পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


খড়ি

মুগযুঘরসং তক্রং ধান্য জীরকসংযুতম্। সৈন্ধবং সহিতং দদ্যাৎ খড়্যুমিতি স্থতম্।।” (ভাৰপ্ৰকাশ) খড়র (হিন্দুস্থানী ) ঘোড়ার গা পরিষ্কার করিবার লোহার

চিরুণী । খড়বান [২] (ত্রি) খড় চাকুরর্থিক মতুপ মস্ত বঃ। ( মধবাদিভ্যশ্চ । পা ৪২৮৬ ) থড়ের সন্নিহিত দেশাদি। খড়া (দেশজ ) ১ সংবাদ । ২ ইটের ভাজ । খড়াকাটা ( দেশজ ) চিহ্নিত (পাত্রাদি । ) খড়াকান (দেশজ ) চৰ্ম্মঘাস। (শব্দসার) খড়ি (খটা শব্দের অপভ্রংশ) প্রস্তরবিশেষ। এই জাতীয় প্রস্তর হইতে শ্লেট পেনসিল ও হাতে-খড়ি দিবার খড়ি প্রস্তুত হয় । খড়ি বা চা-খড়ি-ভূতত্ত্ববিদেরা এই খড়ির উৎপত্তি সম্বন্ধে যে সিদ্ধান্তে উপনীত হইয়াছেন, তাহা হইতে বুঝা যায় যে প্রাণীদেহ হইতেই চা-খড়ির উৎপত্তি। ,জগৎ প্রাণী দেহে পরিপূর্ণ, কি বায়ু, কি স্থল, কি জল, সকল স্থানেই প্রাণী প্রচুর পরিমাণে বিদ্যমান। এই সকল প্রাণীয় দেহ মৃত্যুর পর ভূপতিত হয়। মৎস্ত, শামুক প্রভৃতির অস্থিগুলি জলেয় নিয়ে থাকে, তাহার সেইখানেই মরে, তাহাদের অস্থি প্রভৃতি সেইখানেই থাকিয় যায় । সমুদ্র ও বড় বড় হ্রদের তলদেশে এইরূপে অনেক প্রাণীদেহ জমিয়া থাকে। মাটী ও জল ভূমি হইতেও এই সকল গিয়া নদীগর্ভে পতিত হয়। নদীগর্ভস্থ অন্তান্ত দ্রব্যের সহিত স্রোতে এইগুলি ভাসিয়া গিয়া কথন ব দ্বীপে পরিণত হয়, কখনও বা সাগরগর্ভে লীন হয় । এইগুলি সমবেত হইয় একটী স্তররূপে পরিণত হয় । সমুদ্রের লোণজিলের সংস্রবে চূণ ও অর্ম জানের রাসায়নিক ক্রিয়া দ্বারা এই স্তয় ক্রমশঃ শুভ্রবর্ণ ধারণ করে ও উপরের স্তরের চাপে ক্রমশঃ কঠিন হইতে থাকে। ইংলণ্ডের পশ্চিম আয়লগু হইতে আমেরিকায় যখন টেলিগ্রাফের তার সমুদ্রের অভ্যস্তর দিয়া লইয়া যাওয়া হয়, তখন গভীর জলের নিয়ে মাটা তুলিয়া দেখা গিয়াছে যে তাহ ঠিক অপরিষ্কৃত চা-খড়িয় মত । ইহাকে ইংরাজীতে উজ’ অর্থাৎ কাদা কহে। ইহার অল্পাংশ লইয়া অণুবীক্ষণযন্ত্র যোগে পরীক্ষা করায় ইহাতে ছোট ছোট ঝিনুক ও শামুক চূর্ণ দেখিতে পাওয়া যায়। চা-খড়ি গুড়। করিয়া এক গ্লাস জুলে দিলে গ্লাসের নিয়ে একটী স্তর পড়ে । জল ফেলিয়া নিম্নস্থ স্তর হইতে অল্পাংশ লইয়া অণুবীক্ষণ দ্বারা দেখিলে এইরূপ ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিণুক ও শামুক পূর্ণাবয়ব ও ভগ্নাবস্থায় দেখিতে পাওয়া যায় । অষ্টাদশ শতাব্দীর