পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ج8 وی cशभनिकू-4कडांश । আমার যা আছে আমি সকল দিতে পারিনি তোমারে নাথ । আমার লাজভয় আমার মান অপমান মুখ দুখ ভাবনা । মাঝে রয়েছে আধরণ কত শত কত মত, তাই কেঁদে ফিরি, তাই তোমারে না পাই, মনে থেকে যায় তাইহে মনের বেদন ॥ যাহা রেখেছি তাহে কি সুখ, তাহে কেঁদে মীর তাহে ভেবে মরি, তাই দিয়ে যদি তোমারে পাই, (জানি না) কেন তা দিতে পারি না, আমার জগতের সব তোমারে দেব, দিয়ে তোমায় নেব বাসনা | ब्रांमeीमांगी ठूद्र । আমরা মিলেছি আজ মায়ের ডাকে । স্বরের হয়ে পরের মতন ভাই ছেড়ে ভাই কদিন থাকে ॥ প্রাণের মাঝে থেকে থেকে আয়ু বলে ওই ডেকেছে কে। সেই গভীর স্বরে উদাস করে আর কে কারে ধরে রাখে ॥ যেথায় থাকি যে যেখানে, বাধন আছে প্রাণে প্রাণে ; সেই প্রাণের টানে টেনে আনে - - সেইপ্রাণের বেদন জানে না কে! মান অপমান গেছে ঘুচে, নয়নের জল গেছে মুছে ; নবীন আশে হৃদয় ভাসে, ভাইএর পাশে ভাইকে দেখে। কত দিনের সাধন ফলে । মিলেছি আজ দলে দলে ; আজ স্বরের ছেলে সবাই মিলে, দেখা দিয়ে আয়রে মাকে ॥ ভৈরে!—বীপতাল । আমারেও কর মার্জন । আমারেও দেহ লাখ অমৃতের কণা। | l نے दांछांकौत्र नंॉन । গৃহ ছেড়ে পথে এসে বসে আছি মান বেশে, আমারে হদিয়ে কর আসন রচনা ৷ জানি আমি, আমি তব মলিন সস্তান, আমারেও দিতে হবে পদতলে স্থান । আপনি ডুবেছি পাপে কাদিতেছি মনস্তাপে শুনগো আমারো এই মরমবেদন ॥ கயகற মুলতান—একতাল।। | আমায়ু ছ'জনায়ু মিলে পথ দেখায় বলে, পদে পদে পথ ভুলি হে। নানা কথার ছলে নানান মুনি বলে, সংশয়ে তাই দুলি হে ॥ তোমার কাছে যাব এই ছিল সাধ, তোমার বাণী শুনে ঘূচাব প্রমাদ, কাণের কাছে সবাই করিছে বিবাদ, শত লোকের শত বুলি হে। কাতর প্রাণে আমি তোমায় যখন যাচি, আড়াল করে সবাই দাড়ায় কাছাকাছি, ধরণীর ধুলো তই নিয়ে আছি, পাইলে চরণ-ধূলি হে ॥ শত ভাগ মোর শতদিকে ধায়, তাপনা-আপনি বিবাদ বধায়, কারে সামালিব, একি হল দায়, একা যে অনেকগুলি হে। আমায়ু এক কর তোমার প্রেমে বেঁধে, এক পথ আমায়ু দেখাও অবিচ্ছেদ, ধাদার মাঝে পড়ে কত মরি কেঁদে, চরণেতে হৈ তুলি হে ॥ খটু-একতালা । আঁধার রজনী পোহাল, জগত পুরিল পুলকে ! বিমল প্রভাত কিরণে মিলিল দু’লোক ভুলোকে ॥ জগত নয়ন তুলিয়া, ছদয় হুয়ার খুগিয়া হেরিছে হৃদয়ন থেরে, আপন হৃদয়-আলোকে। প্রেমমুখহাসি র্তাহারি, পড়িছে ধরার আননে, কুহুম বিকশি উঠিছে, সমীর বহিছে কাননে। বুধরে আঁধার টুটিছে, দশ দিক্‌ ফুটে উঠিছে জননীর কেলে যেন রে, জাগিছেkলিক বালকে l_