পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায়—সিদ্ধ। శిని এক্ষণে আরও ২৭ সের মত মাংস অপেক্ষাকৃত বড় বড় থও করিয়া কুট । মুণ ও মরিচের গুড়া মাখিয়া ঘৃতে ভাজিয়া লও। চাউল ধুইয়া পরিষ্কার করিয়া মেলাইয়া শুকাইতে দাও। শুকাইলে জাফরাণ দ্বারা উত্তম রূপে মাখিয়া রঙ্গ কর এবং সের করা বেশী কম পাঁচ ছটাক মত স্বতে ঈষৎ ভজিয়া লও। এই সময় চাউলের সহিত বাদামকুচ, পেস্তাকুচা ও কিমিস্ প্রত্যেকটি / এক ছটাক পরিমিত হিসাবে মিশাইবে, অথবা বাদামাদি ঘৃতে ভাজিয়া লইয়া পশ্চাৎ মিশাইতেও পার। কেহ বা দুটো গরম মশল্প এবং তৎসহ সাজিবু ও সামরিচ গুড়া করিয়া কাপড়ে ছকিয়া লইয়া এই সময় চাউলের সহিত মিশাইয়া লয়েন। এক্ষণে একটা বড় ডেকচি বা তেজাল ছাড়ির তলায় খানকয়েক তেজপাত বিছাইয়৷ তদুপরি ঐ চাউল সাজাও । একপরল চাউল সাজান হইলৈ— তদুপরি একপরল ভাজা মাংস সাজাও পুনরায় তদুপরি আর একপরল চাউল সাজাও পুনরায় তদুপরি একপরল মাংস সাজাও পুনরায় তদুপরি একপরল চাউল সাজাও । এক্ষণে সৰ্ব্বোপরি সাবধানে আবযুষের জল ঢালিয়া দাও । চাউলের মাথার উপর জল চারি আঙ্গুল মত উচা থাকা প্রয়োজন। হাড়ির মুখ ঢাকিয়া জালে বসাইয়া দাও। চাউল সিদ্ধ হইবামাত্র জালের উপর হইতে ইঁড়ি সরাইয়া উনানের এক পাশে মন্দা আঁচে দমে বসাইয়া রাখিবে । অল্প আঁচে ধীরে ধীরে সমস্তটা সুসিদ্ধ হইয়া যাইবে । ভাতের দ্যায় পোলাওর জল গালা যায় না, অল্প জলে সিদ্ধ করিতে হয়, সুতরাং জ্বাল হইতে না সরাইলে আচিয়া,যাইয়া সমস্ত পোলাও এককালে নষ্ট হইয়া যাইবে । জল শুকাইয়া যাইয়া পোলাও সুসিদ্ধ অথচ ঝরঝরে হইলে নামাইবে। ংসের সহিত ইচ্ছ- করিলে আলু, কোবি, কড়াই শুটি, শালগম, পেয়াজ, আদা গ্রন্থতি স্বত্ত্বে কবিয়া একত্র সাজাইয়া দিয়া পোলাও রাধিতে পী র ।