প্রথমে y [ లిరి ) 黨 খড়িকা খাওয়া , - --- সুইডেনের পণ্ডিত লিনেয়স খড়িকে জীবদেহজ বলিয়া মত প্রদান করেন। আধুনিক পণ্ডিতগুণও বিশেব প্রমাণ দ্বারা সেই সিদ্ধান্ত ঠিক বলিয়া স্থির করিয়াছেন। আধুনিক ভূবেত্তাগণ পৃথিবীর জীবলকে ৪ ভাগে বা চারিযুগে বিভক্ত করিরাছেন । তন্মধ্যে ২য় যুগ ত্রিস্তর বা নুতন লোহিত প্রস্তর-অস্তরযুগ, জুরাসিস্তু অস্তরযুগ ও চ-খড়ি বা ক্রিটেলস অন্তরযুগ এই ভিনভাগে বিতক্ত চা-খড়ির অন্তরযুগের অধিকাংশ স্তরই চা-খড়ি নিৰ্ম্মিত বলিয়া উক্ত হইয়াছে। ইহার পূৰ্ব্বেও চা-খড়ি ছিল, কিন্তু এই সময় ইহার বাহুল্য হয় বলিয়া ইহাকে এই নামে অভিহিত করা হইয়াছে । সার চার্লস লায়েল ও অধ্যাপক রামজে বলেন যে, গ্রেটব্রিটেন পুরাকালের একটা বৃহৎ মহাদেশের কোন প্রকাগু নদীর ব দ্বীপের অবশেষ মাত্র । জোয়ার ভাটার কার্য্যবশতঃ সমুদ্রজলের সছিত মিশ্রিত চাখড়ি সেই নদীর ব দ্বীপে জমিয়া পৰ্ব্বতাকার হইয়াছে। সেই মহাদেশের কতকস্থান এখন জলমগ্ন হইয়াছে। এখন ইংলণ্ডের কেন্ট ও সসেক্স প্রদেশে যে সকল চা-খড়ির পর্বত আছে তাহ ঐ ব দ্বীপ হইতেই উৎপন্ন। ভারতের খসিয়া পৰ্ব্বতও সেই সমর প্রস্তুত হইয়া থাকিবে । কিন্তু এখানে সেরূপ খড়ি নাই। ফ্রান্স, জৰ্ম্মনী, ডেনমার্ক, সুইডেন, রুষিয়া ও উত্তর আমেরিকার পর্বতে খড়ির স্তর দেখা যায়। . চা-খড়ি সময়ে সময়ে আগ্নেয়-প্রস্তরের সহিত মিশ্রিত দেখিতে পাওয়া যায়। কখন চুণ ও কর্দমের সহিত থাকে । খড়ির স্তর কখন সমানভাবে পৃথিবীর স্বাভাবিক সঙ্কোচনে থাকে। কখন বা ভূগর্ভস্থ অগ্ন্যুৎপাতে এই সকল স্তর স্থানে স্থানে বিকৃত ও বিপৰ্য্যস্ত দেখা যায়। এদেশে আমরা যে চা-খড়ি দেখিতে পাই, তাহার অধিকাংশই বিলাত হইতে আসে । খড়ি বা খড়িয়া, বৰ্দ্ধমান জেলার বুদবুদ বিভাগের অন্তর্গত ধান্তক্ষেত্র হইতে উদ্ভূত একটা নদী বক্রপথে ভ্রমণ করির दछ्रज्ञ मनोहे नांगक छांtन छठीग्नशैौtऊ भिणिठ श्हेग्रांटझ, মিলিত হইবার পূৰ্ব্বে বাকী নামক একটি নদী চম্পানগরীতে গোপালপুর হইতে বাহির হইয়া বৰ্দ্ধমান নগর দিয়া এই খড়ির নদীতে পড়িয়াছে। খড়িক (ত্রি ) খড়মস্তান্ত খড়ঠন । খড়যুক্ত। খড়িক (স্ত্রী) খড়-গৌরাদিত্বাং উীব ততঃ স্বার্থে কন্‌ পুৰ্ব্ব হ্রস্বশ । কঠিনী । ( জটাধর ) খড়িকা খাওয়া (দেশজ) ভোজন অস্তে যে সঙ্ক কাঠ বা যে সরু छू१ चाङ्गा मैंiउ *ब्रिकांद्र कब्र श्छ, फणिउ कथांग्र ऐशएक খিড়িকা খাওয়া’ বলে। • - - *. *