পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/১৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাতন e [ సిy ] পাতারি - ৯ । ক্ষেমানন্দদীক্ষিতকৃত স্যায়রত্নাকর বা নবযোগফল্লেtল । ১০ । গণেশদীক্ষিতের পতঞ্জলবৃত্তি । ১১ । ভু নানন্দ বিরচিত যোগসুত্রবিবুতি । ১২। নারায়ণভিক্ষু বা নারায়ণেগ্রসরস্বতীকৃত যোগস্থত্রগুঢ়াৰ্ধদ্যোতিক। ১৩ । ভক্টদেবকৃত পাতঞ্জলীয়াভিনবভাষ্য। ১s । ভবদেবরচিত যোগস্থত্রবৃত্তিটিপ্পণ । ১e , ভোজ রাজকৃত রাজমাৱঁও । ১৬ । মহাদেবরচিত যোগসুত্রবৃত্তি । ১৭। রামানন্দসরস্বতী কৃষ্ঠ যোগমণিপ্রস্তা । ( বৈরাসিকভাষাসন্মত ) ১৮। স্নামানুজকুত যোগসুত্র তথ্য । ১৯। বৃন্দাবন শুক্লরচিত যোত্রস্রবৃত্তি । ২• । শঙ্কর ব৷ শিবশঙ্ক রকুত যোগধুত্তি । ২১ । সদাশিবরচিত পতঞ্জ লস্বত্রবৃত্তি । ২২ । রাঘবনশাযfতকৃত পতঞ্জল রহস্ত । ২৬। শ্ৰীধয়াননা যুক্তিকৃত পতঞ্জলন্ধহস্তপ্রকাশ । আর্য্যপঞ্চাশীতি নামে একখানি যোগগ্রন্থ দৃষ্ট হয়, কাহারও মতে এই গ্রন্থ পতঞ্জলি প্রণীত, এখানি বৈষ্ণবমত-পরিপোষক । অভিনব গুপ্তরচিত শৈবমতপোষক অীর একখানি যোগগ্ৰস্থ পাওয়া যায় । পতড় ( দেশজ । ১ একপ্রকার খাদ্যদ্রব্যবিশেষ । ইহা পাতে করিয়া পোড়াইয়া লইতে হয়, এই জন্য বোধ হয়, পাতড়া নাম হইয়াছে। ২ গ্রন্থবিশেষ, গদাধর ভট্টাচাৰ্য্য প্রভূতির দ্যায়ের অনেক পাতড়। গ্রন্থ আছে । ৩ পাত্ৰীবশিষ্ট । পাতড়ামার। ( দেশজ ) ১ যাহার লোকের বাড়ীতে অনাহূত ভাবে ভোজন করিয়া বেড়ায় । ২ পাত্রাবশিষ্ট আহর । পাতত্রিন (পুং) পতন্ত্রী তচ্ছদেহস্তাত্রাধায়ে অনুবাকে বা ! বিমুক্তাদিত্বাদণ, । ( পা ৫২।৬১ ) ১ পতত্ত্বি শব্দ যুক্ত অধ্যায়। ২ অঙ্কুবাক । পতন ( কী ) পত-শিচ্‌ ভাবে লুটুি ৷ অধোনয়ন। উদ্ধাধস্ত্যিকৃপাতনাদিভারসস্ত নালাবিধ শুদ্ধিরুক্ত ॥" ( রত্নাবলী ) স্বেদন, মৰ্দ্দন, উত্থাপন, পাতনাদি ৮ প্রকার পারদের সংস্কার বিহিত হইয়াছে। তন্মধ্যে রসেম সারসংগ্রহের মতে, পাতন তিনপ্রকার, উৰ্দ্ধ, অধঃ ও তির্যাক্ । উদ্ধপাতন—তিনভাগ পারদ এবং একভাগ তাম্রচুর্ণ মিশ্রিত করিয়া জম্বীর নেবুর রসে মৰ্দ্দন করিয়া পিণ্ডাকার করিতে হুইবে । তাহার পর নিম্নভাণ্ডে ঐ পিগু রাখিয়া উদ্ধ ভাণ্ডের নিম্নে দ্রব লেপন করিয়৷ তদুপরি জল দিতে হইবে । পরে সন্ধিস্থান দৃঢ়বন্ধ করিয়া অগ্নিসস্তাপে