পাতা:বিশ্বকোষ ষষ্ঠ খণ্ড.djvu/৬৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*omono क्षूणां * ১৬৩২ ] , झऋ too छकुक (*५९) जड-शांcर्ध-कन् । २ जरू । (পুং) জন্তুশ্চেত্তনাবিশিষ্ট কৰুং।। কৃমিশঙ্খ, জীবিত শখ। छख़क (औ) जरुचिः कांबकि थकानप्ङ जरु-टेक-क ऐान् । » गांचक । २ मां ऊँौशित्रू । झङ्नुश्च (*१) चंम् झषैौन् इखि श्न-छैश् ।। १ ौख्रश्न चिं, फ्रेयीনেবু। (ক্ষী ) ২ বিড়ঙ্গ। ৩ হিজু, হিং । (ত্রি) ৪ প্রাণিঘাতক। ऊङ्घैी ( ौ ) खडिश-विप्रांश् Gौथ् । तिस्रश्नं । জন্তুনাশন (ক্লী) জঞ্ছন কীটান নাশয়তি নশ্বণিচ লু) । ১ হিজু। (भू९) २ दिएक्लन्न । জন্তপাদপ ( পুং ) জন্তু প্রধান পাদপঃ। ८क७ङ्कां । ( ब्रांछब्रि°) । জন্তুফল (পুং) জস্তব কীটাঃ ফলে যন্ত । উচ্চুম্বর বৃক্ষ, যজ্ঞডুমুর । জস্তমৎ, জস্তমান (ত্রি) জস্তব সস্ত্যন্তাং বাহুল্যেন মতুপ্ত। যাহাতে অধিক পরিমাণে ( কীটাদি ) জন্তু থাকে। স্ত্রীলিঙ্গে खङ्गळुभङौ । জন্তুমারিন (পুং) জন্তু মুণিছ ইনি। জীবঘাতী । জন্তুমারী (স্ত্রী) জম্ভন কমীন মারস্থতি মৃ-শিচ্‌ জৰ্‌-ভীৰু। নিকবৃক্ষ, •ोडिएमबू। জন্তুল (স্ত্রী) জন্তুন কীটান লাতি আদদাতি জন্তু-লা-ক টাপ্ত। কাশতৃণ, ইহাতে অনেক কীট থাকে বলিয়া এই নাম হইয়াছে, কেশে । জন্তুহী ( স্ত্রী ) জন্তুন হস্তি হন তৃচ্‌ স্ক্রিয়াং ভীষ । ১ বিড়ঙ্গ । (ত্রি ) ২ জন্তুঘাতক । জন্তু (ত্রি) জন কৃত্যার্থে ত্বন । জনিতব্য, যাহা জন্মিবে। खाम्रा (अश्रन्) (क्लो) छाब्रुङ हेडि छन्-सेभानिक भनिन्। ১ উৎপত্তি, উদ্ভব । ২ আদ্যক্ষণ সম্বন্ধ । ৩ অপূৰ্ব্ব দেহগ্রহণ । ( দ্যায়।) পৰ্য্যায়-জন্তুঃ, জন, জনি, উদ্ভব, জন্ম, জনী, প্রভব, ভাব, ভব, সংভব, জনু, প্রজনন, জাতি । ব্রহ্মবৈবৰ্ত্তপুরাণ পাঠে জানা যায় যে প্রাণি মাত্রেরই স্ব স্ব উপার্জিত সৎ বা অসৎ কৰ্ম্ম অনুসারে উৎকৃষ্ট বা অপকৃষ্টরূপে জন্ম হইয়া থাকে। বৈস্তক মতে—ঋতু হওয়ার পরে যোনিক্ষেত্র পদ্মের স্তায় বিকলিত হয়, ঐ সময়েই শোণিতবিশিষ্ট গর্ভাশয় বীৰ্য্য ধারণ করিয়া থাকে। অন্ত সময়ে যোনিক্ষেত্র মুকুলিত থাকে । কিন্তু ঋতু সময়ে ও উহা বাত, পিত্ত ও শ্লেষ্মাতে आठूउ शाकिरण पनि विकनिङ न श्छ, ठाश श्हेप्ण अर्ड७ ছয় না । ঋতুকাল উপস্থিত হইলে যদি অবিকৃত বীৰ্য্য নিষিক্ত হয়, তবেই উহা বায়ুগতিতে চালিত হইল্প গ্ৰী-শোণিতের गश्कि भिणिज्र क्षु । मै नभएछारे बिबिख दौरर्थी कष्ट्र-गुज्र কোষাম বৃক্ষ, জীব জালিয়া