পাতা:বেদবতী বা পতিপ্রাণা.pdf/৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

প্রথম অঙ্ক । \O মা জগৎ জননী! স্বামী ষে অবলার কি বস্তু তা তুমিই মা অন্তরে জান । মা তোম। বই পতিপ্রাণকে স্নেহের চক্ষে আর কে দেখ বে ? হায় ! স্বামীর কিসে তুঃখ দূর করি । ভৈরবী—বীপতাল । কেমনে যাতনা প্রাণে সহিবে ললনা হায় ! কোমল কুসুম কলি নিরবে শুকায়ে যায় । দুরন্ত কৃতান্ত করে, একান্ত প্রাণান্ত করে, ছিড়িয়াছে পাতাগুলি, বৃন্তটা ছেদিতে চায় । বেদশী । ও পতিপ্রাণ ! আমি আর একৃলা এ অন্ধকার গৃহে থাকতে পাচ্চি না। আমার বেড়াবার ইচ্ছ। হয়েছে । আমি এখনি স্বভাবের শোভা দেখব । অামায় বাহিরে ল’য়ে চল । বেদতী । স্বামিন ! আপনি কি করে যাবেন আপনার শরীরে যে লাগবে । বেদশী । না। অামায় নিয়ে যেভেই হ’বে । আমি যে আর শূন্য হৃদয় বহিতে পারি না । উঃ কি অন্ধকার ! যেন প্রতি মুহুর্তে নরকযন্ত্রণ ভোগ কচ্চি । আমাকে সদ। সৰ্ব্বদা যেন প্রেতযোনীতে ঘিরে রয়েছে । এদের আর যে দারুণ প্রহার সহ কর্তে পাfচ্চ না । অামায় এ স্থান থেকে শীঘ্ৰ ল’য়ে চল । * বেদতী । অবশ্যই নিয়ে যাব ; বলুন কোথা যাবেন ? চলতে ত’ কোন ব্যথা পাবেন না ?