরিয়া ॥ বৃষ গজ অশ্ব তৰী দক্ষিণে আবৰ্ত্ত বহ্নি দধি শুক্লধান্ত পুষ্প-মালা। হেরিয়া বিমনা মনঃ সুমনা হইয়া পুনঃ পুলকে পূরিত ভেল বালা ॥ ভূপতি পতাকা আর সন্তোমাংস ঘৃত-ভার বামে সব নীর-পূর্ণ কুম্ভ । তেজঃপুঞ্জ দ্বিজ যত বসি বেদ পাঠে রত রজত-কাঞ্চনময় স্তম্ভ ॥ শুক-সনে শারী পার্থী স্পন্দে ঘন বাম আখি হেরি নারী কাৰ্য্য-সিদ্ধি মানে । কবি রায় লীলা গায় মঙ্গলে মঙ্গল তায় মঙ্গল-রাগেতে ভাল ভণে ॥ দেখি সতী হৃষ্ট মন নারায়ণ স্মরি ঘন নদী-তীরে করিলে গমন । বড়মড় গেল দূরে চন্দ্রভান নৌকা-পরে ভাসি উঠে হাসিল ভুবন ॥ দেখি মাত্র সব লোক দূর করে যত শোক জয় জয় রব করে অতি । লাগিল মুনেত্রী-কাণে জয়-রব হৃষ্ট মনে লড়ে (১) চলে গতি-গজ-পতি ॥ (১) লড়ে = দৌড়িয়া।