সম্পৃক্ত হয়। এক দিন পরে উহাতে কলল জন্মে। পাচ রাত্রিতে সেই কলল বুদবুদ্ৰাকৃতি ধারণ করে । ঐ বীর্ঘ্য শোণিতময় বুদবুদে সাত রাজিতে মাংসপেশী ও চুই সপ্তাহ পরে রক্তমাংসে ব্যাপৃত হইয় দৃঢ়, পঞ্চবিংশতি রাত্রিতে পেশীবীজ অঙ্কুয়িত এবং এক মাসের সময় পাচভাগে বিভক্ত হইয়া থাকে। তাহার এক ভাগে কণ্ঠ, গ্রীব ও মস্তক ; দ্বিতীয় ভাগে পৃষ্ঠ, বংশ ও উদর, তৃতীয় ভাগে পাদদ্বয়, চতুর্থভাগে হস্তদ্বয়, পঞ্চমভাগে পাশ্ব ও কটি। পরে দুই মাস হইলে ক্ৰষে সকল অঙ্গ তা হইতে থাকে। তিন মাসে সৰ্ব্বাঙ্গের সন্ধিস্থান সকল উৎপন্ন হয় । চারিমাসে অঙ্গুলি এবং অঙ্গের স্থিরতা জন্মে। পাচ মাসে রক্ত, মুখ, নাসিক ও কর্ণদ্বয় ; ষষ্ঠমাসে বর্ণ, বল, রোমাবলী, দন্তপংক্তি, গুহ এবং নখ, ষষ্ঠমাস অতীত হইলে কর্ণদ্বয়ের ছিদ্র, পায়ু, উপস্থ, মেঢ়, নাভি ও সন্ধি সকল উৎপন্ন হয়। ঐ সময়ে মন অভিভূত হয়, জীবও চৈতম্ভযুক্ত হইয় পড়ে । স্নায়ু এবং শির সকল ও ঐ সময়ে জন্মে । সপ্তম বা অষ্টম মাসের মধ্যে মাংস জন্মিয়া উহ চৰ্ম্মে আবৃত হইয়া পড়ে। ঐ সময়েই জীবের স্মরণশক্তি জন্মে এবং অঙ্গ প্রত্যঙ্গ সকল পরিপূর্ণ ও সুব্যক্ত হয় । নবম ৰ দশম মাসে প্রাণী জরাক্রান্ত হইয়া প্রবল প্রসববায়ু কর্তৃক চালিত হয় এবং যোনিছিদ্র দ্বার বাণবেগে নির্গত হইয় পড়ে । চঞ্চলচিত্তে গর্ত উৎপাদন করিলে প্রাণীর আকার বিকৃত, মাতৃরক্তের আধিক্যে কন্যা, পিতৃবীৰ্য্যের আধিক্যে পুত্র, উভয় বীৰ্য্য তুল্য হইলে নপুংসক সস্তান জন্মে। কোন কোন পণ্ডিত বলেন বিষম তিথিতে গর্ভোৎপাদন হইলে কক্সাসস্তান জন্মে আর সম তিথিতে গর্ভোৎপাদন হইলে পুত্র জন্মে। গর্ভ বামভাগে থাকিলে কষ্ট এবং দক্ষিণভাগে থাকিলে পুত্র হয় । গর্ভের সময় শোণিতাংশ অধিক হইলে গর্ভস্থ শিশু মাতার আকৃতি গ্রহণ করে, আর শুক্রের অংশ অধিক হইলে পিতার আকৃতি গ্রহণ করে । মিশ্রিত শুক্র শোণিতময় গর্ভ বায়ু কর্তৃক বিভক্ত না হইলেই একটা মাত্র সন্তান প্রস্থত হয় । চুই ভাগে বিভক্ত হইলে হুইটী সস্তান জন্মিয় থাকে অনেক ভাগে বিভক্ত হইলে বামন, কুজ প্রভৃতি নানারূপ বিকৃত অথবা সৰ্প অণ্ড প্রভৃতি জন্মে । সারকলিকায় লিখিত আছে-যোনিযন্ত্রের পীড়নদুঃখ গর্ভর্যন্ত্রণা হইতেও কোটা গুণ। উদয় হইতে নির্গমণের সময় শিশুর মুচ্ছ হইয় থাকে। শিশুর মুখ মল, মুত্র, শুক্র ও শোণিতে আচ্ছাদিত হয় । অস্থিবন্ধন সকল প্রাজাপত্য ৰাতে আক্রান্ত হয়। প্রবল স্থতিক বায়ুতে শিশুকে অধোমুখ