পাতা:বিশ্বকোষ ত্রয়োদশ খণ্ড.djvu/৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বালি s স্বালসিন, দাৰ্জিলিঙ্গ জেলায় প্রবাহিত একটা নী। জগৎলেপছা নামকু ভূভাগ হইতে উত্থিত হইয়৷ এই নদী তরাই অভিমুখে | আসিয়া দুইটী শাখায় বিভক্ত হইয়াছে। নুতন বালাসন নামক শাখা শিলিগুড়ির দক্ষিণে মহানদীতে মিশিয়াছে এবং অপরটা পূর্ণিয় জেলার মধ্য দিয়া প্রবাহিত হইতেছে। এই নদীতীরবর্তী পাৰ্ব্বত্য জঙ্গলময় তলাই প্রদেশে নানা দ্রব্যের চাষ হয় । বালাতুর (পুং ) অসুরভেদ । ( হেম ) লাহেরা, রাজপুতনার জয়পুর রাজ্যের অন্তর্গত একটা নগর । আগা হইতে আজমীর যাইবার গিরিপথে অবস্থিত । অক্ষা” ২৬ ৫৭' উঃ এবং দাঘি” ৭৬ ৪৭ পূ: এথানকার পাৰ্ব্বতান্তর্গ ১৮শ শতাদের শেষভাগে শিনে সেনানী ডি বয়নি কর্তৃক বিদ্ধস্ত হয় । বালি (পুং ) বালে কেশে জাতঃ বাল-ইএ কপিবিশেষ । বানরদিগের অধিপতি । পর্যায়—ঐন্দ্র, বালী । ( ত্রিকা” ) রামায়ণে লিখিত আছে, আছে । একদিন কমললোনি রহ্মা এষ্টস্থলে যোগাভ্যাস করিতেছিলেন, 6ድ মেরু নামে এক শ্রেষ্ঠ পৰ্ব্বত । | এই পৰ্ব্বতের কোন একটা শুঙ্গে ব্রহ্মসভা প্রতিষ্ঠিত । সহসা তাঙ্কার নেত্রযুগল চষ্টতে অশ্রুবিন্দু পতিত হয়। পতিত । চষ্টবামাত্র তাচাতে এক বানর উৎপন্ন চষ্টল। ইচ্চার নাম ঋক্ষরাজ । ব্রহ্মা এই বানবকে দেখিয়া কহিলেন, তে বানর । তুমি এই অমরবৃন্দের বিচারভূমি সুমের শৈলে আসিয়া নানাবিধ ফলমূল ভক্ষণ করিয়া নিয়ত আমার নিকট বাস কর । একদা এই বানর তৃষ্ণায় নিতান্ত কাতর হইয়া উত্তর মেরুশিখরে গমন করিল, তথায় একটী সরোবরে আপনার মুখচ্ছায়৷ অবলোকন করিয়া ভাবিল, আমার সদৃশ ইহাকে দেখিতেছি, এই বানর আমার পরম દ,િ অতএব ইহাকে অচিরে বিনাশ করা কর্তব্য । এই ভাবিয়া ঐ জলমধ্যে লম্ফ দিয়া পড়িল । পরে ঐ বানর হ্রদ হইতে উঠিয়া মনোহর স্ত্রীরূপ ধারণ করিল। ইত্যবসরে ইন্দ্র ও স্বৰ্য্য উভয়েই এই কামিনীকে অবলোকন করিয়া মন্মথের বশবৰ্ত্তী হইলেন । ক্রমে ছাদের ধৈর্য্যচু্যতি ঘটিল। অবশেষে ইন্দ্র এই রমণীকে লাভ করিতে না পারিয়া তাহার মস্তকে স্থলিতবীৰ্য্য পাতিত করিয়া নিবৃত্ত হইলেন । এদিকে দিবাকরও কন্দপের বশীভূত হইয় তাহার গ্রীবায় নিষিক্ত বীজ নিক্ষেপ করিলেন । এইরূপে ইন্দ্র ও সূর্য উভয়েই মদনব্যথা হইতে নিস্কৃতি পাইলেন। অনন্তর ঐ রমণী বাসবের বীর্য্য অমোঘ জানিয় তাহা হইতে এক শ্রেষ্ঠ বানরকে উৎপাদন করিল । ইহার নাম হুইল বালি । গ্রীবানিপতিত বীজ হইতে সুগ্ৰীব হইল । এইরূপে ইন্দ্র হইতে বালি এবং সূর্য্য হইতে সুগ্ৰীবের উৎপত্তি