পাতা:ব্যবসায়ে বাঙালী.djvu/১৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ব্যবসায়ে বাঙালী Sషితి ব্যবসায়ীরা খরিদ করিয়া থাকেন। মফঃস্বলের প্রায় সকল গ্রামেই বেকার-সম্প্রদায়ের জামা তৈয়ার দরজির দোকান দেখা যায় ; ঐ সমস্ত জাম ব্যবসায়ীর হাফ প্যান্ট, কাপড় কাটিয়া দিয়া, যদি গৃহস্থ बांएँौ ह्हे८उ «थ८ऊाक,ि ९००, « भखूबैौ निग्रा cननाई कब्रिग्रां लन, ७द९ হাওড়া হাট হইতে ছোট ছোট জাম খরিদ না করিয়া, ঐ ভাবে খুচরা পাইকারগণকে সরবরাহ করিয়া স্থানীয় লোকের প্রয়োজন মিটাইতে থাকেন, তাহাতে অনেক গৃহস্থ মেয়েদের y• কিম্বা ৮• রোজগার হওয়া অসম্ভব নহে, এবং হাতের সেলাইও মজবুত হইবে। মাগড়পাড়ায় যৌথভাবে উক্ত প্রকারের একটি প্রতিষ্ঠান স্থাপিত হওয়ায় অনেকগুলি বেকার দৈনিক ve, love রোজগার করে শুনিয়াছি। বিড়ির ব্যবসন৷ কলিকাতায় অনেক বেকার বিড়ি বাধিয়া দৈনিক খোরাকীর ব্যবস্থা করিতেছে। পল্লী-অঞ্চলের অনেক বেকারও এই উপায়ে কায়ক্লেশে জীবনধারণ করিতেছে । পল্লী-অঞ্চলের ২৪ জন মিলিয়া যদি কিছু মূলধন ফেলিয়া বিড়ির পাতা, তামাক, আমদানী করিয়া কিছু কিছু মজুরি দিয়া, পল্লীর ঐ সমস্ত বেকারদিগকে কাজে নিযুক্ত করেন, এবং ঐ সমস্ত বিড়ি নিকটবৰ্ত্তী হাট, বাজার, গঞ্জে দোকানদারদিগকে পাইকারী দরে বিক্রয় করেন, তবে তাহাদেরও কিছু কিছু লাভ হয়, এবং বেকার-সম্প্রদায়ও হয়ত (wo-—eve রোজগার করিতে পারে। কিন্তু বাঙালীর যাহা মজ্জাগত অভ্যাস, বিক্রয়েন্ত্র সংখ্যা একটু বৃদ্ধি পাইলে বেশী লাভের আশায় তামাক কম দিয়া জিনিস খারাপ করা হয়। তাহাতে পশার নষ্ট হইয়া যায়, এবং পাইকার দোকানদারগণ আর উহা লইতে চাহে না । কাজেই ব্যবসায় আর চলে না। ইহাতে পাইকার দোকানদারগণেরও একটু