পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কবিকঙ্কণের চতী, रुज्रृमङ्गे ‘মনসার ভাসান, বলরামের ঐধর্মমঙ্গল এবং মাণিক চাদের গান, দেশে গীত হইতে শুনা গিয়ছিল। আজিও এই যে সঁওতাল,তীর্ণ yি প্রভৃতি অসভ্য পাৰ্ব্বতীয় জাতি দেখিতে পাই, দিও তাহদের মধ্যে ব্যাকরণের ধর্ম নিগড়বদ্ধ ভাষা বা সঙ্গীত-শাস্ত্রের পদ্ধতিগত মুর-তান-লয় প্রচলিত নাই; কিন্তু সঙ্গীত তাদের মধ্যে আপন প্রভাব বিস্তার করিয়া রহিয়াছে। এইরূপ পর্যালোচনা করিয়া ‘. দেখিলে স্পষ্টই প্রতীত হয়, স্বষ্টির সঙ্গে সঙ্গেই সংসারে সঙ্গীতের তরঙ্গ প্রবাহিত। বৈদিক যুগে ঋষিগণ সঙ্গীতে সিদ্ধ ছিলেন। তাহদের সাম-গান,— প্রাচীন ভারতে * মন না উদাত্ত, অনুদান্ত ও স্বরিং স্বরযোগে গীত হইত। নারী শিক্ষা প্রভৃতি গ্রন্থে তৎকালিক গান ও স্বরাদির বিধি লিপিবদ্ধ ছিল। তৎপরবৰ্ত্তী কালে—মহর্ষি বাল্মীকির সমসময়ে—মহামুন ভরত সঙ্গীত-শাস্ত্রের প্রধান অধ্যাপক ছিলেন । তাহার পরে সোমেশ্বর, কল্লিনাথ ও হনুমন্ত, সঙ্গীত-শাস্ত্র-বিশারদগণের মধ্যে বিশেষ প্রসিদ্ধ। রাগ-রাগিণী সম্বন্ধে তৎকালপ্রচলিত মত রাগ-বিবোধ গ্রন্থে বিবৃত। প্রাচীন ভারতে রাগ-রাগিণী-সংযুক্ত গীত-পূর্ণ বহু গ্রন্থ ছিল। তন্মধ্যে “শুভঙ্কর কৃত সঙ্গীত । দামোদর, বী:নারায়ণ কৃত সঙ্গীত-নির্ণয়, হরিভট্টকৃত সঙ্গীভসার, সঙ্গীতাৰ্ণব, সঙ্গীত-রত্নাবলী, পুরুষোত্তম কৃত সঙ্গীতনারায়ণ, নারদপুঞ্চম সারসংহিতা, শিলেন-কৃত রাগসৰ্ব্বথসার, শার্গদেবু কৃত সঙ্গীতরত্নাকর, সিংহভূপাল কৃত সঙ্গীতমুধাকর, হরিভট্ট কৃত সঙ্গীত-দর্পণ, রাগমালিকা, হরিনারায়ণ কুত সঙ্গীতসার, নারদসংবাদ, নারদপুরাণ, রত্নমালা, সঙ্গীতকৌস্তভ, অন্ধুভট্ট কুত তাণ্ডবতরঙ্গেশ্বর, গীতসিদ্ধান্ত ভাস্কর, বিশ্ববস্তু কৃত ধ্বনিমঞ্জরী, রাগীর্ণব” * প্রভৃতি গ্রন্থ এক্ষণেও স্থানে স্থানে প্রচলিত আছে। ঋৰিস্বর িদন গণই সঙ্গীত-শস্ত্রে সপ্তস্বর (স-রি-গা-মা প্রভৃতি f ) এবং সপ্তধ্যায় (স্বর, রাগ, তাল, নৃত্য ছবি, কোকা এবং হস্তু ) প্ৰবৰ্ত্তনা করিয়া গিনে। তারই সাধন ধারা ভরব, কৌশিক প্রভৃতি ছয় এবং গৌরী, টোরী, ভৈরবী প্রভৃতি রাগিণী ও তদন্তৰ্গত নানাবিধ উপরাগ স্বষ্টি ঝরিয়া গিয়াছেন। কোন সময়ে কোন রাগিণী প্রশস্ত, তাহাও sæ... ánæg... - مضجعه ويصد عميقه بصية منهم. rساتھ بے، مـجہ = * سینہ ہے۔ سہ = রাগ-রাগিণী সন্নিবেশ । جے پتہ e vাদাল সেন প্রণীত “ভারতবধের সঙ্গীত-শাম” ভ্রষ্টব্য।

  1. “क्षडिखाः शः श्वद्रः शङ्खखि: !१ीब्-ब१ाक्षाः ।

পঞ্চৰে ধৈৰভক্ষাপি নিষাদ ইতি সপ্ততে । তেৰাং স দ্রো; সরিগম-গধনিত্যপরামণ্ডt " স্বাগতে লোককে মোহিত করা যায়, তাছাই রাগ। যথা— “যন্ত শ্ৰবণমাত্রেণ রজ্যন্তে সকলtঃ প্রজাঃ । ৰ্ব্বাসাং রঞ্জনদ্ধেত্তেম্ভেন রাগ ইত স্মৃত: 1’ { "यs,३. o षधंl,-- rইরাগ্নোইখ ধলন্তণ, পঞ্চমে ভৈরবস্তৰ । शिष्याः शं नोनाशीभिः "