পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৫৯১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তলকাবেরী প্রাচীন তলকাড় নগরের অট্টালিকাগুলি বালুকাস্তুপে সম্পূর্ণরূপে ঢাকা রহিয়াছে। ক্ষুদ্র পৰ্ব্বতবৎ এই বালিরাশি [ Óv~ ] ऊव्7त्र পাঠায়। প্রতিবর্ষে মন্দিরের জন্য গবর্মেন্টের প্রায় ২৩২-\ प्लेको दाम्न श्झ । প্রায় ১ মাইল দীর্ঘ প্রতিবর্ষে ১০ ফিটু করিয়া বালুকাস্ত,প তলকোট (পুং ) বৃক্ষবিশেষ । “তলকোটন্ত বীজেযু পচেছুৎ বৃদ্ধি পাইতেছে। উক্ত বালুকাস্তুপে ৩-টা মলির গ্রাস कब्रिग्राcझ् ।। ५हे भनिब्रसगिब्र भtशा २ौद्र डेफ़उम ठूज़ এখনও দৃষ্টিপখে পতিত হয়। কোন কোন পর্বোপলক্ষে কীৰ্ত্তিনারায়ণের মন্দিরের বালুকারাশি কিয়ুৎপরিমাণে অপ সারিত করা হইয়া থাকে। এই নগরের প্রায় সকল অংশই বালুকাময় ; বর্তমান অবস্থা দেখিলে প্রতীতি হয় যে, শীঘ্রই অবশিষ্টাংশ বালুকাচ্ছাদিত হইবে। স্থানীয় লোকগণ বলেন যে, এই নগরের শেষ রাণী এই স্থান বালুকায় পরিণত হইবে এইরূপ অভিসম্পাত করিয়া কাবেরীজলে পতিত হইয়া নিজ জীবন পরিত্যাগ করেন। তলকাড়ের অধিবাসীদিগের মধ্যে প্রায় সকলেই হিন্দু। ১৮৬৮ খৃঃ অন্ধ পৰ্য্যন্ত তলকাডু নসাপুর তালুকের প্রধান সহর ছিল । সংস্কৃত ভাষায় ভলকাড়কে দলবন কহে । দল-বনপুর নামেও ইহার উল্লেখ দেখা যায়। তলকাড়ের প্রাচীনতম ইতিহাস পাওয়া যায় না। খৃঃ অন্ধ হইতে ইহার উল্লেখ দৃষ্ট হয়। উক্ত অব্দে গঙ্গবংশীয় হরিবস্ম তলক ড়ে তাহার রাজধানী স্থাপন করেন। ৬ষ্ঠ শতাব্দীতে এই বংশীয় অন্ত এক রাজা ভলকাড়ের দুর্গাদি সংস্কার করেন । ৯ম শতাব্দীর শেষভাগে চোলরাজগণ তলকাড় শাসন করিতে থাকেন। চেরবংশীয়গণ কিছুদিন এই স্থান আপনাদিগের অধীনে রাখিয়াছিলেন । ১০ম শতাব্দীতে তলকাড়ে হয়সালবল্লালবংশের রাজধানী ছিল । ১৬শ শতাব্দীতে পুনরায় গঙ্গবংশীয়দিগের জয়পতাকা এই নগরে উড়িতে আরম্ভ করে। শিবসমুদ্রের পরাক্রমেই এই স্থান পুনরায় গাঙ্গেয়ুদিগের হস্তগত হয় । কিন্তু এই বংশীয় তিন জনের অধিক রাজা তলক ড়ে রাজত্ব করিতে পারেন নাই । পরে ইহা বিজয়নগরের জনৈক করদ রাজার অধীনে আসিল । অবশেষে ১৬৩৪ খৃঃ অন্ধে মহিমুরের হিন্দুরাজা যুদ্ধে জয়ী হইয়া তলকাডু অধিকার করিয়া লইলেন । তলকাবেরী, কাবেরী নদীর উৎপত্তি স্থল। কোরগ প্রদেশে পশ্চিমঘাট পৰ্ব্বতের ব্রহ্মগিরি অংশে অক্ষা ১২° ২৩%১ •%উঃ ও দ্রাঘি ৭৫' ৩৪ ১০" পূঃ। এই স্থানে