হইল। XIII J 够 বালি সেই দিন অতিবাহিত হইলে ঋক্ষরাজ পুনরায় বানররূপ প্রাপ্ত হইল। পরে দুই পুত্রকে লইয়া ব্ৰহ্মার নিকট উপস্থিত হইলে ব্ৰহ্ম কিষ্কিন্ধ্যায় গিয়া রাজ্য করিতে আদেশ দেন। বিশ্বামিত্র এইখানে একটা মনোরম পুরী নিৰ্ম্মাণ করেন। বালি এই নগরীতে বানরগণের রাজা হইয়া অবস্থান করে। ইষ্ঠার দুষ্টজন অতিশয় বলবান ছিল, ত্ৰিজগতে কেচই । ইচাদের সমকক্ষ ছিল না । বালির প্রধান মহিষীর নাম তারা । সুগ্ৰীবের পত্নীর নাম রুমা । একদিন কোন এক মায়াবী দৈত্যের উপদ্রবে বালি স্বীয় ভ্রাতাকে পাতালদ্বারে রাখিয়া দৈত্যকে বিনাশ করিবার জন্য পাতালে গমন করিল। কালবিলম্ব দেখিয়া সুগ্ৰীব ইকার মৃত্যু নিশ্চয় করে, পরে ঐ দ্বারদেশে একখণ্ড বুকুৎ প্রস্তর স্থাপন করিয়া কিষ্কিন্ধ্যায় আসিয়া বালির মৃত্যুসংবাদ প্রচার করে। বালির মুতু্য হইয়াছে শুনিয়া মন্ত্রীরা তাহাকেই রাজা করিল। পরে সুগ্ৰীব তারার সহিত মিলিত হইয়া মুখে রাজত্ব করিতে লাগিল। এইরূপে কিছুদিন অতীত চইলে বালি ঐ দৈতাকে বিনাশ করিয়া গুচাদ্বারে উপস্থিত হইয় প্রস্তর দেপিতে পাষ্টল। বানরপতি পদাঘাতে সেই প্রস্তর ভাঙ্গিয় স্বীয় ভবনে প্রত্যাবৃত্ত হইল । বালি আসিয়া সুগ্ৰীবকে রাজ্য ও পত্নীভোগ করিতে দেখিয়া রোষাবেগে তাঁহাকে বিনাশ করিতে উদ্যত হইল । সুগীব পলায়ন করিয়া মাতঙ্গের আশ্রয় গ্ৰহণ করিল। বালী স্বয়পত্নী তার এবং ভ্রাতৃপক্ট্রী রুমাকে লষ্টয়া মুথে বাস করিতে লাগিল । কোন সময়ে রাবণ বালিকে পরাজয় করিবার অভিলাষে কিষ্কিন্ধ্যায় আগমন করেন, তখন বালি দক্ষিণ সাগরে সখ্য। করিতেছিল । রাবণ তথায় উপস্থিত হইলে বালি তাহাকে কক্ষে করিয়া আর তিনটী সাগর পরিভ্রমণ করিয়া সন্ধ্যা শেষ করিল। ইহাতে রাবণ বিশেষরূপে পরাজয় স্বীকার করিলে বালি তাহাকে পরিত্যাগ করিয়াছিল । সুগ্ৰীব বিতাড়িত হইয়৷ মতঙ্গাশ্রমেই কালাতিপাত করিতে থাকে । রাবণ সীতাহরণ করিলে পাম ও লক্ষ্মণ সীতার অনুসন্ধানে গিয়া মতঙ্গা শ্রমবাসী সুগ্ৰীবের সহিত বন্ধুত্বস্থাপন করেন । সুগ্ৰীবের সাচানা করিমে প্রতিশ্রত হইয়। রামচন্দ্র বালিকে বধ করেন । বালিবধ হইলে পুনরায় সুগ্ৰাপ কিষ্কিন্ধ্যার সিংহাসনে বসিল এবং বালিতনয় অঙ্গদ যুবরাজ হুইল । লঙ্কাধিপতি রাবণের সহিত যুদ্ধ করিবার সময় এই বালিতনয় অঙ্গদ ও সুগ্ৰীব সেনাপতি হইয়া বহুলক্ষ বানরবাহিনী দ্বার রামচন্দ্রের সাহায্য করিয়াছিল । (রামা কিষ্কিন্ধ্যা ও উত্তরকাণ্ড ) বালি, হুগলী জেলার দারিকেশ্বর নদীতীরবর্তী একটা নগর। অক্ষা ২২° ৪৮′ ৫০%উঃ এবং দ্রাঘি" ৮৭° ৪৮' ৪৬ পূঃ।