পাতা:বিশ্বকোষ ঊনবিংশ খণ্ড.djvu/৪৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


बऋनर्भ (हैश्ब्रांञ्ज-भांनन ) चिं★रिक दक्ष कäिब्रां पठांशांरभद्र ऐयांनर्दद स्रश्रृंहब्र१ कब्रिड । काणि औभांद्रनग्न पcङ्ग *शेषेिणैव्र cनोब्रांज्रा निबॉब्रिड श्ॐ 1 এই সময়ে এতদ্দেশীয় লোকদিগকে সংস্কৃভ কিংবা ইংরাজী তাৰায় শিক্ষা দেওয়া উচিত কি না, এই বিষয়ে ঘোর আন্দোলন উপস্থিত হয়। অধ্যাপক উইলসন সাহেৰ সংস্কৃতের পক্ষ ছিলেন এবং প্রসিদ্ধ গর্ত মেকলে ও টী ৰেলিয়ান সাহেব পাশ্চাত্য জ্ঞানछ5ीब्र अंद्रांजनौब्रङ cनथॉरेंद्र हेरश्नांबौब्र *क नमर्थन कtब्रन १ গভর্ণর জেনায়লের বিচারে ইংরাজীরই জয় হয়। ১৮৩৫ অব্দে কলিকাতায় ‘মেডিকেল কলেজ’ সংস্থাপিত হইয়াছিল। লর্ড বেfণ্টঙ্কের সময়ে বিচার বিভাগের অনেক পরিবর্তন ঘটে—“প্রক্তিন্সিয়াল কোর্টগুলি” উঠিয়া বান্ধ এবং "রেডিনিউ কমিসনরী”-পদ্ধের স্মৃষ্টি হয়। “কালেক্টরের" ফৌজদারী মোকক্ষমার বিচার ক্ষমতা পান এবং জজের দেওয়ানী ও ধামরায় মোকদম করিবেন, স্থির হয় । ১৭৯৩ খৃঃ অব্দে “মুন্সেী’ এবং ১৮০৩ খৃঃ অৰে “সম্বর আমিনী’ পদের সৃষ্টি হয়। এপর্য্যস্ত দেশীয় লোকেই ঐ পদ পাইতেন । লর্ড বেণ্টিঙ্ক এদেণীয়ের নিমিত্ত "প্রধান সদর জামিনী’ পদেরও হুষ্ট করেন। ঐ পদের মাসিক বেতন ৫০০ টাকা মিৰ্দ্ধারিত হয় এবং প্রধান সদর আমিন সকল প্রকার দেওয়ানী মোকদ্দমা করিতে অধিকারী হন । ১৮৩৩ খৃষ্টাব্দে “ডেপুটী কলেষ্টার” নিযুক্ত হইবার নিয়ম হয়। এই কৰ্ম্মও এতদ্দেশায় লোকে পাইতেন । লর্ড বেণ্টিঙ্কের শাসনকালে ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত “প্রভাকর” নামক সংবাদপত্র প্রচার করেন ( ১৮৩০ খৃঃ ) এবং রাজা রামমোহন রায় কলিকাত ব্ৰাহ্মসমাজ সংস্থাপন করিয়াছিলেন (১৮২৯ খু: ) । ভারতবাসী হিন্দু ভদ্রলোকদিগের মধ্যে বোধ হয়, রাজা রামমোহন রায়ই প্রথম ইংলণ্ডে যান ( ১৮৩৪ খু: ) এবং তথায় তিনি মানবলীলা সংবরণ করেন ( ১৮৩৩ খু: )। রামমোহন রায় অনেক বাঙ্গালা গ্রন্থ রচনা করিয়াছিলেন । - [ রামমোহন রায় ও ব্রাহ্মসমাজ দেখ। ] ১৮৩৫ খৃঃ অঙ্গে লর্ড বেণ্টিঙ্ক স্বদেশে যাত্র করেন ; এবং স্বতন্ত্র গভর্ণর জেনারল না আসা পর্য্যন্ত মেটকাফ, সাহেব তৎকার্য্যে নিয়োজিত হন। তাহার শাসন সময়ে ও র্তাহারই যত্নে ইংরাজী ও বাঙ্গাল মুদ্রাঘন্ত্রের স্বাধীনতা সংস্থাপিত হয়। মেকলে সাহেব এ বিষয়ে যথেষ্ট পোষকতা করিয়াছিলেন। ১৮২৬ হইতে ১৮৪২ খুঃ অন্ধ পর্যন্ত লর্ড অক্লাও গবর্ণর • गर्छcमकरण ७८नt५ “ल'कमिश्रन” भोभक विदि य१प्रन गठीब्र वक्षाक शरेंद्र थांहनन । छिक्रि *छ{अकबरँग्न पyनिषिद्र" यषण पां★निगि «खठ कर्मधश्चह्निभ { Xyl] [ 8७> } }}tు ধঙ্গদেশ (ইংরাজ-শাসন ) জেনারল ছিলেন। তাহার সময়ে কাবুলে ইংরাজদিগের বিলক্ষণ দুর্দশা ঘটে। বাঙ্গালায় হগলী কলেজ ( ১৮৩৬ খৃঃ ) এবং ঢাকা কলেজ ( ১৮৪১ খৃ: ) স্থাপিত হয় । ১৮৪২ হইতে ১৮৪৪ খৃঃ অঙ্গ পৰ্য্যস্ত লড় এলেনবরোর শাসনকাল ; তাহার আমলে কাৰুলে ইংরাজের জয়ী হইয়া মানে মানে ফিরিয়া আসেন এবং সিন্ধুদেশ কোম্পানির রাজ্যভূক্ত হয় । লর্ড এলেনবরো “ডেপুটী মাজিষ্ট্রেট” পদের গৃষ্টি করেন । র্তাহার শাসনকালে তত্ত্বৰোধিনী পত্রিক প্রকাশিত হয় (১৮৪৩ খু: ) এবং অক্ষয়কুমার দত্ত ঐ পত্রিকার সম্পাদক হন । [ ৰাঙ্গালাভাষা দেখ । } ১৮৪৪ হইতে ১৮৪৮ খৃঃ অঙ্গ পর্যন্ত হার্ডিঞ্জ সাহেব গবর্ণর জেনেরল ছিলেন । তিনি শিখদিগের সহিত যুদ্ধে জয়লাভ করেন । তাহার সময়ে “হার্ডিঞ্জ স্কুল” নামে কতকগুলি গৰমেন্ট বাঙ্গালী বিদ্যালয় ও কৃষ্ণনগর কলেজ ১৮৪৬ খৃষ্টাৰে সংস্থাপিত হয়। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর মহাশয় এই সময়ে বেতালপঞ্চবিংশতি প্রকাশিত করেন ( ১৮৪৭ খৃঃ ) । ১৮৪৮ খৃঃ অব্দে লর্ড ডালহৌসী এ দেশের গবর্ণর জেনেরল হন । র্তাহার শাসনকালে পঞ্জাব, পেগু, সাতারা, নাগপুর, ফঁাসি, অযোধ্যা ও বেরার কোম্পানীর অধিকারভুক্ত হইয়াছিল। বহরমপুর কলেজ সংস্থাপন ১৮৫৩ খৃঃ অঃ ঘটে ও ১৮৫৫ খৃষ্টাব্দে হিন্দু কলেজ “প্রেসিডেন্সি কলেজে” পরিণত হইয়া যায়। অনেকগুলি গবমেণ্ট আদর্শ বঙ্গবিদ্যালয় এবং বাঙ্গালায় স্ত্রীজাতির বিদ্যাশিক্ষার জন্ত কলিকাতায় বেথুন বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয় । এই সময়ে সর চালর্স উড়, প্রণীত ১৮৫৪ খৃঃ অব্দের শিক্ষাবিষয়িণী অনুমতিলিপি আইসে এবং তদনুসারে “কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের” সুত্রপাত হয়। ঐ সঙ্গে বিদ্যালয় সম্বন্ধে গবমেন্টের “গ্রান্ট ইন এড়’’ প্রথাও প্রবর্তিত হইয়াছিল। এই উপলক্ষে শিক্ষাবিষয়ক কমিটি উঠিয়া যায়, এবং বিদ্যাধ্যাপনের “ডাইরেক্টর,” “ইনস্পেক্টর” প্রভৃতি পদের স্মৃষ্টি হয় । লর্ড ডালহৌসীর যত্নে এ দেশে ইষ্ট ইণ্ডিয়া রেলওয়ে এবং তারের খবর স্থাপিত হয় (১৮৫২ খুঃমঃ) । “পোষ্ট্রাল ডিপার্টমেন্ট” সংস্থাপিত হইয়া ডাকের মাশুল কমিয়া যায়। ১৮৫৩ অব্দে ইষ্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানি পার্লিয়ামেণ্ট মহাসভা হইতে যে সনন্দ প্রাপ্ত হন, তদ্বারা বাঙ্গালায় “লেফটেনাণ্ট গবর্ণর” নামে একজন স্বতন্ত্র শাসনকৰ্ত্ত নিয়োগের আদেশ হয় এবং এতদেশবাসিগণ বিলাতে যাইয়া “সিবিল সাৰ্ব্বিস” পরীক্ষা দিতে অনুমতি পান। সর ফ্রেডরিক হেলিডে বাঙ্গালার প্রথম লেফটেনাণ্ট গবর্ণর হইয়া আসেন ( ২৮ এপ্রিল, ১৮৫৪ খৃষ্টাব্দ)। ১৮৫৬ অব্দে বিদ্যাসাগর মহাশয়ের চেষ্টায় বিধবাবিবাহ ব্যবস্থা বিধিবদ্ধ হয়।