পাতা:ব্যঙ্গকৌতুক - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্যঙ্গকৌতুক । ما পিপূড়ে সমাজ সম্বন্ধে আমার বিস্তর অনুমানলব্ধ অভিজ্ঞতা আছে। ডেঞেদের সন্তানস্নেহ আছে অতএব পিপ্‌ড়েদের তা কখনই থাকুতে পারে না, কারণ তা’রা পিপৃড়ে, কেবলমাত্র পিপৃড়ে, পিপুড়ে ব্যতীত আর কিছুই নয়। শোনা যায়, পিপড়েরা মাটিতে বাসা বানাতে পারে— স্পষ্টই বোধ হ’চ্চে তা’র ডেঞে জাতির কাছে থেকে স্থপতি বিদ্যা শিক্ষা করেচে—কারণ তা’র পিপৃড়ে—সামান্ত পিপড়ে, সংস্কৃত ভাষায় যাকে বলে পিপীলিকা ! পিপূড়েদের দেখে আমার অত্যন্ত মায়া হয়—ওদের উপকার করবার প্রবৃত্তি আমার অত্যন্ত বলবতী হ’য়ে উঠে । এমন কি আমার ইচ্ছ। করে, সভ্য ডেঞেসমাজ কিছুদিনের জন্য ছেড়ে, দলকে-দল ডেঞে ভ্রাতৃবৃন্দকে নিয়ে পিপড়েদের বাসার মধ্যে বাসস্থাপন করি এবং পিপৃড়েংস্কার কাৰ্য্যে ব্রতী হই--এতদূর পর্য্যন্ত ত্যাগস্বীকার কৰ্ত্তে আমি প্রস্তুত আছি । তাদের শর্করকণা গলাধঃকরণ ক’রে এবং তাদের বিবরের মধ্যে হাত প। ছড়িয়ে কোনোক্রমে আমরা জীবনযাপন ক’বুতে রাজি আছি, যদি এতেও তা’রা কিছুমাত্র উন্নত হয় ! তা’র উন্নতি চায় না—তা’রা নিজের শর্করা নিজে খেতে এবং নিজের বিবরে নিজে বাস করতে চায়—তা’র কারণ, তা’রা পিপড়ে, নিতান্তই পিপড়ে । কিন্তু আমরা যখন ডেঞে, তথন আমরা তাদের উন্নতি দেবোই, এবং তাদের শর্করা আমরা খাবে ও তাদের বিবরে আমরা বাস করবে ! আমরা এবং আমাদের ভাইপো, ভাগনে, ভাইঝি ও শ্বালকবৃন্দ । যদি জিজ্ঞাসা কর তাদের শর্কর আমরা কেন থাবে এবং তাদের বিবরে কেন বাস করবে। তবে তা’র প্রধান কারণ এই দেখাতে পারি যে তা’র পিপড়ে এবং আমরা ডেঞে । দ্বিতীয়, আমরা নিঃস্বার্থ ভাবে পিপড়েদের উন্নতিসাধনে ব্ৰতী হ’য়েচি, অতএব আমরা তাদের শর্কর