পাতা:বিভূতি রচনাবলী (একাদশ খণ্ড).djvu/১৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$4.9 বিভূতি-রচনাবলী অনঙ্গ ডাকিল—খাবে এসে । গদাধর এ-সন্দ ও-সন্দ করিতে-করিতে খাইয়া গেলেন। নিজ হইতে তিনি কোনো কথা তুলিলেন না, বা অনঙ্গও কিছু বলিল না। আহারাদি শেষ করিয়া গদাধর শষ্যায় গুইয়া ভাবিতে লাগিলেন, ব্যাপারখানা কি ? বড় শালা কাহাকে লইয়া বাড়ীতে আসিল•••সে গেলই-বা কোথায়•••তাহার আসিবার উদ্দেগুই-বা কি-অনঙ্গ কিছু বলে না কেন? সে রাত্রি এমনি কাটিয়া গেল । পরদিন গদাধর চা খাইতে বসিয়াছেন সকালে, অনঙ্গ সামনে বসিয়া নিম্নকণ্ঠে বলিল – ওগো, একটা কাজ ক’রে ফেলেচি—বকবে না, বলো ? —কি ? —আগে বলো, বকবে না ? —তা কখনো হয় ? যদি মানুষ-খুন করে থাকে, তবে বকবো না কি-রকম ? —সে-সব নয়। কাল দাদা এসেছিল, তার একশো টাকার নাকি বডড দরকার ! তোমাকে লুকিয়ে দিতে বলে। আমি তোমাকে লুকিয়ে কখনো কোনো কাজ করেচি কি ? এ-টাকাটা আমি দিয়েছি কিন্তু । —খুব অন্যায় কাজ করেচো। এ-টাকা সেই পঞ্চাশ টাকা বাদে । -ई-म-ईT, उी दांटमहे ! গদাধর আশ্চর্য হইয়া গেলেন। পঞ্চাশ টাকা তিনি স্বেচ্ছায় দিয়ে গেলেন, ইহাই যথেষ্ট । আবার তাহ বাদে আরও একশো টাকা লোকটা ঠকাইয়া আদায় করিয়া লইয়া গেল ! তিনি গরুরগাড়ী হইতে শালাকে নামিতে দেখিয়া তখনই ফিরিয়া আসিলে পারিতেন—তাহা হইলে এই একশো টাকা আক্কেল-সেলামি দিতে হইত না। বলিলেন—সে গুগুটি এক ছিল ? —ও আবার কি-ধরণের কথা দাদার ওপর ? আমন বলতে নেই, ছিঃ ! হাজার হোক, আমার দাদা, তোমার গুরুজন । আমাদের আছে, আত্মীয়-স্বজনের বিপদে-আপদে হাত পেতে যদি কেউ চায়, দিতে দোষ নেই। দাদার সম্বন্ধে অমন বলতে আছে ? তার বুঝ সে বুঝবে—আমরা ছোট হতে যাই কেন ? g গদাধর আরও রাগিয়া বলিলেন–টাকা আমার গুও বদমাইশদের মধ্যে বিলিয়ে দেবার জন্তে হয় নি তো ? কেন বলবো না, একশোধার বলবো । এ কেমন অত্যাচার, শুনি ? আছে বলেই ভগ্নিপতির কাছ থেকে তার সিন্দুক ভেঙে টাকা নিয়ে যাবে ? —সিন্মুক ভেঙে তো নেয় নি—কেন মিছে চেঁচামেচি করচো ! —আমি এসব পছন্দ করি নে। সৎকাজে টাকা ব্যয় করতে পারা যায়—ত ব'লে এই সব জুয়োচোর আর গুণ্ডাকে--- 腺 —আবার ওই সব কথা দাদাকে ? ছি, অমন বলতে নেই। টাকা গেল-গেল, তৰু তো লোকের কাছে ছোট হলাম না ।