পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৩২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 बेिङ्कडि-ब्रळ्नांबजैौ সামনের ভদ্রলোকটি ছোট ছেলেটির হাতে একটি পয়সা দিয়ে বললেন,—দে, যা ভিখিরির হাতে দে । 制 ছেলেটি এগিয়ে গিয়ে বললে,—এই নাও ভিখিরি । ভদ্রলোক ধমক দিয়ে বললেন—ও কি, অমন বলতে নেই, ভিখিরি বলতে নেই। ছিঃ ! কানা ভিথিরি পয়সাটা নিয়ে একগাল হেসে ওঁর দিকে চেয়ে বললে,—পোলাপানের কথা, ওদের এখন গেয়ান কি হয়েছে বাৰু? খোকাবাবুর নাম কি ও খোকাবাবু ? বেজায় ধুলো উড়ে পেছন দিকটা আচ্ছন্ন করে ফেলেছে। প্রতুল ভাবছে, বাসের ছাদে তার বিছানার পুটলিটার ওপর সাত-পুরু ধুলো জমে গেল এতক্ষণ। 彎 রাস্তাও যে ফুরোতে চায় না। বড় বড় মাঠের ওপর রাস্তা, মাঝে মাঝে বিল আর ধানক্ষেত আর দু একটা চাষা-গঁ । কাত্তিক মাসের মাঝামাঝি, তেমন গবম নেই তাই নিস্তার, নইলে বাসে যা ভিড, গরমে, ভীষণ কষ্ট হোত, চলন্ত বাসেও গরম কাটত না। প্রতুল একবার মুখ বাডিয়ে দেখলে স্টেশন চোখে পড়ে কি না । বালুরঘাট থেকে যে মেয়েটি উঠেছে তার হাত থেকে একখানা বই হঠাৎ পড়ে গেল, বাসের বাকুনিতে। কোন একজনের পায়ের ঠোক্কর লেগে বইখানা বেঞ্চির ফাক দিয়ে গলে একেবারে এসে পড়ল প্রতুলের বেঞ্চির পায়ার কাছে। প্রতুল বইখান নীচু হয়ে তুলে দেখলে, কলেজপাঠ্য ইংবেজী বই—এটু ভিক্টোরিয়ান পোয়েটুল’ । ও সেখান উচু করে তুলে ধরে মেয়েটির দৃষ্টি আকর্ষণ করে বললে,—“আপনার বইখানা পড়ে গিয়েছে, এই যে " হাতে হাতে বইখান মেয়েটির হাতে গিয়ে পৌছল। প্রতুল এতক্ষণ ভাল করে লক্ষ্য করেনি; বাসে যে কটি মেয়ে আছে, সব চেয়ে এই মেয়েটি সুন্দরী, গায়ের রঙ ধপধপে ফরস, বয়স কুডির বেশি নয়, এখনও বিয়ে হয়নি। কলেজের ছাত্রী তা তে বোঝাই গেল। . কোন কলেজে পড়ে ? নাম কি মেয়েটি? বালুরঘাটে কার মেয়ে ? —ছিলি । হিলি ! বড় বড় টিনের চালা ও শিরীষ গাছের সারি দেখা দিয়েছে—হিলির বাজার। স্টেশনের লিথগুলি দেখা যাচ্ছে । —ওরে, নে, জুতো পরে নে সব, ছিলি এসেছে। হ্যাগ, সে পানের কোঁটোটা কোথায় ? দেখ দেখ, বেঞ্চির তলায় পড়ে গিয়েছে। ব’স না চুপ করে, গাড়ী দেখবি তো ইষ্টশান আমুক । কটা জিনিস গুনে নাও। এক, দুই, তিন, চার—গাড়ীর ছাদে আছে এক, দুই, তিন। আসাম মেলের ডাউন দিয়েছে। 尊 ছড়মুড় করে যাত্রীরা সব নামতে আরম্ভ করেছে, বাসের ছাদ থেকে কওক্টর মাল নামিয়ে কুলিদের মাথায় চাপাচ্ছে, গোলমাল সেখানটাতে যেমন, ভিড়ও তেমনই।