পাতা:বাংলার পাখি - জগদানন্দ রায়.djvu/৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


毓 むや বাংলার পাখী। তাকায় না। কোকিলোয় বাসা তোমরা দেখিয়াছ "কি ? ইহারা জন্মেও বাসা বঁধে না । বোধ করি, বাসা বঁধিতে জানেও না। চৈত্র, বৈশাখ, জ্যৈষ্ঠ এই তিন মাসে কত পাখী। কত রকমের বাসা বাঁধে। কিন্তু খড়-কুটা মুখে করিয়ু তোমরা কখনো কোকিলদের উড়িতে দেখিয়াছ কি ? কোকিলরা লুকাইয়া কাকের বাসায় ডিম পাড়ে। তাই বাসা বঁধা, ডিমে তা দেওয়া, ছানাদের যত্ন করা প্ৰভৃতি কাজ কি রকমে করিতে হয়, তাহারা জানেই না। কাকেরা নিজেদের ডিম মনে করিয়া কোকিলের ডিমে খুব যত্ন করিয়া তা দেয় এবং ডিম ফুটিলে ছানাদের যত্ন করিয়া পালন করে। তাহারা যে পরের বাচ্চা পালন করিতেছে, তাহা একেবারে বুঝিতেই পারে না। তার পরে হঠাৎ একদিন যখন সেগুলিকে কোকিলের বাচ্চ বলিয়া চিনিতে পারে, তখন তাহাদিগকে দূর-দূর করিয়া বাসা হইতে তাড়াইয়া দেয়। কিন্তু ইহাতে কোকিলের বাচ্চাদের কোন ক্ষতি হয় না। তখন তাহারা উড়িয়া নিজেদের খাবার নিজেরাই জোগাড় করিয়া সুখে বেড়াইতে পারে। দেখ, কোকিলের বাচ্চাদের কত দুঃখ । জন্মে। তাহারা বাপ-মায়ের আদর পায় না । পরের ঘরে জন্মিয় পরের দয়ার উপরে নির্ভর করিয়া তাহদের বড় হইতে হর। তার পরে হঠাৎ একদিন সেই পরের ঘরও ছাড়িয়া পথে দাড়াইতে হয়। কাকেরা এত চালাক পাখী হইয়া এইখানে কোকিলদের কাছে হার মানে। তাই বোধ করি