পাতা:বিভূতি রচনাবলী (তৃতীয় খণ্ড).djvu/২৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কেদার রাজা ఫిEషి —হ্যা, আমার এই মেয়েটি একবার বাগান দেখতে এসেছে— -याई८ग्नবেশ বাগান। প্লভাসদের বাগানের চেয়ে বড় না হলেও, নিতান্ত ছোট নয়। অনেক রকম ফুলের গাছ, ফুল ফুটেও আছে অনেক গাছে—সানবাঁধানো পুকুরের ঘাট, খানিকটা জায়গা তার দিয়ে ঘেরা তার মধ্যে হসি এবং মুরগী আটকানো। খুব খানিকটা এদিক-ওদিক লিচুতলা ও আমতলায় অন্ধকারে বেড়ানোর পরে ওরা একেবারে বাগানবাড়ির সামনের সরকি বিছানো পথে গিয়ে উঠল। বাড়ির বারান্দা থেকে কে একজন প্রৌঢ়কণ্ঠে হাঁক দিয়ে বললেন, কে ওখানে ? কেদার বললেন, এই আমরা । বাগান খেতে এসেছিলাম— একটি পঞ্চাশ-পঞ্চান্ন বছরের বন্ধ ভদ্রলোক ধপধপে সাদা কোঁচানো কাপড় পরে খালি গায়ে রোয়াকে এসে দাঁড়িয়ে বললেন, আসন আসনে—সঙ্গে মা রয়েছেন, তা উনি বাড়ির মধ্যে যান না ? আমার মন্ত্রী আছেন— - শরৎ পাশ পাচিলের সর দরজা দিয়ে অন্দরে ঢুকলো । কেদার রোয়াকে উঠতেই ভদ্রলোক তাঁকে নিয়ে উপরে চেয়ারে বসলেন । বললেন, কোন বাগানে আছেন আপনারা ? —এই দখোনা বাগানের পাশে । প্রভাসকে চেনেন কি বাব ? —না, আমি নতুন এ ধাগান কিনেছি, কারর সঙ্গে চেনা হয় নি এখনও। -তামাক খান কি ? —আজ্ঞে হ’্যা তা খাই—তবে আমার আবার হ্যাঙ্গামা আছে—ব্রাহ্মণের হুকো না থাকলে— —আপনি ব্রাহ্মণ বঝি ? ও, বেশ বেশ । আমিও তাই, আমার নাম শশিভূষণ চাটুজে— ‘এ’ড়েদার’ চাটুজে আমরা । ওরে ও নন্দে, তামাক নিয়ে আয়— দুজনে কিছুক্ষণ তামাক খাওয়ার পরে চাটুতেজ মশাই বললেন, আচ্ছা মশাই—এখানে টেক্স এত বেশী কেন বলতে পারেন—আমার এই বাগানে কোয়াটারে আট টাকা টেক্স । আপনি কত দেন বলন তো ? না হয় আমি একবার লেখালেখি করে দেখি—কলকাতায় আপনারা থাকেন কোথায় ? কেদার অপ্রতিভ মথে বললেন, আমার বাগান নয়—আমাদের বাড়ি তো কলকাতায় নয়। বেড়াতে এসেছি দু-দিনের জন্যে—কলকাতায় থাকি নে— —ও, আপনাদের দেশ কোথায় ? গড়শিবপরে ৯ সে কোন জেলা ? ও, বেশ বেশ । —বাব কি এখানেই বাস করেন ? —না, আমার পীর শরীর ভাল না, ডাক্তারে বলেছে কলকাতার বাইরে কিছুদিন থাকতে । তাই এলাম—যদি ভাল লাগে আর যদি শরীর সারে তবে থাকবো দু-তিন মাস ! বেশ হ’ল মশায়ের সঙ্গে আলাপ হয়ে । আপনার গানটান আসে ? কেদার সলঙ্গ বিনয়ের সরে বললেন, ওই অলপ অলপ। —তবে ভালই হ’ল—দুজনে মিলে বেশ একটু গান-বাজনা করা যাবে। কাল এখানে এসে বিকেলে চা খাবেন । বলা রইল কিন্তু-বাজাতে পারেন ? —আজ্ঞে, সামান্য । —সামান্য-টামান্য না । গণেী লোক আপনি দেখেই বুঝেছি। এখন খালি গলায় একখানা শুনিয়ে দিন না দয়া করে ? তার পর কাল থেকে আমি সব যোগাড়যন্ত্র করে রাখবো এখন । - কেদার একখানা শ্যামা বিষয় গান ধরলেন, কিস্ত অপরিচিত জায়গায় তেমন সবিধে