পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/১৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দেবযান Ꮌ© Ꮔ করুণাদেবী বল্লেন—কর্মের বন্ধন স্বয়ং ভগবান কাটতে পারেন চোখের পলকে । তিনি ছাড়া আর কে পারে । —আমি কি করেছিলাম দেবী, কেন আমার এ দুর্ভাগ্য দুই জন্ম ধরে o —এরও আগের জন্ম দেখবে ? কিন্তু ছবি দেখাবো । সামনের আকাশে চাও—সে স্থান এখন আর নেই, প্রাচীন গৌড়ের নিকটবর্তী ক্ষুদ্র গ্রাম। সে জন্মে প্রথমা স্ত্রীর মনে কষ্ট দিয়ে দুবার বিবাহ করেছিলে। সে তোমায় বড় ভালবাসতো । সেজন্যে তাকে আর আপনার করে পেলে না পর পর দু’জন্মেও । সতীলক্ষ্মীর মনে বড় কষ্ট দিয়ে ত্যাগ করেছিলে । —সেও কি আশা ? —ß| | —তবে সে কে দেবী ? বলুন দয়া করে—সে কি অন্যত্র চলে গিয়েচে ? —সে এই তোমার পাশেই দাড়িয়ে । সতীলক্ষ্মী তোমায় ছাড়েনি, কিন্তু তোমার কর্মফলে তুমি ওকে পাচ্চ না। আমি পর পর দু'জন্ম চেষ্টা করচি, কিন্তু পেরে উঠচি কই ! পুষ্প অবাক হয়ে দেবীর মুখের দিকে চেয়ে রইল। এ সব কথা তার মনে নেই। করুণাদেবী বল্লেন—তারও পূর্ব জন্মে তোমার কর্ম আরও খারাপ। যাক্ এ সব কথা । তোমাকে তিন জন্মের কথা জানতেই হবে, এর কারণ আছে । পুপ, তুই কষ্ট পাবি আমি জানি । আমি চেষ্টা করবে। সে দুঃখ দূর করতে। যতীনকে ওর পূর্বজন্ম দেখালাম, কারণ ওর আত্মার প্রয়োজন হয়েচে । পুষ্প বিবর্ণ মুখে বল্পে-কেন দেবী ? করুণাদেবী ওর দিকে পূর্ণদৃষ্টিতে চেয়ে বল্লেন-যতীনকে পুনর্জন্ম গ্রহণ করতে হবে। পুষ্প জানে। সে জানে তার প্রশ্ন নিরর্থক । সে অনেকদিন থেকে বুঝতে পেরেচে। এই ভয়ই তার মন করছিল। যতীন চমকে উঠলো। এত অল্পদিনে আবার পুনর্জন্ম কেন ? কোথায় রইল আশা, কোথায় রইল পুপ-কার কাছে যাবে সে পৃথিবীতে ? তখনি তার মন বলে উঠলো—কেন, মায়ের কাছে। যার কোল আঁধার করে সে চলে colò I করুশাদেবী বলেন-যতীন, তোমার অন্তরাত্মা চাইচে ঐ দুঃখিনী মায়ের কোলে আৰাঁর ফিরে যেতে। তোমার মায়ের অন্তরাত্মা কাচে তোমার জন্তে । সেখানে যেতে হবে তোমাকে । এ বাধন এড়াবার যে নেই। মাতৃশক্তি জগতের মধ্যে খুব বড়। তা ছাড়া আশার জন্যে তোমাকে যেতে হবে ভূলোকে । ভুবর্লোকের কোনো উচ্চ স্তরে ও যেতে পারবে না-বেচারী ! গ্রহদেবকে আমি বলেচি, আশার অন্তরাত্মা কাদচে, অমৃতাপে সব পাপ মোচন হয়। আশাকেও জাবার পৃথিবীতে পাঠাবো–তুমি জন্মগ্রহণের কিছু পরে। এই পাচ ছ' বছর ওৰে নরকেই থাকতে হবে। তার আত্মা তাতে উন্নতি করবে। নিজের ভুল ক্রমশ বুঝৰে। এই জন্মে আমি আবার তোমাদের মিলিয়ে দেবো । বোধ হয় তোমাদের প্রারব্ধ ও জন্মে কেটে যাবে।