পাতা:বাঙ্গালা ভাষার অভিধান (প্রথম সংস্করণ).djvu/৫৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঘোট शंtन cकजब्र यांईल सैंकिग्न शांग्न ; अभिग्न বঁাক : घूजी | ঘোট (ট) [ ঘুট্‌ ধাতু (পরিবর্তনে, আবর্জন) ৰি, জটলা : আন্দোলন। প্র—“ভদ্রলোকেরাও বারোইয়ারির আটচালায়, শিবের মন্দিরের রকে, স্তায়কচ কচি ঠাকুরের টোলে এবং অস্তান্ত তথাবিধ স্থানে বসিয়া ঘোট করিতে লাগিলেন"—বিষবৃক্ষ । ২ । [ হি—দুট। শদাত্মক। জল গলাধঃকরণের শব্দ ফুট হইতে ] একবারে গিলিবার মত জল। ২। গওয। ঘোট! [ফুটন দ্রঃ। ধুটুধাতুজ। উ-পু— যুটি। ম-পু-খোট ; ঘু টুন ; ঘোট। প্র-পু— ঘোটে ; ঘোটেন। অসক্রি—ঘুটিতে ; ঘুটিয়া। ণিজন্ত-ঘোটান (নো ) উ-পু—ঘোটাই । ম-পু-ঘোটাও ; ঘোটান ; ঘোট। প্র-পু— ঘোটে ; ঘোটান । অসক্রি-ঘোটাইতে ; ধোটাইয়া ] ক্রি, আলোড়ন করা । ২ । পরিভ্রমণ করা । ৩। তোলপাড় করা : অন্ন তন্ন করিয়া অন্বেষণ করা। বি, ঘোটন। বিণ. ঘোটা। প্র—সহর ঘোট ছেলে। ঘোৎঘোৎ—যোজুযোত দ্রঃ। 6षांश (१) [ नर-८काद्-दछ दूछूत्र । ठूल --তেলু, "কোকা” ] বি, পুং, বাঘ এবং কুকুরের মাঝামাঝি একপ্রকার জন্তু। [কোৰু প্র—“তুমি তার কোথায় লাগ যাদুমণি * * * * * * মনেতে করেছ আসা বাঘের ঘরে যোগের বাসা আস্কে খেয়েছ যাদু ফোড়তো গণনি।”— গোপাল উড়ে। বাঘের ঘরে ঘোগের বাসী—ব্যাঘ্র অপেক্ষা দুৰ্ব্বল হইলেও যোগ বাঘের ভয়ানক শক্র, কারণ ঘোগের ব্যাঘ্রশিশুদের একাকী পাইলেই খাইয় ফেলে, এইজন্য তাহারা বাঘের বাসায় লুকাইয়া বাস বাধিয়া থাকে, অনেক সময় তাহারা বাঘের হাতে পডিয়া প্রাণ হারাইলেও তাহার সহিত শক্ৰতা করিতে ছাড়ে না। ইহা হইতে দুৰ্ব্বল শত্রুর প্রতি ক্ৰোধোত্তেজিত—বাঘের ঘরে যোগের বাসা পেয়েছ বলা হয় । ঘোট, ঘোটক (টু, ) { যুট (প্রত্যাৰঞ্জন করা)+অ. ক (অৰ্চ, অৰু-কত্ত্ব)—যে ভূমিতে প্রত্যাবৃত্ত হইয়া লুঠ করে jবি, পুং, স্ত্রী, অশ্ব : বাজি ; ঘোড়া । cषोंऐन (न्) [cर्षा5 ज:] रि, चावशन : তল্লাসকরণ । ২। পেষণ । ৩। আলোড়ন। ঘোইন [ফোটন +জ (করণে)]যাহা দ্বারা আবর্তন করে ; যাহা দ্বারা ঘোট যায় ; পেবশদও প্ৰ—“ঘরে ছিল ঘোটনা ঘর্ষণে cगण cक्रमॆ । किन झई मांनबनलनौ cन७ বেটে ॥”