পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রোমসাম্রাজ্য • بيا] | রোমসাম্রাজ্য মন্দিরে বলি রহিত হইয়া গেল। মন্দিরে পূজা ও উৎসবের আয়োজন হইত বটে, কিন্তু তাহাতেও বিশ্বাস বা হৃদয়ের আগ্রহ ছিল না। পৌত্তলিকপূজা ও আরাধনা ছাড়িয়া যখন তাহার জ্ঞানময় পরব্রহ্মের উপাসনা করিতে শিখিল, তখন তাহারা প্রকৃত সত্যধৰ্ম্মের আশ্রয় লাস্ত করিল। ক্রমে তাহারা হিংসা-দ্বেষ ভূলিল। পরস্থাপহরণ বা পরের জীবন-নাশ করিয়া অতুল ঐশ্বৰ্য্যের অধিপতি হইতে আর তাহারা অভিরুচি প্রকাশ করিল মা । বিমল স্বৰ্গীয় আনন্দ লাভ করিয়া তাহার ইচ্ছাময়েরই ইচ্ছাধীন হইয়া রহিল। ক্রমে তাহাদের চিত্তবৃত্তি জড়ের স্থায় নিৰ্ব্বিকার ও নিশ্চেষ্ট হইয় একমাত্র ধৰ্ম্মান্বেষণেই ব্যাপৃত রহিল। যাহারা পূৰ্ব্ব হইতেই ঐশ্বৰ্য্যসুখে মত্ত ছিলেন র্তাহারাও এপিকিউরিয়াসের “নাচ গাও পান কর প্রফুল্লিত মন ।” রূপ ধৰ্ম্মতত্বেরই অনুসরণ করিয়া চলিলেন। খৃষ্টায় ৮ম শতাদের শেষভাগে সম্রাট সার্লিমেনের অভু্যদয়ে ও তাহারই সহানুভূতিতে সমগ্র যুরোপ ভুমে খৃষ্টধৰ্ম্ম প্রচারিত হইয়াছিল। খৃষ্টধর্মের এই অমিত-প্রভাব পশ্চিম সাম্রাজ্যে যতদুর বিস্তারলাভ করিয়াছিল, পূৰ্ব্বাঞ্চলে ততদুর পারে নাই । রোমকগণ খৃষ্টধৰ্ম্মে আস্থাবান হইয়া ক্রমশঃই আপনার ধৰ্ম্মস্রোতে ভাসমান হইলেন। রোমুলাস অগাধুলাসের ৪৭৬ খৃ: রাজাসন ত্যাগ হইতে যতই প্রজাতন্ত্রের প্রসার বৃদ্ধি পাইতে লাগিল, ততই নবধৰ্ম্মে দীক্ষিত খৃষ্টানসম্প্রদায়ের আধিপত্য রোমে বিস্তৃত হইয়া পড়িল। খৃষ্টান, রোমক প্রজাবৃন্দ মুশিক্ষাগুণে লৌকিক-রাজ্যে রাজার পরিবর্তে ধৰ্ম্মগুরুকেই আধ্যাত্মিক জগতের সর্বময় কর্তা করিয়া তুলিলেন । ধৰ্ম্মপ্রচার ও বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে ক্রমে তিনি রোমক-সমাজে ‘রাজগুরু’ বলিয়া পূজিত হইলেন। রোমের পোপ খৃষ্টানজগতের রাজচক্রবর্তী হইয়া বিভিন্ন প্রাদেশিক নৃপতিবর্গের উপর আধিপত্য চালাইতে লাগিলেন। তিনিই নরপতির পতি ; রোমের সাৰ্ব্বভৌমত্ব তাহার করতলগত । তিনি ইচ্ছা করিলে ধৰ্ম্মবিধি-লঙ্ঘনকারী রাজাকেও রাজ্যচ্যুত করিতে পারিতেন। এমন কি, মুদূর ইংলেণ্ডের রাজা বা রাণী একসময়ে পোপের শাসনে ধৰ্ম্মসীমা xfiyôs ( Excoinmunicated ) xfiiii cvtf.rs হইয়াছিলেন । শারীরিক বলের অপেক্ষা এক্ষণে রোমের মানসিক বা নৈতিক বল অধিক পরিস্ফুট হইয়াছিল। খৃষ্টান, যীশু ও পোপ শব্দ দেখ। ] এই নূতন ধৰ্ম্মবলে রোমকগণ প্রকাশ্বে হীনবল ন হইলেও ধৰ্ম্মাভিব্যক্তির কোমলতায় তাহদের উদ্ধামচিত্তবৃত্তিসমূহ শিথিল ও নিস্তেজ হইয়া পড়িল। যুদ্ধৰিষ্কার তাহারা সম্পূর্ণরূপে অনভ্যস্ত ও