পাতা:বিভূতি রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড).djvu/৪৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিভূতি-রচনাবলী مCb ১ । স্থানীয় হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার-গদাধরবাৰু। ২ । স্কুলের শিক্ষক, মহাদেববাবু। ৩ । স্টেশন মাস্টার । ৩ । পোস্ট মাস্টার । ৫। অtডতদার মূপেন সরকার । ৬ । . কবিরাজ মশাই । ৭ । প্রাইমারি স্কুলের পণ্ডিত মশাই । ৮ । চামড়ার খটিওয়ালা রজবালি বিশ্বাস । ৯ । বস্ত্র-ব্যবসায়ী রামবিষ্ণু পাল । ১০ । আমি । ১১ । সভাপতি । এদের মধ্যে অনেকে সভায় বক্তৃত। কখনও দেয়নি। সভায় দাড়িয়ে উঠে, মুখ শুকিয়ে গলু কাঠ হার চোখে সর্বের ফুল দেখে বক্তার আর কিছু বলবারনা পেয়ে, গোঁর পিওনকে একেবারে আকাশে তুলে দিলে । না, গদাধর ডাক্তার মন্দ বললেন না। মহাদেববাবু বৃদ্ধ হোলেও শিক্ষিত ব্যক্তি, মোটামুটি গুছিয়ে দু-চার কথা যা হোক একরকম হোলো । স্টেশন মাস্টার হাত-পা কেঁপে অস্থির । পোস্ট মাস্টার খুব ভালো বললেন, তবে অনভ্যাসের দরুণ একটু বাড়াবাড়ি হয়ে গেল । বকৃতার শেষে তিনি বোকের মাথায় একেবারে ছুটে এসে—‘ভাই রে গোঁর ? আজ আর তুমি ছোট আমি বড়ে নই, আজ তুমি আমার ভাই।’—বলে একেবারে নিবিড় আলিঙ্গনে গৌর পিওনকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন । দস্তুরমত 'সীন’ যাকে বলে। লোকে মজা দেখে খুব হাততালি দিয়ে উঠলো । তারপরই আড়তদার নৃপেন সরকার। বেচারি অত হাততালির পরের বক্তা। জীবনে এই সর্বপ্রথম তিনি সভায় দশজনের উৎসুকদৃষ্টির সামনে দাড়িয়েছেন। বেচারী প্রথমেই বলে ফেললেন, “আমরা একজন মহাপুরুষের বিদায়-উৎসব সভায় একত্র হোয়েচি। যাকে বলা হচ্চে সে পর্যন্ত অবাক হয়ে গেল। কবিবুজ মশাই সংস্কৃত শ্লোক-টােক আবৃত্তি করে সভাটাকে কুশণ্ডিকার আসর করে তুললেন। মানুষের মধ্যে ব্রহ্ম বাস করেন, অতএব গোঁর পিওন ছোট কাজ করতে বলে ছোট নয়, সেও ব্রহ্ম। উপনিষদের ঋষিদের তপোবনের এই আবহাওয়া বইয়ে দেবার পরে প্রাইমারি স্কুলের পণ্ডিত বেচারি মহা ফাপরে পড়লেন, কিন্তু তার চেয়েও ফাপরে পড়লো চামড়ার খটিওয়ালা— রজবালি বিশ্বাস । *e স্কুলের পঞ্চিত ভালোমচুৰ লোক, ইউনিয়ন ৰোর্ডের প্রেসিডেন্টের গুণ ব্যাখ্যা করে বক্তৃত৷ শেষ করলেন । 尊