—শিবায়ন। "নূতন ঘোটুন কুড়া क्षिप्रांप्इ विलाई°-पञ, म । ū; j lemur tradigradus. 6 86t ঘোড় (ড়) ঘোড়া ত্র: হি—ঘোড়Jবি.ঘোড়া ; অখ। ঘোড়গাড়ি, ড়ী-ঘোড়ায় টান৷ গাড়ী ; অশকট। ঘোড়দৌড়—জুয়া খেলাবিশেষ ; হার জিতের বাজী রাখিয়া ঘোড়াকে দৌড় করান। ঘোড়দৌড় করান—নাকাল করা । ঘোড়তোলা— উচ্চ গোড়ালীযুক্ত : উচু গোড়ালীর। ঘোড় সওয়ার—অশ্বারোহী। প্র—আগে পিছে ঘোড়সওয়ার । ঘোড়া, ঘোড়ী (সং—ঘোটক। হি— ঘোড় ] বি, ঘোটক ; অশ্ব (দ্র:) ; তুরঙ্গ । ২ । [ দাব| খেলায় ] প্রধান বলবিশেষ ; the knight. ৩। বন্দুকের হাতুড়ি অর্থাৎ যে অংশ আকর্ষণ করিলে হাতুড়ির মত বারুদের মুখে আঘাত করিয়া অগ্নি উৎপাদন স্ত্রী, ঘোড়ী : ঘুড়ী। ঘোড়া ঘোড়া-খেলুড়েদিগের মধ্যে পরম্পর ঘোড়া হইয় অপরকে পিঠে করিয়া হাতে পায়ে ভর দিয়া বেড়ান রূপ খেলা ৷ ২ ৷ ঘোড়ার মত। ঘোড়ার ডিম—অলীক পদার্থ। প্র—“জানিন৷ নিষ্কাম কৰ্ম্ম বুঝিনা নিষ্কাম ধৰ্ম্ম বুঝি না ঘোড়ার ডিম তোমরা কি কহ”—কস্তুরী । “লালচাদ সিং নাচে তিড়িং তিড়ি, ডালরীর যম কিন্তু কাজে ঘোড়ার ডিম্।”—বিধবৃক্ষ । ঘোড়া ডিঙ্গাইয়া ঘাস খাওয়া-গৃহপালিত ও বঙ্গদেশে সচরাচর দৃষ্ট ঘাসথোর জন্তুর মধ্যে ঘোড়াই উচ্চতম, সুতরাং তাঁহাকে অতিক্রম বা লঙ্ঘন করিয়া গরু, মেষ, ছাগলাদি ঘাস থাইতে পারে না তাহা হইতে উচ্চতন কৰ্ম্মচারীকে লজঘন বা অতিক্রম করিয়া স্বার্থ সাধন করিতে পারে না ; বৃথা বা নিষ্ফল চেষ্টা কর । ঘোড়ীরোগ-অবস্থার অতিরিক্ত বিষয়ে সাধ বা উৎকট বাসনারূপ বাতিক । আটে কাটে দড় ত ঘোড়ার উপর চড়–অশ্বারোহণ করিতে গেলে প্রায়ই পতিত হইতে হয়, সুতরাং আটপিটে লোক ভিন্ন অপরে পারে না। কষ্ট সহিতে দক্ষতা থাকে তবে কঠিন কাজে হাত দাও । ঘোড়ায় চড়া—অশ্বারোহণ করা ; অস্পৃষ্ঠে গমনাগমন করা। ঘোড়ামাচি-ধোড়ার গায়ে বসিয়া রক্ত শোষণ করে একপ্রকার বড় মাছি ; a horse-fly. ঘোড়ামুখ, মুখো-ঘোড়ার মত লম্বা মুখ। স্ত্রী ঘোড়ামুখী গোলিতে)। ঘোড়ানিম-অধিক লম্বা পাতা অত্যধিক তিক্ত বস্ত নিম্ববৃক্ষ। ঘোড়ামুগ—সোণামুখ অপেক্ষা লম্বা অপকৃষ্ট মুখ কলাই। ঘোড়াশাল—অথশালা ; আস্তাবল । ঘোড়া দেখে খোড় হওয়া—চলিতে চলিতে ঘোড়ায় চড়িৰার