একটা দেব মন্দির আছে। অনেক হিন্দু্যায়ী প্রতিবর্ষে এই স্থানে আগমন করে। কাৰ্ত্তিক অথবা অগ্রহায়ণ মাসে তলমাস পর্বোপলক্ষে বহুতর লোক এই স্থানে স্নান করিয়া থাকে। এই কালে কোড়গের প্রত্যেক পরিবার থানার্থ এক একজন প্রতিনিধি Հ Ե Ե কারিকাং গুভাং ।” (সুশ্রুত ) * তলঘাট, মাম্রাজ বিভাগের সালেম জেলার দক্ষিণাংশ। পূৰ্ব্বকালে এই প্রদেশ কোসুদেশের অংশভুক্ত ছিল। কোঙ্গুংশীয় রক্ট এবং গঙ্গরাজগণ চেল-রাজগণের পূৰ্ব্বে এই প্রদেশ শাসন করিতেন । খৃষ্টীয় পঞ্চম শতাব্দীতে কোম্বুবংশীয় রাজগণ নন্দিদুর্গ পৰ্য্যস্ত ও ৮ম শতাব্দীতে তুঙ্গভদ্রানদীতীরস্থ হরিহর পর্য্যস্ত আপনাদিগের রাজ্য বিস্তৃত করিয়াছিলেন । ৮৯৪ খৃঃ অব্দে ইহার চোলবংশ কর্তৃক আপনাদিগের অধিকার চু্যত হন। ১১শ শতাব্দীর মধ্যভাগে চোলরাজগণের অধীন অনেক সামস্ত প্রবল হইয়া উঠিলেন । ইহাদিগের মধ্যে হয়শাল বংশীয় কোন সামন্ত ১০৮০ খৃঃ অক্সে সালেম প্রদেশ অধিকার করিলেন । ১৩১৩ খৃঃ অব্দে এই প্রদেশ মুসলমানদিগের হস্তে পড়িল । কিছুকাল পরে ইহা বিজয়নগর রাজ্যভুক্ত হইল । ১৬শ শতাব্দীর শেষভাগে এই প্রদেশে নায়কগণের আধিপত্য দেখা যায়। ১৭৯৯ খৃঃ অবো ক্রীরঙ্গপত্তনের অবরোধের পর ইহা বৃটিশরাজ্য ভূক্ত হইয়াছে। তলতাল (পুং ) তলেন করতলেন ಈ ੁਝ কৰ্ম্মণি ঘএ{ ভস্ত ল। কলতল দ্বারা বাদনীয় বাদ্যভেদ। "আক্ষেটয়ন খেলয়ংশ তলতালঞ্চ বাদয়ন্‌ ৷” (ভারত ৩,১৭৮ অ' ) তলত্র ( ) তলং এtয়তে ত্রৈ-ক । চৰ্ম্মনিৰ্ম্মিত দস্তান । তলত্রাণ (ক্লী ) তলং করতলং ত্রায়তে ত্রৈ-কারণে লুটি কর তল রক্ষক, চৰ্ম্মময় গোধা বিশেষ, চন্ম নিৰ্ম্মিত দস্তান। তলদাবাশ ( দেশজ ) এক প্রকার ফাঁপা অথচ সরু বাশ, ইহাতে ডালা প্রভৃতি প্রস্তুত হয় । তলপ (আরবী ) ১ আহবান। ২ হুকুম। ৩ বেতন । তলধ্বনি (পুং) তলস্ত ধ্বনিঃ ৬তৎ। করতলের শব্দ, হাততালি । তলম্ব, পঞ্চাবে মুলতান জেলার সরাইসিধু তফসীণের একটা সহর । মূলতান সহরের ৫১ মাইল উত্তরপূৰ্ব্বে এবং চন্দ্র ভাগ নদীর বামতটের ২ মাইল দূরে ৩• ৩১ উঃ অক্ষাংশ এবং ৭২ ১ পূঃ দ্রাঘিমায় অবস্থিত। সহরে মিউনিসিপালিটি আছে । રે স্থানে অনেক প্রত্নতত্ত্ব অবগত হওয়া যায় । এক মাইল দক্ষিণে একট প্রাচীন দুর্গ ছিল । এই দুর্গের ইট দ্বার তলম্বের অনেক সৌধ নিৰ্ম্মিত হইয়াছে। এই দুর্গের ইটগুলি প্রাচীন মূলতানের অট্টালিকার ইটের ছায়। অনে, কের মতে, আলেক্সান্দার এই স্থানে চন্দ্রভাগ উত্তীর্ণ হইয়া