পারদ আহরণ করিবে । নিম্নদেশে তামসহ বঙ্গাদি দোষ সকল পতিত থাকিবে । উৰ্দ্ধদেশে সপ্ত কঞ্চক বজিত নিৰ্ম্মল পারদ উঠিবে। উহাই উৰ্দ্ধ অধঃপাতল—লাউয়া-গন্ধক ও জম্বীর রস সহ পারদ একদিন মর্দন করিয়া পিণ্ডাকার করিতে হইবে । অনস্তর শুকশিম্বী, সজিনা, অপামার্গ, সৈন্ধবলবণ ও শ্বেতসর্ষপ, একত্র পেষণ করিয়া উহার সহিত মিশ্রিত করিবে । রে উৰ্দ্ধভাণ্ডের মধ্যভাগে লেপ দিয়া ও অধোভাওে জল দিয়া পরে উভয় ভাণ্ডের সন্ধিস্থল লেপন করিয়া উপরিভাগে অগ্নি দিতে হইবে, পরে পুট দিলে উছাতে উদ্ধ হইতে পারদ জলে পতিত হয়। এই অধঃপতন পারদই কার্যে প্রয়োগ করিবে । তির্যাক্ পাতন—একটা ঘটে পারদ রাখিয়া অন্ত একটী ঘটে জল রাখিবে । এই উভয় পাত্র তিৰ্য্যকৃভাবে একত্র করিয়া মুখসন্ধিতে লেপ দিয়া পারদপূর্ণ ঘটের নিম্নে জাল দিলে পারদ তিৰ্য্যগ্‌ভাবে জলমধ্যে পতিত হয় । ইহাই তির্বাক্পাতন । ( রসেন্দ্রসারসং ) ৯ বিস্তারণ। ৩ বিদ্যাস । ৪ বিনাশন । ৫ পতনকারক। স্ক্রিয়াং গেরাদিত্বাৎ ডীম্। পাতনামা ( দেশজ ) ১ আরম্ভ, উপক্রম। ২ অভিসন্ধি । পীতনীয় ( ত্রি ) পত-শিচ্‌ অনীয়র। পাতনযোগ্য । পাতলা ( দেশজ ) স্থা। হালক। অল্প ওজন । পাতয়িত্ব (ত্রি ) পত-পিছ কুছ। পতনকর্তা। পাতল্য ( ক্লী) পাতনশীল। “ইন্দঃ পাতলে দদতাং” ( ঋক ৩৫৩।১৭ ) ‘পূণতল্যে পতনশীলে’ ( সায়ণ ) পীতব্য (ত্রি ) পাতব্য। ১ রক্ষিতব্য, রক্ষার যোগ্য । ২ পালযোগ্য । পাতশ (পারসী ) বাদশাহ, সম্রাটু। পীতামাঢ়ি, আসামের গোয়ালপাড়া জেলার অন্তর্গত একখানি গ্রাম, ধুবড়ির ৯ মাইল দক্ষিণে ব্রহ্মপুত্র নদের দক্ষিণতীরে অবস্থিত। এথান হইতে বিস্তর পাট রপ্তানি হইয়। থাকে। এখানে ডাকঘর আছে ও প্রতি সপ্তাহে এক ট বৃহৎ হাট বসে । পাতারি, যথবার জাতির এক শাখা। এই জাতি-নির্দেশক পাতান্নি শব্দের উৎপত্তি সম্বন্ধে দুইটী মত আছে। কেহ বলেন, ংস্কৃত পত্রবর্ণিক অর্থাৎ লেখক শব হইতে হইয়াছে। ইহাতে বোধ হয় যে, পাতারির পূৰ্ব্বে গোন্দ মঝবারদিগের পুরোধিত ও বংশাবলিলেখকের কার্য্য করিত। অপর মতে গোন্দ ভাষায় পাত (পবিত্র স্থান ) শব্দ হইতে পাতারি শব্দের উৎপত্তি হইয়াছে। মীর্জাপুরে পাতারির চারি শ্রেণীতে বিভক্ত। এই চারিভাগে আবার অনেকগুলি থাক আছে । পাতারির বলে যে, তাহার। পূৰ্ব্বে মঝবার ছিল এবং সকলেই সাত ভ্রাতার বংশধর, পুরোহিতের অভাব হওয়ার