সুযোগ পাইয়া আরাম FIN ; hammer of a gun. ঘোড়ারু [ ঘোড়া ঘোড়ারুরু ঘোম করিবার লোভ সামলাইতে না পারির খোড়ার ভাব দেখান ব| চলিতে না পারা । ( ঘোড়ার আকৃতি ) রু= রর (মৃগ ) সংক্ষেপে—ঘোড়ার । মৃগজাতি কিন্তু ঘোড়ার স্তায় অঙ্গ বলিয়া, ওড়ি— ঘোড়াঙ্গ। আফ্রিকার বস্ত চিত্রাশ্ব (abra) তুল্য খাড় হইতে পুচ্ছ পর্য্যন্ত ডোরা কাটা, অথবৎখুরবিশিষ্ট ও অতি দ্রুতগামী পশু। কবিকঙ্কনের বর্ণনায় রূর জাতীয় বলিয়াই বোধ হয়। আধু ধাং—ঘোডার বা ঘোড়ারুরু ( Haughton ) শব্দের ব্যবহার নাই ] বি, ঘোড়ার মত দেখিতে এবং মৃগের মত দ্রুতগামী পশু। প্র—“বার শিঙ্গা তুলার ঘোড়ার ঢোলকান ৷”— কবিকঙ্কণ। "তুলার ঘোড়ার মৃগ, পবন জিনিয়া বেগ, কালসার বীর মহাশয় ।”—ঐ । "বায়ু ভর করি যায় তুলাক ঘোড়ারু। উভকান করি ধায় আহত শশার ॥"—ঐ । [ঘোড়-ক্লক (মৃগ)] ৰি, বৃহদাকার হরিণ : গোড়ারু দ্র: an elk. [ //aak/on. ] । ঘোড়াসিজ-বি মনসাসিজ-জাতীয়গাছ । প্র—“ঘোড়াসিজ, পাতাসিজ গুডকাঙলী।"—কবিক । ঘেtণী ( না ) { নাসিক্যধ্বনি হইতে। “ঘোণ নাসা চ নাসিক।"—অমর | বি, স্ত্রী, নাসL; নাসিকা ; নাক ৷ ২ ৷ অশ্বের নাসিকা । ৩ । মুখের অগ্রভাগ। ঘোণাকাটা—গন্নাকাটা ডা: | ঘোণী (নি) [ ঘোণ (নাসিকার অগ্রভাগ ) ঈ ( বিশিষ্টার্থে) যাহার নাসিকাগ্রাংশ অধিক লম্বিত, অথবা ঘোত ঘোত শব্দ করে বলিয়। ] ৰি, পুং, শূকর। ঘোত ঘোত্ (অনুকরণ শব্দ ] কি শূকরের কণ্ঠস্বর ৷ ২ ৷ অসন্তোষের অস্পষ্ট অভিব্যক্তি ; গোজ গোজ। ঘোত ঘোত করিয়া খাওয়া-- [ শূকরের বিষ্ঠা ভোজনের স্থায় ] খাদ্য অখাদ্য যথা ইচ্ছা ভোজনে উদর পূর্ণ করা ( অবজ্ঞার্থে উক্ত হয়) । ঘোপ (প ) [ খোপ হইতে ] বি. খুরি ; খোপ। প্র—“ঘোপের ভিতর বসে আছে।” ঘোপঘাপ—ঘোপ ও তৎসদৃশ আড়াল। ঘোমটা (ম্) (হি—যুদট,-ঘোঙট, বি, . বস্ত্র দ্বারা মুখাবরণ : অবগুণ্ঠন : মুখাছাদন। স্থানভেদে উহাকে মাথায় কাপড় দেওয়া বলে। প্র—“আৰরি বদন আমি ঘোমটায় সখি করপুটে কহিমু—”—মেঘনাদবধ । “ঘোমটার জলদ আঁধারে । তোমার ও মুখশশী কাদিছে কাতরে "—অশোক গুচ্ছ। ঘোমটা খোলা—অবগুণ্ঠন উন্মোচন করা । ২ । অনাবৃত মুখ। ৩। অবরোধ প্রথা ভাঙ্গ । প্র—“আর কেন লো ঘোমটা খোল কবির কথা