পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৯৫০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
১৮৯২
বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয়।

ব্রাহ্মণীর স্নেহ।শোকার্ত্ত হৃদয় তার দহে চিত্ত অনিবার
পুত্ত্র-শোকে অশ্রুপূর্ণ আঁখি॥
কহে গদগদ স্বরে থাক বাছা মোর ঘরে
পুত্ত্রবৎ করিব পালন।
যেই বিদ্যা শিখিবারে বাঞ্ছা হইবে অন্তরে
সেই বিদ্যা দিবে তপোধন॥

ব্রাহ্মণ ব্রাহ্মণী তবে উভয়েতে এক ভাবে
পুত্ত্রভাব কৈল দুই জনে।
নিত্য নিত্য দ্বিজবর লয়ে রাম দামোদর
নানা বিদ্যা করান পঠনে॥
ব্রাহ্মণী জননীবৎ ভক্ষ্য ভোজ্য নানামত
দিনে দিনে করান ভোজন।
দেখিয়া যুগল-মুখ ঘুচে যায় মন দুঃখ
পুত্ত্রশোক হল পাসরণ॥
এই মতে রাম হরি রহিয়া মুনির পুরী
বিদ্যা-শিক্ষা করেন তথায়।

পাঠশালে আর যত দুই চারি দ্বিজসুত
সবে অনুগত দেব-রায়॥
শিষ্য ভাই সবে মিলে একত্র মুনির টোলে
সকলে করেন অধ্যয়ন।
সুদামা দ্বিজকুমার অনুগত দামোদর
সদা কৃষ্ণে করয়ে সেবন॥
তাহারে প্রসন্ন অতি হইলেন রমাপতি
প্রিয় সখা করিলেন তারে।
অধ্যয়ন করে যত তার নাম লব কত
সবে পাঠ দেন দ্বিজবরে॥
শুন রাজা পরীক্ষিত অদ্ভুত কৃষ্ণ-চরিত
বিদ্যাশিক্ষা করেন মুরারি।
বিবিধ বিদ্যা।পাঠ দেন মুনিবর শিখে দুই সহোদর
প্রতিদিন এক বিদ্যা করি॥
গীত বাদ্য নৃত্য যত তিন বিদ্যা প্রথমতঃ
চতুর্থে শিখিলা নাট্য আর।