অশিক্ষিত রছিলেন। এমন সময়ে ৫৭ খৃষ্টাব্দে মক্কানগরে ইসলাম ধর্থের অভু্যদয়। প্ৰবৰ্ত্তক মহম্মদ যেরূপে প্রতিহিংসা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা উল্লঙ্ঘন করিয়া স্বীয় পুণ্যধৰ্ম্ম প্রতিষ্ঠা করিয়াছিলেন, তাহ রোমক ও মুসলমানজাতির ইতিহাসে লিপিবদ্ধ রহিয়াছে। মহম্মদের মদিনায় পলায়ন হইতেই ইসলামধৰ্ম্মের প্রতিষ্ঠা। রাষ্ট্রবিপ্লবের মধ্যে মহম্মদীয়গণ অস্ত্ৰধারণপূর্বক আপনাদের প্যাগম্বরকে রক্ষা করিয়াছিলেন। র্তাহারা আপনাদের ইসলামধৰ্ম্মে অবিশ্বাসী বা বিরোধীকে শস্ত্রবলে পদানত করিতে কুষ্ঠিত হন নাই। অচিরে আরববাসী পবিত্র ইসলামধৰ্ম্ম গ্রহণ করিল। সুযোগ্য আলী ধৰ্ম্মগুরু ও সম্প্রদায়ের অধিনায়ক হইলেন। ক্রমে আরবীয় ও সারাসেনগণ ধৰ্ম্মবলে ও নবীন উদ্যমে পারস্ত, সিরিয়া, মিশর, আফ্রিকা ও মুদূর স্পেনরাজ্য অধিকার করিল। হতবীৰ্য্য রোমকগণ ইহাদের সমরে পরাজিত হইলেন। খৃষ্টান্‌ দিগকেও এই সময়ে নানা নিৰ্য্যাতন ভোগ করিতে হইয়াছিল। [ মহম্মদ ও মুসলমান দেখ। ] মুসলমানসাম্রাজ্য বিস্তারের সঙ্গে প্রতিভাশালী খলিফাগণের আবির্ভাব ঘটিল। খলিফা সুলেমানের রাজত্ব সময়ে আরবগণ ৭১৬ খৃষ্টাব্দে কনস্তান্তিনোপল অবরোধ ও ফ্রান্স আক্রমণ করেন। ওম্মইদ ও আব্বাসাইদবংশীর খলিফাগণের যত্নে মুসলমানগণ জ্ঞান ও মুথৈশ্বৰ্য্য বৃদ্ধি করিয়াছিলেন খলিফা ওমার ও হারুণ-অপ্রসিদের বীরত্ব ও প্রতিভার পরিচয় ইতিহাসে বিশদরূপে বিবৃত আছে। খলিফাগণের ভোগবিলাসই মুসলমান প্রভাবের কাল হইল। অর্জিত সাম্রাজ্যের নানা স্থানে নানা বিশৃঙ্খলা ঘটিল। স্থানে স্থানে খলিফার অধীনস্থ শাসনকর্তা বা সেনাপতিগণ স্বতন্ত্র স্বতন্ত্র রাজপাট স্থাপনে যত্নশীল হইলেন (৭৮১ হইতে ৯৯০ খৃষ্টা পৰ্য্যন্ত)। দেখিতে দেখিতে বিস্তীর্ণ রোমসাম্রাজ্য থও থও মুসলমানরাজ্যে পরিণত হইল । এই সময়ে অর্থাৎ খষ্টীয় ১০ম শতাৰে তুর্কজাতি মহাপ্রভাবসম্পন্ন হইয়াছিলেন। তাহদের বলবীৰ্য্যে রোমসম্রাট গণ পুন: পুনঃ বিপৰ্য্যস্ত হইয়া শ্ৰীশ্ৰষ্ট হইয়া পড়েন। সালজুকবংশীয় তুর্কসর্দার তুঘরালবেগ ও জাফর পারস্য জয় করিয়া খলিফাগণের সহযোগিতা করিতে লাগিলেন। সর্দার আল্প, আসলান, গ্ৰীকসাম্রাঞ্জী ইউডোসিয়াকে পরাস্ত করিয়া রাজদণ্ড হস্তগত এবং উক্ত সাম্রাঙ্গী ও সম্রাটু রোমানাস ডাইওজেনিসকে বন্দী করিলেন (১০৬৪ খৃঃ )। তৎপরে ১০৭২ খৃষ্টাব্দে মালিক শাহ এলিয়ামাইনর ও জেরুজালেম অধিকার করিয়া বসিলেন । ইহার পরে খৃষ্টীয় ক্রয়োদশ শতাদের প্রারস্তুে মোগলসর্দার চেঙ্গিস ধা ও শেষভাগে তৈমুরলঙ্গ রোমসাম্রাজ্য লুণ্ঠন করিয়া লগুভও করিয়া দিলেন। তদনন্তর ১৪৪৮ খৃষ্টাব্দে তুর্ক হস্তে রোমসম্রাট